Wednesday, November 2nd, 2016
‘মৎস্যমন্ত্রীও আগাছা কিনা ভেবে দেখা দরকার’
November 2nd, 2016 at 3:39 pm
মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী অ্যাড. মো. ছায়েদুল হক আওয়ামী লীগের আগাছার মধ্যে পড়েন কিনা, তা ভেবে দেখা দরকার বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্যপরিষদ নেতা অ্যাড. রানা দাশগুপ্ত।
‘মৎস্যমন্ত্রীও আগাছা কিনা ভেবে দেখা দরকার’

ব্রাহ্মণবাড়িয়া:  মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী অ্যাড. মো. ছায়েদুল হক আওয়ামী লীগের আগাছার মধ্যে পড়েন কিনা, তা ভেবে দেখা দরকার বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্যপরিষদ নেতা অ্যাড. রানা দাশগুপ্ত।

নাসিরনগর উপজেলা সদরে ক্ষতিগ্রস্ত হিন্দু সম্প্রদায়ের মন্দির ও ঘর-বাড়ি পরিদর্শনে এসে বুধবার দুপুরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা জানান। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্যপরিষদের প্রতিনিধি দলের সদস্যরা।

অ্যাড. রানা দাশগুপ্ত বলেন, “প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংসদ ও সংসদের বাইরে বারবার বলেছেন তার দল আগাছায় ভরে গেছে। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রীও সেই আগাছার মধ্যে পড়েন কিনা, এটি ভেবে দেখা দরকার। আমরা জানতে পেরেছি, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী অ্যাড. মো. ছায়েদুল হক ঘটনার ৭২ ঘণ্টা পর এলাকায় এসেছেন কিন্তু এখনো ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের পাশে দাঁড়াননি। তিনি এলাকার সাংবাদিকদেরও গালিগালাজ করেছেন।”

তিনি আরো বলেন, “২০১২ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত দেশে যেসব ঘটনা ঘটে, নাসিরনগরের ঘটনাটি তারই ধারাবাহিকতা বলে আমাদের কাছে দৃশ্যমান। গুলশানের হলি আর্টিসানের ঘটনার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেন। নাসিরনগরের হামলার ঘটনাকে হালকা অথবা লঘুভাবে বিবেচনা করা কোনোভাবেই ঠিক হবে না। যদি লঘুভাবে বিবেচনা করা হয়, তাহলে ভবিষ্যতে বাংলাদেশ আরো বড় হামলার মুখোমুখি হবে। রাজনৈতিক দল ও প্রশাসন একইসঙ্গে তাদের দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়েছে। চক্রান্তকারীরা এর মধ্যেই অবস্থান করছে কিনা, এটি খতিয়ে দেখা দরকার।”

এর আগে বুধবার দুপুরে নাসিরনগর উপজেলা ডাকবাংলোয় মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী অ্যাড. মো. ছায়েদুল হক সাংবাদিকদের বলেন, “নাসিরনগরের পরিবেশ শান্ত, সাংবাদিকরা পরিবেশ অস্বাভাবিক করে তুলছে। ক্ষতিগ্রস্তরা কেউ অনাহারে নেই। আমি সার্বক্ষণিক খোঁজ-খবর রেখেছি।”

গ্রন্থনা ও সম্পাদনা: আবু তাহের


সর্বশেষ

আরও খবর

আসামে বন্দী রোহিঙ্গা কিশোরীকে কক্সবাজারে চায় পরিবার

আসামে বন্দী রোহিঙ্গা কিশোরীকে কক্সবাজারে চায় পরিবার


ছয় দিনে নির্যাতিত অর্ধশত সাংবাদিক: মামলা নেই, কাটেনি আতঙ্ক

ছয় দিনে নির্যাতিত অর্ধশত সাংবাদিক: মামলা নেই, কাটেনি আতঙ্ক


ঢাকা-দিল্লি ৫ সমঝোতা স্মারক সই

ঢাকা-দিল্লি ৫ সমঝোতা স্মারক সই


করোনায় আরও ৩৯ মৃত্যু

করোনায় আরও ৩৯ মৃত্যু


করোনায় আক্রান্ত শচীন

করোনায় আক্রান্ত শচীন


নাশকতা ঠেকাতে র‍্যাব-পুলিশের কঠোর অবস্থান

নাশকতা ঠেকাতে র‍্যাব-পুলিশের কঠোর অবস্থান


শুক্র ও শনিবার যান চলাচল নিয়ন্ত্রিত থাকবে

শুক্র ও শনিবার যান চলাচল নিয়ন্ত্রিত থাকবে


মতিঝিলে মোদিবিরোধী বিক্ষোভ, শিশুবক্তা রফিকুলসহ অন্তত ১০ জন আটক

মতিঝিলে মোদিবিরোধী বিক্ষোভ, শিশুবক্তা রফিকুলসহ অন্তত ১০ জন আটক


ঈদের পর স্কুল-কলেজ খোলার ইঙ্গিত শিক্ষামন্ত্রীর

ঈদের পর স্কুল-কলেজ খোলার ইঙ্গিত শিক্ষামন্ত্রীর


৮ মাস পর দেশে করোনায় এক দিনে সর্বোচ্চ ৩৫৫৪ শনাক্ত

৮ মাস পর দেশে করোনায় এক দিনে সর্বোচ্চ ৩৫৫৪ শনাক্ত