Wednesday, December 14th, 2016
বাবার জন্যই খেলেন আমেনা
December 14th, 2016 at 7:37 pm
বাবার জন্যই খেলেন আমেনা

ঢাকা: ‘বাবার আদর’ বুঝে উঠার আগেই হারিয়েছেন বাবাকে। বয়স তখন মাত্র সাড়ে তিন বছর। হঠাৎ করেই না ফেরার দেশে পাড়ি জমান বাবা। এতো বড় শোক বুঝে উঠার বয়সটাও তখন হয়নি আমেনার। বড় দু’ভাই আর ছোট বোনকে নিয়ে অথৈ সাগরে পড়েন মা। সংসারে তখন অনটনের চিত্র নিত্যদিনের। যখন বুঝতে শুরু করলেন বাবার আদর, তখন আর তার পাশে বাবাকে খুঁজে পেলেন। মা’ই তাকে বাবার আদর দিতে শুরু করেন।

বড় দু’ভাই পড়াশোনা বন্ধ করে দিয়ে প্রবেশ করলেন কর্মজীবনে। বড় ভাই সোয়েটার ফ্যাক্টরিতে কাজ করলেও ছোট ভাই চালান রিক্সা। ভাইয়েরা সংসারের হাল ধরায় পড়াশোনায় মনোনিবেশ করেন আমেনা ও তার ছোট বোন। কিছু দিন পরেই সংসারে কিছুটা সুখের নাগাল দেখা দেয়। তৃতীয় শ্রেনীতে পড়ার সময়ই স্কুল দলের হয়ে ফুটবল প্র্যাকটিস শুরু করেন আমেনা। কিছু দিন পর ফুটবলকে বিদায় বলে দেন কলসিন্দুরের এ কিশোরী। কিন্তু এক বছর করার পর আবারো ফুটবলে ফিরে আসেন। মফিজ স্যারের অনুরোধেই আবারো ফিরে আসেন অনুশীলনে। এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি ১৩ বছর বয়সী এ স্ট্রাইকারকে। সুযোগ পেয়ে যান হাইস্কুল দলে।

এবার জেএফএ অনুর্ধ্ব-১৪ মহিলা চ্যাম্পিয়নশীপে নিজ জেলার হয়ে মাঠে নেমেই নিজেকে প্রমান করেন আমেনা। আসরের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়ে যান। এখন তার স্বপ্ন আকাশ ছোঁয়ার। সানজিদা-মার্জিয়াদের মতোই মাঠ কাঁপাতে চান পিতৃহীন আমেনা। জাতীয় দলের প্রতিনিধিত্ব করতে চান কলসিন্দুর এলাকার ছোট্ট এ মেয়ে। তার চোখে-মুখে এখন রঙ্গীন স্বপ্ন। ফুটবলকে এখন পেশা হিসেবে নিতে চান সারাজীবনের জন্য।

আমেনার বাবা ফুটবল অনেক বেশী ভালোবাসতেন। কিন্তু তার ছেলে কিংবা মেয়ে যে একদিন ফুটবল খেলবে, সেটা হয়তো ভাবেননি। বাবা নেই, তাতে কি?- বাবা যে খেলাটিকে ভালোবাসতেন, সে খেলাইতো খেলছেন অষ্টম শ্রেনীতে পড়ুয়া এ ফুটবলার। বাবা ওপারে বসে দেখবেন তার মেয়ে ফুটবল খেলে মাঠ মাতাচ্ছে, এতেই তৃপ্তি আমেনার। তাইতো টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড় হয়েই মনে করলেন বাবাকে। বলেন, ‘বাবা জীবিত থাকলে আজ অনেক খুশী হতেন। আজ বাবাকে খুব বেশী মনে পড়ছে। আমি আমার বাবার জন্যই ফুটবল খেলবো। তিনি ওপারে বসে দেখবেন তার মেয়ের কৃতিত্ব।’

ফুটবল খেলতে আমেনার পরিবার আমেনাকে কখনো বাঁধা দেয়নি। তবে এ পর্যন্ত আসতে তাকে অনেক কাঠ-খড় পোড়াতে হয়েছে। খেয়ে না খেয়ে করেছেন অনুশীলন। সে সব কষ্ট এখন আর মনে করতে চান না তিনি। এগিয়ে যাওয়ার স্বপ্নই দেখছেন আমেনা।

প্রতিবেদন: কবির, প্রকাশ: তুহিন


সর্বশেষ

আরও খবর

সিনেটে ১ লাখ ৯০ হাজার কোটি ডলারের করোনা সহায়তা বিল পাস

সিনেটে ১ লাখ ৯০ হাজার কোটি ডলারের করোনা সহায়তা বিল পাস


বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা


ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ৫০ বছর

ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ৫০ বছর


কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোরের জামিন মঞ্জুর

কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোরের জামিন মঞ্জুর


একদিনেই সড়কে ঝড়ল ১৯ প্রাণ

একদিনেই সড়কে ঝড়ল ১৯ প্রাণ


শাহবাগে মশাল মিছিলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ, আটক ৩

শাহবাগে মশাল মিছিলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ, আটক ৩


গুলিবিদ্ধ সাংবাদিক মারা যাওয়ার ৬০ ঘন্টা পরে পরিবারের মামলা

গুলিবিদ্ধ সাংবাদিক মারা যাওয়ার ৬০ ঘন্টা পরে পরিবারের মামলা


করোনায় ২৪ ঘণ্টায় আরও ৭ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩২৭

করোনায় ২৪ ঘণ্টায় আরও ৭ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩২৭


নামাজ পড়ানোর সময় সিজদারত অবস্থায় ইমামের মৃত্যু

নামাজ পড়ানোর সময় সিজদারত অবস্থায় ইমামের মৃত্যু


ভাষার বৈচিত্র্য ধরে রাখার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

ভাষার বৈচিত্র্য ধরে রাখার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর