Sunday, June 26th, 2016
বাড়ছে ইয়াবার ব্যবহার
June 26th, 2016 at 8:02 pm
বাড়ছে ইয়াবার ব্যবহার

প্রীতম সাহা সুদীপ, ঢাকা: বাংলাদেশে মাদক হিসেবে ইয়াবার ব্যবহার দিন দিন বেড়েই চলেছে। প্রায় প্রতিদিনই সমুদ্রপথে হাতবদল হচ্ছে এ মরননেশার বড় বড় চালান। টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে মায়ানমার থেকে চালানগুলো দেশে প্রবেশ করছে।  শুধু তাই নয়, খোঁজ নিয়ে জানা গেছে তিনটি সংঘবদ্ধ চক্র খোদ রাজধানী ঢাকাতেই ইয়াবার কারখানা স্থাপন করেছে, যেখানে উৎপাদিত লাখ লাখ ইয়াবা ট্যাবলেট প্রতিদিন সরবরাহ হচ্ছে দেশের বাজারে।

রোববার মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচার বিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস উপলক্ষে সম্প্রতি ঢাকা আহছানিয়া মিশন এক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। এতে জানানো হয়, দেশে নারী মাদকাসক্তের ৪৩ শতাংশ আর পুরুষ মাদকাসক্তদের মধ্যে ৪১ শতাংশই ইয়াবা সেবী।

yaba 3

অনুসন্ধানে জানা গেছে, গত ছয় মাসে সীমান্ত দিয়ে আসা ৮৫ কোটি টাকারও বেশি মূল্যের ইয়াবা উদ্ধার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। বড় চালানগুলো সমুদ্রপথেই হাতবদল হয়। কর্ণফুলী ও নাফ নদী দিয়ে গভীর সমুদ্রে দাঁড়ানো জাহাজে চালানগুলো উঠে যায়।

বিজিবি’র টেকনাফ ব্যাটেলিয়ন এর অধিনায়ক লে. কর্নেল আবু জার আল নিউজনেক্সটবিডি ডটকমকে জানান, ইয়াবা যাতে দেশে ঢুকতে না পারে এজন্য আমাদের অভিযান জোরদার করা হয়েছে। বিজিবি’র টিম ১২টি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে কাজ করছে। নজরদারিতে রয়েছে ৪১টি এলাকা। গত জানুয়ারীতে প্রায় ছয় কোটি ৩১ লাখ টাকার, ফেব্রুয়ারীতে ১৭ কোটি ৭২ লাখ টাকার, মার্চে পাঁচ কোটি তিন লাখ টাকার, এপ্রিলে ৩২ কোটি ৩১ লাখ টাকার, মে মাসে ১০ কোটি ২৮ লাখ টাকার এবং চলতি জুন মাসে ১৫ দিনে ১৩ কোটি ৪০ লাখ টাকারও বেশি মূল্যের ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

yaba 2

কাউন্টার টেরোরিজম (সিটি) ও ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম নিউজনেক্সটবিডি ডটকমকে বলেন, দুটি বা তার অধিক রাষ্ট্রের অপরাধীরা যেসব অপরাধ করবেন, এ নিয়ে সিটি কাজ করবে। ইয়াবা ব্যবসায় যেহেতু মিয়ানমার ও বাংলাদেশের মাদক ব্যবসায়ীরা সংঘবদ্ধ হয়ে করেন, সেহেতু এটি নিয়ে আমরা কাজ করব। আমরা মিয়ানমারের তিন ব্যক্তির নাম পেয়েছি। যারা মাছের ট্রলারে করে ইয়াবা বাংলাদেশ পাচার করেন। তাদের বিষয়ে আমাদের বর্ডারে তথ্য দেয়া হয়েছে।’ ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের এই অতিরিক্ত কমিশনার আরো বলেন, ‘মিয়ানমার থেকে ইয়াবা পাচার হওয়ার পর বিভিন্ন পরিবহনের চালক ও হেল্পার তা বহন করে ঢাকায় নিয়ে আসে। এরপর ঢাকার ডিলাররা তা খুচরা মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে বিলি করে। আমরা খুচরা মাদক ব্যবসায়ীদের তালিকা পেয়েছি। তাদের গ্রেফতারে অভিযান চালানো হচ্ছে।’

পুলিশের মাদকদ্রব্য উদ্ধার টিমের এক কর্মকর্তা জানান, এখন পর্যন্ত ঢাকাতেই অন্তত ইয়াবার পাঁচটি নকল কারখানার সন্ধান পাওয়া গেছে। এ ছাড়া বিভিন্ন পথে ঢাকায় ইয়াবা প্রবেশ করছে।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের হিসাব অনুযায়ী, বাংলাদেশে গত আট বছরে মাদক হিসেবে ইয়াবার ব্যবহার অস্বাভাবিক হারে বেড়েছে। অধিদপ্তরের অভিযানে ২০০৮ সালে ৩৬ হাজার ৫৪৩টি, ২০০৯ সালে এক লাখ ২৯ হাজার ৬৪৪টি, ২০১০ সালে আট লাখ ১২ হাজার ৭১৬টি, ২০১১ সালে ১৩ লাখ ৬০ হাজার ১৮৬টি, ২০১২ সালে ১৯ লাখ ৫১ হাজার ৩৯২টি, ২০১৩ সালে ২৮ লাখ ২১ হাজার ৫২৮টি, ২০১৪ সালে ৬৭ লাখ ৬৭ হাজার ৩৩৮টি এবং ২০১৫ সালে এক কোটি ৯৫ লাখ ৪৪ হাজার ১৭৫টি ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার হয়েছে৷

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/পিএসএস/এসকে


সর্বশেষ

আরও খবর

কাউন্সিলর পদ থেকে বরখাস্ত হচ্ছেন ইরফান সেলিম

কাউন্সিলর পদ থেকে বরখাস্ত হচ্ছেন ইরফান সেলিম


করোনা: আরও ২৩ মৃত্যু, শনাক্ত ১৩০৮

করোনা: আরও ২৩ মৃত্যু, শনাক্ত ১৩০৮


সেনাপ্রধান ফেইসবুকে নেই: আইএসপিআর

সেনাপ্রধান ফেইসবুকে নেই: আইএসপিআর


ধর্ষণের সাজা মৃত্যুদণ্ডের চূড়ান্ত অনুমোদন

ধর্ষণের সাজা মৃত্যুদণ্ডের চূড়ান্ত অনুমোদন


করোনায় আরও ১৯ জনের মৃত্যু

করোনায় আরও ১৯ জনের মৃত্যু


বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত ব্যারিস্টার রফিক-উল হক

বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত ব্যারিস্টার রফিক-উল হক


সাগরে ৪ নম্বর সংকেত, বৃষ্টি অব্যাহত থাকবে আরও দুই দিন

সাগরে ৪ নম্বর সংকেত, বৃষ্টি অব্যাহত থাকবে আরও দুই দিন


দু-তিন দিনের মধ্যে আলুর দাম কমবে: বাণিজ্যমন্ত্রী

দু-তিন দিনের মধ্যে আলুর দাম কমবে: বাণিজ্যমন্ত্রী


সারা দেশের নৌ ধর্মঘট প্রত্যাহার

সারা দেশের নৌ ধর্মঘট প্রত্যাহার


অতিরিক্ত মূল্যে আলু বিক্রির দায়ে বরিশালে চার ব্যবসায়ীকে জরিমানা

অতিরিক্ত মূল্যে আলু বিক্রির দায়ে বরিশালে চার ব্যবসায়ীকে জরিমানা