Tuesday, August 9th, 2016
‘মানুষ ঘুমালে নিঃশ্বাস জেগে থাকে’
August 9th, 2016 at 8:10 pm
‘মানুষ ঘুমালে নিঃশ্বাস জেগে থাকে’

বিধুনন জাঁ সিপাই:

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে খালিদ হাসান ঋভু নিজেকে পরিচয় করান একজন ‘ফ্রিলাঞ্চ রাইটার’ হিসেবে। আমরা যদি আক্ষরিক বাঙলা করি তার পরিচয়ের তবে দাঁড়ায় ‘মুক্ত লেখক’। ঋভু’র মতে, ‘লেখালিখির বাইরে আপাতত কিছু করি না। আবার লেখালিখি করে অর্থ উপার্জনও করি না। তবুও ফ্রিলাঞ্চ রাইটার এইটা আসলে একেবারেই আমার নিজস্ব চিন্তা থেকে দেয়া। আমি যা লিখছি সেটা গল্প/কবিতা যাই হোক সেখান থেকে আমি কিছু একটা পাচ্ছি (আই ফিল) হয়তো সেটা অর্থ নয়। আবার অর্থের চেয়ে ছোটো কিছুও নয়। এ ব্যাপারটা চিন্তা করেই এমনটা দেয়া’

ঋভু আপাতত কবিতা নিয়েই আছেন। আসছে বইমেলায় তার প্রথম কাব্যগ্রন্থ আমরা উপহার পাবো ‘মুগ্ধতা শেষে চলে যাওয়া সহজ’ শিরোনামে। এই বিশাল চারপাশের জনবহুলতার মধ্যে তার মনে হয় তার ভিতরটা জনহীনতায় ভূগছে। ফের যখন তার কাছে জানতে চাওয়া হয়, ‘জনহীনতা কি অভিশাপ একজন কবির জন্যে?’

‘কবিতার জন্যে আশীর্বাদ হতে পারে। তবে কবিও তো মানুষ তার জন্যে অনেকটা অভিশাপই বটে।’ ঋভু’র এই স্বীকারোক্তি হয়ত এই নগর সভ্যতার আমাদের প্রত্যেকের একান্ত বেদনা। একাকীত্বের নিষ্ঠুর অভিশাপে আমাদের নগর হয়ত দিনে দিনে উজ্জ্বল হচ্ছে ফ্লোরোসেন্ট বাতির সুবাদে কিন্তু আস্তে আস্তে হয়ত নিভে যাচ্ছে মানুষের সাথে মানুষের, কবিতার সাথে অন্তরের উজ্জ্বলতম আলো। কিন্তু আমাদের আশা আমাদের বাঁচিয়ে রাখে আগামী কালকের জন্যে। আমরা তাই এখনো কবিতা লিখি এবং আমরা জানি আমরা আগামীতেও কবিতা লিখব।

খালিদ হাসান ঋভু’র কবিতার দোহাই দিই,

‘…পাতার জখমে জল ঢেলে দিলে

         ভালো চোখ গুলো

         বেহালার ছবি আঁকে

               বলে

     মানুষ ঘুমালে নিঃশ্বাস জেগে থাকে৷’

খোলস

শরীরে সাপের খোলস

        এ কি বদলে যাওয়ার সচল খেলা?

        নাকি মুখরিত শব্দের জলসা ঘর?

যারা উৎসাহ দিয়ে থাকে একটি সফল মৃত্যুর

এবং নিঃসংকোচে ধারণ করে সোনালী মুখোশ

     হয়তো শুধুই চোখের পারিপাট্য

          তবুও কি কম?

মদ্যপকে কোরে তুলেছে উপাসনার ফুল

একজন মানুষকে করেছে তুখোড় মদ্যপ

বেদনার ট্রফি হাতে দাঁড়িয়ে আছে সুবর্ণ সময়

বিজয়ের উল্লাসের নামই বুঝি নীরব আর্তনাদ

অথচ চাইলেই কি গাওয়া যেতো জীবনের গান?

       প্রার্থনারত কিছু আওভান

       নাকি সেটাও খোলস?

গলার অলংকার খুলে বুকে দিবে কৌশলী ছোঁয়া ৷

ভালো চোখ গুলো  

     ভালো চোখ গুলো ভালো কথা বলে

     বলে বাহুতে বাহুতে আলিঙ্গনের কথা

     রুক্ষতার দেশে শুষ্ক কলসে বালির

     নিদ্রা ছুঁয়ে জেগে ওঠে যখন দৈব শিশু

     খুব এপাশ ওপাশ করে সারাটি রাত

           বলে তার কথা

পাতার জখমে জল ঢেলে দিলে

         ভালো চোখ গুলো

         বেহালার ছবি আঁকে

               বলে

     মানুষ ঘুমালে নিঃশ্বাস জেগে থাকে৷

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/বিজেএস/টিএস


সর্বশেষ

আরও খবর

মুক্তিযুদ্ধে যোগদান

মুক্তিযুদ্ধে যোগদান


স্বাধীনতার ঘোষণা ও অস্থায়ী সরকার গঠন

স্বাধীনতার ঘোষণা ও অস্থায়ী সরকার গঠন


শিশু ধর্ষণ নিয়ে লেখা উপন্যাস ‘বিষফোঁড়া’ নিষিদ্ধ!

শিশু ধর্ষণ নিয়ে লেখা উপন্যাস ‘বিষফোঁড়া’ নিষিদ্ধ!


১৯৭১ ভেতরে বাইরে সত্যের সন্ধানে

১৯৭১ ভেতরে বাইরে সত্যের সন্ধানে


সাংবাদিকতা প্রশিক্ষণে এলেন বেলারুশের সাংবাদিকেরা!

সাংবাদিকতা প্রশিক্ষণে এলেন বেলারুশের সাংবাদিকেরা!


লুণ্ঠন ঢাকতে বারো মাসে তেরো পার্বণ

লুণ্ঠন ঢাকতে বারো মাসে তেরো পার্বণ


দ্য লাস্ট খন্দকার

দ্য লাস্ট খন্দকার


১৯৭১ ভেতরে বাইরে সত্যের সন্ধানে

১৯৭১ ভেতরে বাইরে সত্যের সন্ধানে


নিউ নরমাল: শহরজুড়ে শ্রাবণ ধারা

নিউ নরমাল: শহরজুড়ে শ্রাবণ ধারা


তূর্ণা নিশীথা

তূর্ণা নিশীথা