Thursday, October 6th, 2022
বিশ্বভারতীতে ‘বাংলাদেশ ভবন’ উদ্বোধন করলেন মোদি-হাসিনা
May 25th, 2018 at 3:07 pm
বিশ্বভারতীতে ‘বাংলাদেশ ভবন’ উদ্বোধন করলেন মোদি-হাসিনা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতিবিজড়িত শান্তিনিকেতনের বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ‌‘বাংলাদেশ ভবন’ উদ্বোধন করা হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এই ভবন উদ্বোধন করেন। এই ভবনে অবস্থিত জাদুঘরটি ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধে দু’দেশের বন্ধনকে তুলে ধরেছে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, আমরা এখানে এবং দেশের যে কোনো স্থানে শিক্ষার্থীদের সহায়তায় কাজ করে যাচ্ছি। বাংলাদেশ এবং ভারতের উষ্ণ সম্পর্কের প্রতীক হিসেবে ২৫ কোটি রুপি ব্যয়ে নির্মিত হয়েছে বাংলাদেশ ভবন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়, বাংলাদেশের মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, শিক্ষাবিদ ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনের প্রতিনিধিরা।

শুক্রবার সকালে মোদি সেখানে পৌঁছানোর পর তাকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এর আগে শুক্রবার সকাল পৌনে ৯টায় বাংলাদেশ বিমানের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইট সফরসঙ্গীদের নিয়ে কলকাতার উদ্দেশে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করেন শেখ হাসিনা।

মোদি পৌঁছানোর পর সৌজন্য বিনিময় হয় দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে। উত্তরীয় পরিয়ে তাদের স্বাগত জানান বিশ্বভারতীর উপাচার্য সবুজকলি সেন। আগামীকাল আসানসোলে কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানসূচক ডক্টরেট অব লিটারেচার (ডিলিট) গ্রহণ করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আলোচ্যসূচিতে যা থাকছে: পররাষ্ট্র ও কূটনৈতিক সূত্র জানায়, শেখ হাসিনা-নরেন্দ্র মোদির বৈঠকের আলোচ্যসূচিতে তিস্তার পানি বণ্টন, সীমান্ত ব্যবস্থাপনা, রোহিঙ্গা সংকট এবং দুই বন্ধু রাষ্ট্রের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরও জোরদার করা এবং আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক যৌথ স্বার্থসংশ্নিষ্ট বিষয়গুলো রয়েছে। বৈঠকে তিস্তার পানি বণ্টন চুক্তি প্রক্রিয়ার অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা হতে পারে। তিস্তা চুক্তি সংক্রান্ত বিদ্যমান পরিস্থিতি সাপেক্ষে আলোচনা এর চেয়ে বেশি এগোনোর সম্ভাবনা কম।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, বৈঠকে রোহিঙ্গা সংকট পরিস্থিতি নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা হবে বলে আশা করা হচ্ছে। বাংলাদেশের দিক থেকে দ্বিপক্ষীয় আলোচনায় রোহিঙ্গা সংকট প্রসঙ্গকেই বেশি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। কারণ রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে প্রত্যাবাসন ত্বরান্বিত করা এবং সংকটের স্থায়ী সমাধানে ভারতের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ বলে বিবেচিত হচ্ছে। রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে মিয়ানমারের ওপর আরও আন্তর্জাতিক চাপ সৃষ্টির জন্য ভারতের প্রতি আহ্বান জানাতে পারেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

গ্রন্থনা ও সম্পাদনা: এম কে রায়হান


সর্বশেষ

আরও খবর

দেশের পথে প্রধানমন্ত্রী

দেশের পথে প্রধানমন্ত্রী


দাম কমলো এলপিজির 

দাম কমলো এলপিজির 


বিমানবন্দর সড়কের পানি সেঁচলো ট্রাফিক পুলিশ


রক আইকনের জন্মদিনে !

রক আইকনের জন্মদিনে !


ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায়  ৬৩৫ জন দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে !

ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায়  ৬৩৫ জন দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে !


একুশে পদকপ্রাপ্ত বর্ষীয়ান সাংবাদিক তোয়াব খান আর নেই 

একুশে পদকপ্রাপ্ত বর্ষীয়ান সাংবাদিক তোয়াব খান আর নেই 


রাজনৈতিক সহিংসতায় ৯ মাসে মৃত্যু ৫৮ আসকের প্রতিবেদন

রাজনৈতিক সহিংসতায় ৯ মাসে মৃত্যু ৫৮ আসকের প্রতিবেদন


ইউক্রেন নিয়ন্ত্রিত চার অঞ্চলকে রুশ ফেডারেশনের অংশ ঘোষণা দিয়েছেন ভ্লাদিমির পুতিন।

ইউক্রেন নিয়ন্ত্রিত চার অঞ্চলকে রুশ ফেডারেশনের অংশ ঘোষণা দিয়েছেন ভ্লাদিমির পুতিন।


রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা টেকনাফে পাঁচ কৃষককে অপহরণ করল


বিদায় বেনজীর 

বিদায় বেনজীর