Monday, July 4th, 2022
মৃত স্ত্রী কাঁধে ১২ কিলোমিটার পথ পাড়ি  
August 25th, 2016 at 7:53 pm
মৃত স্ত্রী কাঁধে ১২ কিলোমিটার পথ পাড়ি  

নয়াদিল্লি:  ভারতের ওড়িশা রাজ্যের দানা মাঝি নামের এক ব্যক্তি স্ত্রীর মৃতদেহ নিয়ে ১২ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে ব্যাপক আলোড়ন ফেলে দিয়েছেন। অনেকে হয়তো বিষয়টিকে সত্যিকারের ভালোবাসার কোনো গল্প মনে করে থাকবেন। কিন্তু প্রকৃত ঘটনা হচ্ছে, অর্থের অভাবে অ্যাম্বুলেন্স কিংবা কোনো গাড়ি জোগাড় করতে না পেরে স্ত্রীর মরদেহ নিয়ে এতোটা পথ পাড়ি দিতে বাধ্য হয়েছেন তিনি। খবরটি গণমাধ্যমে প্রকাশিত হওয়ার পরে ব্যাপক তোলপাড় ফেলে দেয়।

দানা মাঝির স্ত্রী ৪২ বছরের আমাং। ওড়িশা রাজ্যের ভবানীপাটনা শহরের জেলা হাসপাতালে যক্ষ্মা রোগে মারা যান তিনি। কিন্তু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দরিদ্র এই ব্যক্তিকে কোনো অ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করে না দেয়ায় তিনি মৃত স্ত্রীর লাশ নিজের কাঁধে ফেলেই গ্রামের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন।

india  2

দানা মাঝি জানান, হাসপাতাল থেকে তার গ্রামের দূরত্ব ৬০ কিলোমিটার। স্ত্রীর লাশ নিয়ে যাওয়ার জন্য যেকোনো ধরনের গাড়ির ব্যবস্থা করার সামর্থ তার ছিল না।

অবশ্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তার অভিযোগ অস্বীকার করেন। হাসপাতালের জ্যেষ্ঠ চিকিৎসা কর্মকর্তা বি ব্রক্ষ্মা জানান, গত মঙ্গলবার আমাং হাসপাতালে ভর্তি হন এবং সেই রাতেই তিনি মারা যান। কিন্তু তার স্বামী কাউকে না বলেই স্ত্রীর লাশ নিয়ে চলে যান।

এদিকে মাঝির বক্তব্য অনুযায়ী, মঙ্গলবার রাতে তার স্ত্রী মারা গেলে হাসপাতালের কর্মীরা বুধবার সকালে মরদেহ সরিয়ে নেয়ার জন্য তাগাদা দিতে শুরু করে। এরপর তিনি স্ত্রীর লাশ কাঁধে নিয়েই গ্রামে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

তিনি বলেন, ‘লাশ নিয়ে যাওয়ার জন্য একটি গাড়ির যোগাড় করে দিতে হাসপাতালের কর্মচারীদের অনেক কাকুতি মিনতি করেছি। কিন্তু তারা আমার কথা শুনেনি। আমি গরীব মানুষ, গাড়ি ভাড়া করার কোনো অর্থ নাই। ফলে লাশ নিয়ে হেঁটে যাওয়া ছাড়া কোনো গতি ছিল না।’

বুধবার সকালে তিনি কাপড়ে মুড়িয়ে স্ত্রীর লাশ নিয়ে ১২ কিলোমিটার পথ পাড়ি দেন। সঙ্গে ছিল তার ১২ বছর বয়সি কন্যা চাওলা।

পথে যাওয়ার সময় বিষয়টি অনেকেরই দৃষ্টি আকর্ষণ করে। তারা দানা মাঝিকে একটি অ্যাম্বুলেন্স ভাড়া করে দেন। অবশিষ্ট পথটুকু তিনি গাড়িতে করেই যেতে পারেন।

কালাহান্ডির জেলা কালেক্টর জানান, মৃতদেহ সৎকারের জন্য পরিবারটিকে ২ হাজার টাকা দেয়া হয়েছে। এছাড়া রেডক্রস থেকে ১০ হাজার টাকাও দেয়া হবে।

গত ফেব্রুয়ারি মাসে হাসপাতাল থেকে দরিদ্র মানুষের মরদেহ তাদের বাড়ি পর্যন্ত বহন করে নেয়ার জন্য গাড়ির ব্যবস্থা সুনিশ্চিত করার ঘোষণা দিয়েছিল রাজ্য সরকার। কিন্তু এতোদিন পর্যন্ত প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করা হয়নি। ফলে লাশ বহন করা নিয়ে দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে ব্যাপক কষ্ট করতে হতো। দানা মাঝির খবরটি গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী নবীন পাটনায়েক অবশেষে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকল্পটি চালু করেন। সূত্র: বিবিসি

গ্রন্থনা: ফারহানা করিম, সম্পাদনা- জাহিদুল ইসলাম

 


সর্বশেষ

আরও খবর

সংসদে ৬,৭৮,০৬৪ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব

সংসদে ৬,৭৮,০৬৪ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব


আ’লীগ নেতা বিএম ডিপোর একক মালিক নন

আ’লীগ নেতা বিএম ডিপোর একক মালিক নন


চীনের সাথে বাণিজ্য ঘাটতি কমাতে চায় বাংলাদেশ

চীনের সাথে বাণিজ্য ঘাটতি কমাতে চায় বাংলাদেশ


ভোজ্যতেল ও খাদ্য নিয়ে যা ভাবছে সরকার

ভোজ্যতেল ও খাদ্য নিয়ে যা ভাবছে সরকার


তৎপর মন্ত্রীগণ, সীতাকুণ্ডে থামেনি দহন

তৎপর মন্ত্রীগণ, সীতাকুণ্ডে থামেনি দহন


অত আগুন, এত মৃত্যু, দায় কার?

অত আগুন, এত মৃত্যু, দায় কার?


যে গল্প এক অদম্য যোদ্ধার

যে গল্প এক অদম্য যোদ্ধার


আফগান ও ভারতীয় অনুপ্রবেশ: মে মাসে আটক ১০

আফগান ও ভারতীয় অনুপ্রবেশ: মে মাসে আটক ১০


সীমান্ত কাঁটাতারে বিদ্যুৎ: আলোচনায় বিজিবি-বিজিপি

সীমান্ত কাঁটাতারে বিদ্যুৎ: আলোচনায় বিজিবি-বিজিপি


চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে কঠোর সরকার

চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে কঠোর সরকার