Sunday, December 30th, 2018
ভোট গ্রহণ শুরু
December 30th, 2018 at 10:05 am
ভোট গ্রহণ শুরু

ঢাকা: শুরু হয়েছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ, চলবে টানা ৪টা পর্যন্ত। শীতের ঘন কুয়াশা ও সকালের হিমেল হাওয়া উপেক্ষা করে ভোট দিতে যাচ্ছেন ভোটাররা। সকালে ভোটারদের সংখ্যা কম হলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে তা বাড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এবারের নির্বাচনে মোট ৩৯টি রাজনৈতিক দল অংশ নিলেও মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মধ্যে। বৃহত্তর এই দুই দলের নেতৃত্বে মহাজোট ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নামে দুটি রাজনৈতিক জোটের ব্যানারে এক ডজনেরও বেশি দল নির্বাচনি মাঠে রয়েছে। তবে একজন প্রার্থীর মৃত্যুর কারণে গাইবান্ধা-৩ আসনে ভোট হচ্ছে না। ২৭ জানুয়ারি এই আসনে ভোটের দিন নির্ধারণ করা হয়েছে।

এদিকে, ভোট কেমন হবে বা হয়েছে তা বেলা ১২টার পরই সবার কাছে স্পষ্ট হবে। নির্বাচন নিয়ে বিরোধী জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট একের পর এক অভিযোগ তুললেও শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত ভোটের লড়াইয়ে থাকার ঘোষণা দিয়েছে তারা।

এবারের ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সংখ্যা ১ হাজার ৮৬১জন। এর মধ্যে রাজনৈতিক দলের প্রার্থীর সংখ্যা ১ হাজার ৭৩৩জন এবং স্বতন্ত্র প্রার্থীর হিসেবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন ১২৮ জন প্রার্থী।

নির্বাচনকে ঘিরে সারাদেশকে কঠোর নিরাপত্তার বেষ্টনীর মধ্যে আনা হয়েছে। রাজধানী ঢাকা অনেকটাই ফাঁকা। সড়কে পুলিশ, র্যাব ও বিজিবির পাশাপাশি সেনা সদস্যরা রয়েছেন তল্লাশিতে। সারাদেশে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা রয়েছে। মোতায়েন রয়েছে প্রায় ৭ লাখের বেশি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য। এর মধ্যে ভোটকেন্দ্র পাহারায় থাকবে ৬ লাখ ৮ হাজার সদস্য। এসব কেন্দ্রে পাহারায় থাকবে পুলিশ, আনসার ও গ্রাম পুলিশ, যা এবার প্রথমবার যোগ করা হয়েছে। বাড়তি নিরাপত্তায় মোতায়েন রয়েছে সশস্ত্রবাহিনীর সদস্য। ভোটগ্রহণ উপলক্ষ্যে আজ সারাদেশে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে আগেই।

এবারই প্রথমবারের মতো ছয়টি সংসদীয় আসনে ইভিএম ব্যবহার করা হচ্ছে। এগুলো হলো- ঢাকা-৬, ঢাকা-১৩, রংপুর-৩, খুলনা-২, সাতক্ষীরা-২ ও চট্টগ্রাম-৯।

এবার ৪০ হাজার ১৮৩টি ভোটকেন্দ্রে ২ লাখ ৭ হাজার ৩১২টি ভোটকক্ষে ১০ কোটি ৪২ লাখ ৩৮ হাজার ৬৭৭ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৫ কোটি ২৫ লাখ ৭২ হাজার ৩৬৫ জন এবং নারী ভোটার রয়েছেন ৫ কোটি ১৬ লাখ ৬৬ হাজার ৩১২ জন। নতুন প্রায় ১ কোটি ২৩ লাখ ভোটার প্রথমবারের মতো জাতীয় নির্বাচনে ভোট দেবেন।

১ হাজার ৩২৮ জন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটের মধ্যে আচরণবিধি প্রতিপালনের জন্য ৬৫২ জন, অবশিষ্ট ৬৭৬ জন আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোবাইল/স্ট্রাইকিং ফোর্সের সাথে নিয়োজিত রয়েছেন। জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৬৪০জন, ১২২টি ইলেক্টোরাল ইনকোয়ারি কমিটিতে ২৪৪ জন, প্রিজাইডিং অফিসার ৪০ হাজার ১৮৩জন, সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ২ লাখ ৭ হাজার ৩১২ জন এবং পোলিং অফিসার ৪ লাখ ১৪ হাজার ৬২৪ জন।

গত ১০ ডিসেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে প্রচারণা শুরু হওয়ার পর টানা ১৯ দিনের প্রচার-প্রচারণায় দেশের বিভিন্ন স্থানে সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। এসব ঘটনায় মারা গেছে অন্তত ৯ জন। শুক্রবার সকাল ৮টার পর থেকে সব ধরনের প্রচার বন্ধ রয়েছে। শনিবার দেশের সব ভোটকেন্দ্রে নির্বাচনি মালামাল পৌঁছে গেছে। ভোটের সময় গুজব ও প্রভাব বিস্তার বন্ধে মোবাইলে ইন্টারনেট নেটওয়ার্ক বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বন্ধ রাখা হয়েছে মোবাইল ব্যাংকিং। একইভাবে শনিবার মধ্যরাত থেকে রবিবার মধ্যরাত পর্যন্ত সব ধরনের যানবাহন চলাচলে বিধি-নিষেধ আরোপ করা হয়েছে। তবে কমিশনের অনুমোদিত পরিচয়পত্রধারীদের গাড়ি চলাচল করতে পারবে। পাশাপাশি হাসপাতাল, ফায়ার সার্ভিসহ জরুরি কাজ নিয়োজিত গাড়ি চলাচলে এ বিধিনিষেধ থাকছে না।

এম কে রায়হান


সর্বশেষ

আরও খবর

বিজয় আমাদেরই হবে: শেখ হাসিনা


‘কোনোভাবেই নির্বাচন থেকে সরে যাব না’

‘কোনোভাবেই নির্বাচন থেকে সরে যাব না’


নির্ভয়ে ভোট কেন্দ্রে যান: সেনাপ্রধান

নির্ভয়ে ভোট কেন্দ্রে যান: সেনাপ্রধান


ভোট কেন্দ্রে মোবাইল বন্ধ রাখতে হবে

ভোট কেন্দ্রে মোবাইল বন্ধ রাখতে হবে


রোববার রাত ১২ টা পর্যন্ত থ্রিজি ও ফোরজি বন্ধের নির্দেশ

রোববার রাত ১২ টা পর্যন্ত থ্রিজি ও ফোরজি বন্ধের নির্দেশ


প্রার্থীর এজেন্টদের পূর্ণ নিরাপত্তা নিশ্চিতের নির্দেশ দিয়েছেন সিইসি

প্রার্থীর এজেন্টদের পূর্ণ নিরাপত্তা নিশ্চিতের নির্দেশ দিয়েছেন সিইসি


দেশজুড়ে কঠোর নিরাপত্তা

দেশজুড়ে কঠোর নিরাপত্তা


৪৮ ঘণ্টা চলবে না হেলিকপ্টার

৪৮ ঘণ্টা চলবে না হেলিকপ্টার


এবারও ঢাকা সিটি কলেজে ভোট দেবেন শেখ হাসিনা

এবারও ঢাকা সিটি কলেজে ভোট দেবেন শেখ হাসিনা


বিকেলে ঐক্যফ্রন্টের সংবাদ সম্মেলন

বিকেলে ঐক্যফ্রন্টের সংবাদ সম্মেলন