Tuesday, October 11th, 2016
‘মা, ওরা মনে হয় আমাকে মেরে ফেলবে’
October 11th, 2016 at 6:59 pm
‘মা, ওরা মনে হয় আমাকে মেরে ফেলবে’

কুড়িগ্রাম: মৃত্যুর কয়েক ঘণ্টা আগে গৃহবধূ মোর্শেদা (২৪) মোবাইল ফোনে তার মা মল্লিকা বেগমকে করুণ স্বরে বলেছিল, ‘মা, ওরা মনে হয় আমাকে মেরে ফেলবে।’কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার বেলগাছা ইউনিয়নের নাজিরা ফকিরপাড়া এলাকায় সোমবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে।

মোর্শেদার বাবা আব্দুর রহমান নিউজনেক্সটবিডিকে বলেন, ‘আমার বাড়ি রাজারহাট উপজেলার চাকিরপশার ইউনিয়নের হাজিপাড়া গ্রামে। ছোটবেলা থেকে মোর্শেদা এক আর্মি অফিসারের বাসায় কাজের মেয়ে হিসেবে থাকত। সেখানেই বড় হয়। বিবাহ উপযুক্ত হলে আর্মি অফিসার আমাকে জামাই দেখতে বলেন। বিনিময়ে জামাইকে চাকরি দেয়া হবে বলে জানান। এরই পরিপ্রেক্ষিতে সদর উপজেলার বেলগাছা ইউনিয়নের নাজিরা ফকিরপাড়া এলাকার মৃত সাইফুর রহমানের পুত্র মো. সোহেল মিয়ার (৩২) সঙ্গে আমি মোর্শেদার বিয়ে ঠিক করি।’

রহমান আরো বলেন, ‘প্রায় সাত বছর আগে এ বিয়ে হয়। বিয়ের পর জামাই সোহেলকে বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনে (বিএমএ) কুক পদে চাকরির ব্যবস্থা করে দেয়া হয়। কিন্তু বিয়ের এক বছর পরই মোর্শেদার ওপর সোহেলসহ পরিবারের লোকজন নির্যাতন শুরু করে। এ খবর শুনে মেয়েকে আমি নিজ বাড়িতে নিয়ে আসি। এরপর সোহেল নির্যাতন করবে না মর্মে মোর্শেদাকে তার বাড়িতে নিয়ে যায়। কিন্তু এরপরও তারা নির্যাতন করত আমার মেয়ের ওপর।’

তিনি বলেন, ‘সোহেলের বড়ভাই আতা, মা ছকিনা বেগম, বাড়িতে থাকা দুই বড়বোন চায়না ও বিউটি এবং ছোটভাই সাজু মিয়া প্রায় সময়ই মোর্শেদাকে বেদম প্রহার করত। সাত বছরের সংসার জীবনের প্রায় পাঁচ বছর আমার বাড়িতে অবস্থান করে মোর্শেদা। দাম্পত্য জীবনে মোর্শেদার তিন বছরের একটি সন্তান রয়েছে। এরই মধ্যে আর্মি অফিসারের সহায়তায় সোহেল ছোটভাই সাজুকেও একই পোস্টে চাকরি জুটিয়ে দেয়। সর্বশেষ মোর্শেদা বেশকিছু দিন আগে সোহেলের বাসায় যায়। সে সময় সোহেল বাড়িতে ছিল।’

মোর্শেদার বাবা আরো বলেন, ‘চাকরি সুবাদে সাজু বাইরে থাকলেও ছুটিতে এসে প্রায় দশ দিন আগে মোর্শেদাকে জানে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে সে কর্মস্থলে ফিরে যায়। এদিকে সোহেলের অবর্তমানে মোর্শেদা বাড়িতে থাকার সময়ে শনিবার আতার নেতৃত্বে দুই বোন ও মা মিলে মোর্শেদাকে বেদম প্রহার করে। এরপর চট্টগ্রাম বিএমএ একাডেমিতে নিয়ে যায়। সেখানে কর্মরত সোহেল মোর্শেদাকে অনুরোধ করে আবারও বাড়িতে পাঠায়।’

তিনি বলেন, ‘সোমবার দুপুরের আগে মোর্শেদা বাড়িতে পৌঁছালে আবারো তার ওপর নির্যাতন করা হয়। বিকেল ৩টার দিকে মোর্শেদার মা মল্লিকা বেগম মোবাইলে কল দিলে মোর্শেদা করুণ আর্তনাদে বলে, ‘মা, ওরা মনে হয় আমাকে মেরে ফেলবে।’সন্ধ্যার দিকে সোহেল ফোনে আমাকে জানায়, সদর হাসপাতালে মোর্শেদা মারা গেছে। রাত ৮টার দিকে হাসপাতালে গিয়ে আমরা লাশ শনাক্ত করি।’

সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক (ভারপ্রাপ্ত) ডা. শাহিনুর রহমান শিপন নিউজনেক্সটবিডিকে বলেন, ‘সোমবার সন্ধ্যা ৬টা ১০ মিনিটে মোর্শেদাকে ইমারজেন্সিতে নিয়ে আসা হয়। এসময় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত হিসেবেই পান।’

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা (ওসি) আব্দুস সোবহান বলেন, ‘থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

গ্রন্থনা ও সম্পাদনা: আবু তাহের, জাহিদুল ইসলাম


সর্বশেষ

আরও খবর

করোনায় মৃত্যু ও শনাক্তের সংখ্যা বেড়েছে

করোনায় মৃত্যু ও শনাক্তের সংখ্যা বেড়েছে


গণপরিবহন আরও কিছু দিন বন্ধ রাখার পক্ষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী

গণপরিবহন আরও কিছু দিন বন্ধ রাখার পক্ষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী


২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত ৩৬৩, মৃত্যু ২৫

২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত ৩৬৩, মৃত্যু ২৫


২৩ মে পর্যন্ত লকডাউন বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি

২৩ মে পর্যন্ত লকডাউন বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি


গাজায় হামাস প্রধানের বাড়িতে ইসরায়েলের বোমা হামলা

গাজায় হামাস প্রধানের বাড়িতে ইসরায়েলের বোমা হামলা


ঈদের ছুটি শেষে করোনা ঝুঁকি নিয়ে ঢাকায় ফিরছে মানুষ

ঈদের ছুটি শেষে করোনা ঝুঁকি নিয়ে ঢাকায় ফিরছে মানুষ


সারাদেশে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপন, করোনামুক্তিতে বিশেষ দোয়া

সারাদেশে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপন, করোনামুক্তিতে বিশেষ দোয়া


আতঙ্কিত না হয়ে স্বাস্থ্যবিধি মানার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

আতঙ্কিত না হয়ে স্বাস্থ্যবিধি মানার আহ্বান রাষ্ট্রপতির


স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ উদযাপনের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ উদযাপনের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর


বঙ্গবন্ধু সেতু দিয়ে একদিনে সর্বোচ্চ টোল আদায়ের রেকর্ড

বঙ্গবন্ধু সেতু দিয়ে একদিনে সর্বোচ্চ টোল আদায়ের রেকর্ড