Sunday, November 6th, 2016
ব্রিটেনে ডিম, বাংলাদেশে হরতাল
November 6th, 2016 at 1:51 pm
ডিম নিক্ষেপ অপরাধ হলেও যখন এটি প্রতিবাদ হিসাবে ব্যবহৃত হয়, তখন এটিকে অপরাধ হিসেবে সাধারণ মানুষও গণ্য করে না।
ব্রিটেনে ডিম, বাংলাদেশে হরতাল

যুক্তরাজ্য থেকে নুরুল আকবর সবুজ: অশ্ব ডিম্ব নিয়ে অনেক গল্প আছে। কিন্তু বাস্তবে কি এ ডিম্ব আছে? উত্তরটা সবার জানা, তাই এ নিয়ে নতুন গল্প না বলাই ভালো। ডিমে এলার্জি থাকায় এটা না খাওয়ার আক্ষেপ অনেকেরই আছে। কিন্তু ব্রিটিশ রাজনীতিকদের জন্য ডিম এলার্জির চেয়েও বেশি। তাদের খাবার টেবিলে ডিম নিয়মিত খাবার হলেও রাজনৈতিক ময়দানে ডিম নিক্ষেপ থেকে নিজেদের বাঁচিয়ে রাখার চেষ্টা থাকে। ব্রিটিশ রাজনীতিকদের খারাপ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের চরম পর্যায়ে ডিম নিক্ষেপের মতো খাবারের উচ্ছিষ্টও ব্যবহার হয়। ডিম নিক্ষেপের প্রতিবাদের ইতিহাসও শ’শ’ বছরের।

কিন্তু কেন? কিছু উদাহরণে হয়তো উত্তরটা বেরিয়ে আসবে। ব্রিটেনের সদ্য সাবেক প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যমেরন, সদ্য সাবেক লেবার পার্টি প্রধান অ্যাড মিলিব্যান্ড, ইউকেআইপি প্রধান নাইজেল ফারাজ, স্পষ্টভাষী রাজনীতিক হিসেবে পরিচিত জর্জ গ্যালওয়েসহ আরো অনেকে ডিম এবং খাবারের উচ্ছিষ্ট দ্বারা আক্রান্ত হন। যত দূর মনে পড়ে, ২০১০ সালের নির্বাচনী প্রচারণার অংশ হিসাবে একটি কলেজ পরিদর্শনে যান ডেভিড ক্যামেরন। কলেজটি পরিদর্শন শেষে বের হওয়ার সময় অপ্রাপ্ত বয়স্ক একটি ছেলে সঠিক নিশানায় তার দিকে ডিম ছুড়ে মারে। এটি সরাসরি আঘাত হানে ক্যামেরনের কাঁধে। অভিজ্ঞ রাজনীতিক হিসাবে তিনি ডান-বাম তাকানোর বিপদটা জানেন। তাই ডিম নিয়েই সোজা পথে হেটে চলে যান।

তার সঙ্গে ছিলেন ডেইলি মেইলের এক রিপোর্টার। কোনো কারণে তিনি মুরগির মুখোশ পরেছিলেন। ঘটনার পর বিবিসিকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ ঘটনা কথা বর্ণনা করেন। অনেকদিন পর আজ নিয়মিত শুনতে হয় এমন একটি প্রশ্নের উত্তর পেয়েছি। তা হলো, মুরগি আগে না ডিম আগে? জবাব হচ্ছে, মুরগি আগে, ডিম নয়। এভাবে ডিম নিক্ষেপের শিকার হন ব্রিটেনের অনেক ডাকসাইটে রাজনীতিক। এখানে উল্লেখ করা প্রয়োজন, সে সময়ে ডেভিড ক্যামেরনের বেনিফিট বিরোধী অবস্থান নিম্ন আয়ের মানুষকে ক্ষেপিয়ে তুলেছিল।

একইভাবে সাবেক লেবার দলীয় প্রধানের ওপর ডিম ছোড়েন নিজ দলীয় ক্ষুব্ধ এক কর্মী। দলীয় প্রধান হিসাবে দলটির পরিচালনায় বেশ কিছু সংস্কার কর্মসূচির বিরুদ্ধে অবস্থান নেয় দলের নেতাকর্মীদের একটি অংশ। প্রতিবাদের ভাষা হিসেবে ডিম কেন এত জনপ্রিয়? ব্রিটেনের জনগন যখন বোঝেন, রাজনীতিকদের কোনো সিদ্ধান্ত তাদের স্বার্থের পরিপন্থি হচ্ছে, এবং সংবাদ মাধ্যম ও বিক্ষোপ মিছিল কোনো কিছুতেই কাজ হচ্ছে না, তখনই প্রতিবাদের ভাষা হিসেবে তারা বেছে নেয় ডিম। কারণ প্রতিবাদকারীরা জানে, হরতাল দিয়ে দেশের অর্থনীতির বারোটা বাজানোর কোনো মানে হয় না। সিদ্ধান্ত গ্রহণে হয়তো ছিলেন দশ-বিশ বা ৪০ জন। এ কয়জন মানুষের বাজে সিদ্ধান্তের জন্য সাধারণ জনতাকে ভোগানো হলে প্রতিবাদের গুরুত্ব বরং কমে যায়। এজন্য ডিমই তাদের প্রতিবাদের ভাষা হয়ে ওঠে।

ব্রিটেনের আইনে সাধারণত ডিম নিক্ষেপ ‘অপরাধ‘ হিসাবেই গণ্য হয়। কিন্তু রাজনীতিকদের ওপর ডিম নিক্ষেপের কারণে কারো সাজা হয়েছে, এরকম খবর পাওয়া যায়নি। রাজনীতিকদের সিদ্ধান্তের কারণে জনগণ সুখ কিংবা দুঃখ ভোগ করে। তাই তাদের নিয়ে যতখুশি সমালোচনা করা যায়। ডিম নিক্ষেপ অপরাধ হলেও যখন এটি প্রতিবাদ হিসাবে ব্যবহৃত হয়, তখন এটিকে অপরাধ হিসেবে সাধারণ মানুষও গণ্য করে না। তাই এ নিয়ে বেশি কড়াকড়ি অবস্থান নিয়ে সাধারণ মানুষকে আরো বিক্ষুব্ধ করা থেকে নিবৃত্ত রাখতে পুলিশও নিরাপদ অবস্থান খোঁজে। আর ডিম নিক্ষেপের ঘটনাটি অপ্রাপ্ত বয়স্ক কেউ যদি করে, তখন তো আইনের হাতও বাঁধা।

এদিকে নাসরিননগরের ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা থেকে শুরু করে ইউনিয়ন পরিষদের নেতাদের বিরুদ্ধে কয়েকদিনে পাইকারি হারে সমালোচনা শুরু হয়েছে। কেউ কেউ হরতাল দেয়ার কথাও বলছে। এ ঘটনায় হাসিনা কিংবা ছায়েদুল হকের দায় কতটুকু? তারাই যদি দায়ী হন, তবে কয়েকজনের সিদ্ধান্তের জন্য হরতাল কেন? দোষ করেছে কয়েকজন নেতা। তাদের অপরাধে কেন গরিব মানুষের আয়-রোজগার বন্ধ করে দেয়া হবে? রাস্তাঘাট বন্ধ রেখে কেন জনদুর্ভোগ বাড়ানো হবে? সবাইকে পাইকারিভাবে দোষি করে প্রতিবাদকেই বরং দুর্বলই করে ফেলা হয়।

যারা ঘটনায় সংশ্লিষ্ট ছিল অথবা যাদের অবহেলা ছিল, তাদেরকে টার্গেট করেই প্রতিবাদের ভাষা নির্ধারণ করা উচিত। তবেই ভবিষ্যতের জন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করা যেতে পারে। অপ্রয়োজনে হরতাল করলে এর তাল ধরে রাখা বেশ কষ্টকর।

nurul-akbar-shabuj

লেখক: ব্রিটেন প্রবাসী সাংবাদিক

গ্রন্থনা ও সম্পাদনা: আবু তাহের


সর্বশেষ

আরও খবর

মহামারী, পাকস্থলির লকডাউন ও সহমতযন্ত্রের নরভোজ

মহামারী, পাকস্থলির লকডাউন ও সহমতযন্ত্রের নরভোজ


ঢাকা-দিল্লি ৫ সমঝোতা স্মারক সই

ঢাকা-দিল্লি ৫ সমঝোতা স্মারক সই


করোনায় আরও ৩৯ মৃত্যু

করোনায় আরও ৩৯ মৃত্যু


করোনায় আক্রান্ত শচীন

করোনায় আক্রান্ত শচীন


নাশকতা ঠেকাতে র‍্যাব-পুলিশের কঠোর অবস্থান

নাশকতা ঠেকাতে র‍্যাব-পুলিশের কঠোর অবস্থান


শুক্র ও শনিবার যান চলাচল নিয়ন্ত্রিত থাকবে

শুক্র ও শনিবার যান চলাচল নিয়ন্ত্রিত থাকবে


মতিঝিলে মোদিবিরোধী বিক্ষোভ, শিশুবক্তা রফিকুলসহ অন্তত ১০ জন আটক

মতিঝিলে মোদিবিরোধী বিক্ষোভ, শিশুবক্তা রফিকুলসহ অন্তত ১০ জন আটক


ঈদের পর স্কুল-কলেজ খোলার ইঙ্গিত শিক্ষামন্ত্রীর

ঈদের পর স্কুল-কলেজ খোলার ইঙ্গিত শিক্ষামন্ত্রীর


৮ মাস পর দেশে করোনায় এক দিনে সর্বোচ্চ ৩৫৫৪ শনাক্ত

৮ মাস পর দেশে করোনায় এক দিনে সর্বোচ্চ ৩৫৫৪ শনাক্ত


শেখ হাসিনাকে হত্যার ষড়যন্ত্রে ১৪ জঙ্গিকে ফায়ারিং স্কোয়াডে মৃত্যুদণ্ড

শেখ হাসিনাকে হত্যার ষড়যন্ত্রে ১৪ জঙ্গিকে ফায়ারিং স্কোয়াডে মৃত্যুদণ্ড