Monday, August 15th, 2016
যুক্তরাষ্ট্র-কানাডায় ২ খুনি, লাপাত্তা ৪
August 15th, 2016 at 1:31 am
যুক্তরাষ্ট্র-কানাডায় ২ খুনি, লাপাত্তা ৪

প্রীতম সাহা সুদীপ, ঢাকা: পনের আগস্ট জাতীয় শোক দিবস। ১৯৭৫ সালের শোকাবহ এই কালোদিবসে সূর্য ওঠার আগেই সেনাবাহিনীর কিছুসংখ্যক বিপথগামী সদস্য ধানমন্ডির বাসভবনে বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যা করে। বাঙালির ইতিহাসে কালিমাযুক্ত ওই দিনের দীর্ঘ ৪০টি বছর পেরিয়ে গেলেও মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ছয় আসামির রায় কার্যকর করা সম্ভব হয়নি। তাদের মধ্যে চারজনের অবস্থান সম্পর্কেই এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ১২ আসামির মধ্যে ২০১০ সালের ২৭ জানুয়ারি ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঁচজনের দণ্ড কার্যকর করা হয়। তারা হলেন- ফারুক রহমান, সুলতান শাহরিয়ার রশিদ খান, বজলুল হুদা, মহিউদ্দিন আহমেদ ও একেএম মহিউদ্দিন। অপর সাতজনের মধ্যে দণ্ডিত আবদুল আজিজ পাশা পলাতক অবস্থায় জিম্বাবুয়েতে মারা যান। বাকি ছয়জন এখনো বিদেশে পলাতক রয়েছেন। এরা হলেন, খন্দকার আবদুর রশিদ, শরিফুল হক ডালিম, এসএইচএমবি নূর চৌধুরী, মোসলেম উদ্দিন, রাশেদ চৌধুরী ও আবদুল মাজেদ।

সরকারের তথ্য মতে, রাশেদ চৌধুরী বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে এবং নূর চৌধুরী কানাডায় রয়েছেন। খন্দকার আবদুর রশিদ, শরিফুল হক ডালিম, আব্দুল মাজেদ ও মোসলেম উদ্দিন খান সম্পর্কে সরকারের কাছে আনুষ্ঠানিক কোনো তথ্য নেই। তবে খন্দকার আবদুর রশিদ কোনো সময় পাকিস্তানে, কোনো সময় লিবিয়ায়, শরিফুল হক ডালিম পাকিস্তানে, আবদুল মাজেদ সেনেগালে রয়েছেন বলে খবর প্রকাশ পায়। তাদের গ্রেফতারে ইন্টারপোলের পরোয়ানা জারি অব্যাহত রয়েছে।

Bangabandhu (14)বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে আনা প্রসঙ্গে আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক বলেন, ‘জাতির জনকের খুনিদের ফিরিয়ে এনে আদালতের রায় কার্যকরের আইনি প্রক্রিয়া চলছে। রায় কার্যকর না করা পর্যন্ত এ চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।’

কানাডায় ও যুক্তরাষ্ট্রে পলাতক খুনিদের ফিরিয়ে আনার অগ্রগতি প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘কানাডার আইন অনুসারে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের ফিরিয়ে দেওয়ার বিষয়ে জটিলতা বেশি। তারা আমাদের সাজা কমানোর বিষয়ে বলেছিল। কিন্তু সর্বোচ্চ আদালতের রায় কমানো যায় না বলে আমরা কানাডাকে জানিয়েছি। এখন তাদের সঙ্গে আলোচনা চলছে।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, ‘জামার্নিতে বসবাসকারী বাংলাদেশিরা বঙ্গবন্ধুর খুনি মোসলেম উদ্দিনকে সে দেশে দেখেছেন বলে শোনা গেছে। আমরা খোঁজ নিচ্ছি। এছাড়া পলাতক ছয়জনকে দেশে আনতে কূটনৈতিক ও আইনি প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে।’

পুলিশের মহাপরিদর্শক এ কে এম শহিদুল হক জানান, ‘ইন্টারপোলের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনিদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। ইন্টারপোল খুনিদের অবস্থান জানতে আরো তথ্য চেয়েছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘মোসলেম উদ্দিনকে শনাক্ত করতে এবং দেশে ফিরিয়ে আনতে ইতিমধ্যেই ইন্টারপোলকে তার ছবি পাঠানো হয়েছে। তাকে দ্রুত দেশে ফিরিয়ে আনতে ইন্টারপোলের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে পুলিশকে নিদের্শ দেয়া হয়েছে।’

১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় এসে স্বপরিবারে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারের উদ্যোগ নেয়। দীর্ঘ পথ পরিক্রমা শেষে ২০১০ সালে বিচার প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়। ওই বছরের ২৭ জানুয়ারি খুনি সৈয়দ ফারুক রহমান, বজলুল হুদা, একেএম মহিউদ্দিন আহমেদ, সুলতান শাহরিয়ার রশীদ খান ও মহিউদ্দিন আহমেদের দণ্ড কার্যকর হয়। এ রায় কার্যকরের আগে ২০০১ সালে মামলার আসামি আজিজ পাশা জিম্বাবুয়েতে মারা যায়। বাকি ছয়জন এখনো পলাতক।

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/পিএসএস


সর্বশেষ

আরও খবর

সিনোফার্মের ৩০ লাখ টিকা ঢাকায় এলো

সিনোফার্মের ৩০ লাখ টিকা ঢাকায় এলো


একদিনে রেকর্ড ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ১৯৪ জন হাসপাতালে ভর্তি

একদিনে রেকর্ড ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ১৯৪ জন হাসপাতালে ভর্তি


টিকা নেয়ার বয়সসীমা ২৫ বছর নির্ধারণ করেছে সরকার

টিকা নেয়ার বয়সসীমা ২৫ বছর নির্ধারণ করেছে সরকার


ভারত থেকে এলো আরও ২০০ টন অক্সিজেন

ভারত থেকে এলো আরও ২০০ টন অক্সিজেন


এবার এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা হবে ৩ বিষয়ে

এবার এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা হবে ৩ বিষয়ে


‘বিধিনিষেধে শিল্পকারখানাসহ কোনো প্রতিষ্ঠান খুললেই ব্যবস্থা’

‘বিধিনিষেধে শিল্পকারখানাসহ কোনো প্রতিষ্ঠান খুললেই ব্যবস্থা’


দেশে করোনায় মৃত্যু ও শনাক্তের রেকর্ড

দেশে করোনায় মৃত্যু ও শনাক্তের রেকর্ড


দেশে করোনায় আরও ২২৮ জনের মৃত্যু

দেশে করোনায় আরও ২২৮ জনের মৃত্যু


কঠোর লকডাউনের তৃতীয় দিনে রাজধানীতে গ্রেপ্তার ৫৮৭ জন

কঠোর লকডাউনের তৃতীয় দিনে রাজধানীতে গ্রেপ্তার ৫৮৭ জন


জাপান থেকে অ্যাস্ট্রাজেনেকার ২ লাখ ৪৫ হাজার টিকা আসলো দেশে

জাপান থেকে অ্যাস্ট্রাজেনেকার ২ লাখ ৪৫ হাজার টিকা আসলো দেশে