Monday, June 20th, 2016
বিশ্ব শরণার্থী দিবস সোমবার
June 20th, 2016 at 9:31 am
বিশ্ব শরণার্থী দিবস সোমবার

ঢাকা: বিশ্ব শরণার্থী দিবস সোমবার। জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে গৃহীত প্রস্তাব অনুযায়ী, ২০০১ সাল থেকে প্রতি বছর এই দিনটি বিশ্ব শরণার্থী দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে। বিশ্বব্যাপী শরণার্থীদের দুঃখ-দুর্দশায় বিশ্ব জনমত গঠন ও তাদের এ অবস্থা থেকে পরিত্রাণের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণে রাষ্ট্র ও সরকারকে উদ্বুদ্ধ করাই দিবসটির মূল লক্ষ্য। বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও যথাযোগ্য মর্যাদায় দিবসটি পালিত হচ্ছে।

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা (ইউএনএইচসিআর) এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, বর্তমানে প্রায় সাড়ে ছয় কোটি মানুষ শরণার্থী হিসেবে মানবেতর জীবন-যাপন করছে। আর ভূমধ্যসাগরে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে পাড়ি দিয়েছে ১০ লাখেরও বেশি শরণার্থী। আর এই সাগর পাড়ি দেওয়ার সময় নৌকাডুবিতে চলতি বছরের গত পাঁচ মাসে প্রাণ হারিয়েছেন আড়াই হাজারেরও বেশি মানুষ।

সম্প্রতি ইউএনএইচসিআরের মুখপাত্র উইলিয়াম স্পিন্ডলার আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন, ২০১৬ সালে শরণার্থী মৃত্যুর হার আশঙ্কাজনক পর্যায়ে পৌঁছতে যাচ্ছে। তিনি বলেন, তুরস্ক থেকে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে গ্রিসে যাওয়া যায়। লিবিয়া থেকে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইতালি যাওয়া যায়। এর মধ্যে লিবিয়া থেকে ইতালির পথে সাগরযাত্রা বেশি দীর্ঘ। এই পথেই মারা গেছেন ২ হাজার ১১৯ জন শরণার্থী। অর্থাৎ এই পথে পাড়ি দেওয়া প্রতি ২৩ জন শরণার্থীর মধ্যে ১ জন নৌকাডুবিতে মারা যাচ্ছেন। নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে শিশুর সংখ্যা উল্লেখযোগ্য।

আন্তর্জাতিক অভিবাসী সংস্থা (আইওএম) সম্প্রতি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ২০১৫ সালে ইউরোপে শরণার্থীদের তথাকথিত অনিয়মিত আগমনের সংখ্যা এখন পর্যন্ত ১০ লাখ ৫ হাজার ৫০৪ জন। এই শরণার্থীদের একটা বড় অংশ (৯ লাখ ৭১ হাজার ২৮৯ জন) ইউরোপে এসেছে সাগর পাড়ি দিয়ে। আরও প্রায় ৩৪ হাজার ২১৫ জন এসেছে স্থলপথে। যারা সাগর পাড়ি দিয়েছে তাদের মধ্যে ৩ হাজার ৬৯৫ জন হয়তো সাগরে ডুবে মারা গেছে, নয়তো নিখোঁজ হয়েছে।

আইওএমের পরিচালক জেনারেল উইলিয়াম লেছি সুইং ভূমধ্যসাগর হয়ে শরণার্থীদের ইউরোপে আসার এই পথকে বিশ্বের সবচেয়ে বিপজ্জনক নৌপথ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। কারণ শুধু ২০১৫ সালেই যে সাড়ে তিন হাজার শরণার্থী মারা গেছে সেটা এই পথেই। সে তুলনায় যুক্তরাষ্ট্র ও মেক্সিকোর সীমান্তবর্তী পথটি হচ্ছে বিশ্বের দ্বিতীয় বিপজ্জনক পথ। কারণ ১৯৯৮ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত এই পথে মারা যায় প্রায় ছয় হাজার মানুষ।

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/এমএস/এসআই


সর্বশেষ

আরও খবর

রিজভী-দুলুর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি

রিজভী-দুলুর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি


অপারেশনের পর সুস্থ আছেন খালেদা জিয়া: ফখরুল

অপারেশনের পর সুস্থ আছেন খালেদা জিয়া: ফখরুল


কুমিল্লার মূল অভিযুক্ত পালিয়ে বেড়াচ্ছে, দ্রুতই গ্রেপ্তার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

কুমিল্লার মূল অভিযুক্ত পালিয়ে বেড়াচ্ছে, দ্রুতই গ্রেপ্তার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী


দেবীগঞ্জের অগ্নিকাণ্ড নিছক দূর্ঘটনা: ইউএনও

দেবীগঞ্জের অগ্নিকাণ্ড নিছক দূর্ঘটনা: ইউএনও


ওয়েবসাইট বন্ধ করে দিয়েছে ইভ্যালি কর্তৃপক্ষ

ওয়েবসাইট বন্ধ করে দিয়েছে ইভ্যালি কর্তৃপক্ষ


মিরপুরে খালে পড়ে নিখোঁজ ব্যক্তিকে ৬ ঘণ্টা পর জীবিত উদ্ধার

মিরপুরে খালে পড়ে নিখোঁজ ব্যক্তিকে ৬ ঘণ্টা পর জীবিত উদ্ধার


ফেসবুকে কিডনি বেচাকেনা, চক্রের ৫ সদস্য গ্রেপ্তার

ফেসবুকে কিডনি বেচাকেনা, চক্রের ৫ সদস্য গ্রেপ্তার


সেই ভুয়া অতিরিক্ত সচিবের বিরুদ্ধে মামলা করবেন মুসা বিন শমসের

সেই ভুয়া অতিরিক্ত সচিবের বিরুদ্ধে মামলা করবেন মুসা বিন শমসের


শান্তিতে নোবেল পেলেন দুই সাংবাদিক

শান্তিতে নোবেল পেলেন দুই সাংবাদিক


তিন দিনে ১ লাখ ২৫ হাজার অবৈধ মুঠোফোন শনাক্ত

তিন দিনে ১ লাখ ২৫ হাজার অবৈধ মুঠোফোন শনাক্ত