Tuesday, March 27th, 2018
যারা স্বাধীনতাকে ব্যর্থ করতে চায় তারা যেন আর ক্ষমতায় না আসে: প্রধানমন্ত্রী
March 27th, 2018 at 10:01 pm
যারা স্বাধীনতাকে ব্যর্থ করতে চায় তারা যেন আর ক্ষমতায় না আসে: প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যারা স্বাধীনতাকে ব্যর্থ করতে চায় তারা যেন আর ক্ষমতায় না আসে। আগামীতে এ দেশ হবে শুধু মুক্তিযোদ্ধাদের। রাজাকার, আল বদর, আল শামস, খুনিরা আর কোনোদিন যেন ক্ষমতায় আসতে না পারে সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।

তিনি আরও বলেন, এই স্বাধীনতা লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে। এই স্বাধীনতা কোনো দিন যেন ব্যর্থ হতে না পারে। আর যারা এই স্বাধীনতাকে ব্যর্থ করতে চায়, তারা যেন কোনো দিন এদেশের ক্ষমতায় আসতে না পারে। এই দেশ জঙ্গিদের হবে না, এই দেশ স্বাধীনতাবিরোধীদের হবে না, এ দেশ যুদ্ধাপরাধীদের হবে না, এ দেশ হবে মুক্তিযোদ্ধাদের আদর্শের দেশ।

মঙ্গলবার ফার্মগেটে খামারবাড়ি কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, ২০২১ সালে আমরা যখন স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী পালন করবে, তখন বাংলাদেশ হবে ক্ষুধা ও দারিদ্র্য মুক্ত একটি দেশ। ২০২০ সালে আমরা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী পালন করব আর ২০৪১ সালে বাংলাদেশ হবে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ দেশ। এ লক্ষে কাজ করে যাচ্ছি। দেশটি গড়ার জন্য তিনি সবাইকে এগিয়ে অাসার অাহ্বান জানান।

নিজেদের নয়, জনগণকে সম্পদশালী’ করাই তার সরকারের লক্ষ্য মন্তব্য করে শেখ হাসিনা বলেন, “জনগণ সম্পদশালী হোক, জনগণের জীবন উন্নত হোক, জনগণ সুন্দর জীবন পাক, বাংলাদেশের একটা মানুষও গৃহহারা থাকবে না, একটা মানুষও না খেয়ে কষ্ট পাবে না, একটা মানুষও বিনা চিকিৎসায় মারা যাবে না-আমরা সেটাই করতে চাই।

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের পর আরও স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের পরিকল্পনা নিয়ে তিনি বলেন, আমরা এখন স্যাটেলাইটও উৎক্ষেপণ করতে যাচ্ছি। বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের পর এর ১৫ বছর মেয়াদ থাকে। কাজেই পাঁচ বছরের মধ্যে আবার নতুন করে শুরু করতে হয়, এজন্য আমরা বঙ্গবন্ধু-২ করব, তারপর ৩ করব; এভাবে পরিকল্পনা আমাদের ভবিষ্যতের জন্য নেওয়া আছে।

শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে এই আলোচনা সভায় আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু ও বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম, গণপূর্ত মন্ত্রী মোশাররফ হোসেন ও জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হারুন-অর-রশীদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন সাদেকা হালিম, আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মৃনাল কান্তি দাস প্রমুখ বক্তব্য দেন।

গ্রন্থনা ও সম্পাদনা: এম কে রায়হান


সর্বশেষ

আরও খবর

পেঁয়াজের আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার করলো জাতীয় রাজস্ব বোর্ড

পেঁয়াজের আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার করলো জাতীয় রাজস্ব বোর্ড


মিরপুরে খালে পড়ে নিখোঁজ ব্যক্তিকে ৬ ঘণ্টা পর জীবিত উদ্ধার

মিরপুরে খালে পড়ে নিখোঁজ ব্যক্তিকে ৬ ঘণ্টা পর জীবিত উদ্ধার


কুমিল্লার ঘটনায় কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না: প্রধানমন্ত্রী

কুমিল্লার ঘটনায় কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না: প্রধানমন্ত্রী


ফেসবুকে কিডনি বেচাকেনা, চক্রের ৫ সদস্য গ্রেপ্তার

ফেসবুকে কিডনি বেচাকেনা, চক্রের ৫ সদস্য গ্রেপ্তার


সেই ভুয়া অতিরিক্ত সচিবের বিরুদ্ধে মামলা করবেন মুসা বিন শমসের

সেই ভুয়া অতিরিক্ত সচিবের বিরুদ্ধে মামলা করবেন মুসা বিন শমসের


হাসপাতালে ভর্তি হলেন খালেদা জিয়া

হাসপাতালে ভর্তি হলেন খালেদা জিয়া


শান্তিতে নোবেল পেলেন দুই সাংবাদিক

শান্তিতে নোবেল পেলেন দুই সাংবাদিক


কিউকমের প্রতারণায় গ্রেপ্তার আরজে নীরব ১ দিনের রিমান্ডে

কিউকমের প্রতারণায় গ্রেপ্তার আরজে নীরব ১ দিনের রিমান্ডে


আফগানিস্তানে মসজিদে বোমা বিস্ফোরণে আহত শতাধিক

আফগানিস্তানে মসজিদে বোমা বিস্ফোরণে আহত শতাধিক


পাকিস্তানে ভূমিকম্পে কমপক্ষে ২০ জন নিহত

পাকিস্তানে ভূমিকম্পে কমপক্ষে ২০ জন নিহত