Friday, August 19th, 2022
রমজানে মৌচাক বন্ধে ‘না’
June 7th, 2016 at 4:58 pm
রমজানে মৌচাক বন্ধে ‘না’

ঢাকা: রমজান মাসে বন্ধ হচ্ছে না মৌচাক মার্কেট। মার্কেট বন্ধে সোমবার হাইকোর্টের দেয়া আদেশ মঙ্গলবার দুপুরে ছয় সপ্তাহের জন্য স্থগিত করেন আপিল বিভাগ। তাই আপাতত এই মার্কেটের দোকান মালিকদের ব্যবসা পরিচালনায় কোনো বাধা রইলো না বলে জানান আইনজীবীরা।

তবে আদালত বলেছেন, মার্কেটের বিল্ডিং ভেঙ্গে জনমানুষের ক্ষয়ক্ষতি হলে এর দায় ও ঝুঁকি দোকান মালিকদের বহন করতে হবে।

হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত চেয়ে মৌচাক মার্কেট বনিক সমিতির পক্ষে করা এক আবেদনের প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার এই আদেশ দেন। আদালতে বণিক সমিতির পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার এএম আমিন উদ্দিন ও শেখ ফজলে নুর তাপস। অপর দিকে রিটকারীদের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার মোতাহার হোসেন।

এর আগে সোমবার দুপুরে বুয়েটের প্রতিবেদনের আলোকে সংস্কার করা বা বিল্ডিং কোড অনুসারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে সক্ষমতা সনদ না পাওয়া পর্যন্ত মার্কেট বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। গৃহায়ন ও গণপূর্ত সচিব এবং রাজউক কর্তৃপক্ষকে এই নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে বলেন আদালত।

একইসঙ্গে দোকান খালি করতে কেন কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেওয়া হবে না-তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন বিচারপতি কামরুল ইসলাম সিদ্দিকী ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের হাইকোর্ট বেঞ্চ। গৃহায়ণ ও গণপূর্ত সচিব, রাজউক চেয়ারম্যান, রাজউকের অথরাইজড কর্মকর্তাসহ সাত বিবাদীকে চার সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়।

মৌচাক মার্কেট বণিক সমিতির সাধারন সম্পাদক শাহ ই আজম মঙ্গলবার বিকেলে নিউজনেক্সটবিডি ডটকমকে বলেন, ‘আমরা আইনি প্রক্রিয়ায় বিষয়টি মোকাবেলা করছি। ইতিমধ্যে মার্কেট বন্ধের আদেশ ছয় সপ্তাহের জন্য স্থগিত করেছেন আদালত। আমরা আইনি লড়াই চালিয়ে যাবো।’

তিনি বলেন, ‘বুয়েটের বিশেষজ্ঞরা পরীক্ষা নিরীক্ষা করে মৌচাক মার্কেট সংস্কারের কথা বলেছিলেন। আমরা মার্কেট মালিক আশরাফ কামাল পাশাকে চারবার চিঠি দিয়েছিলাম মার্কেট সংস্কারের জন্য। তিনি বারবারই আমাদের বলেছেন কাজটি করাতে। প্রশ্ন হলো আমরা দোকান মালিক সমিতির লোক, আমরা কেন মার্কেট সংস্কারের দায়িত্ব নেব?’

আজম আরো বলেন, ‘আমরা যাবতীয় কাগজপত্র সংগ্রহ করে নিয়মতান্ত্রিক পদ্ধতিতেই এগোচ্ছিলাম। কিন্তু মার্কেট মালিক কোন কিছু না জানিয়ে হঠাৎ হাইকোর্টে রিট করে বসেন।

জানা যায়, ২০১৪ সালের ৭ মে রাজধানী উন্নয়ন কতৃপক্ষ (রাজউক) মৌচাক মার্কেটের ভবন মালিককে চিঠি দেয়। এতে বলা হয়, ‘প্রাচীণ এই ভবনটি বহুল ব্যবহৃত এবং প্রতিনিয়ত হাজার হাজার মানুষের সমাগম ঘটে। বর্তমানে ইমারতটি জীর্ণ ও দৃশ্যত ঝুকিপূর্ন প্রতীয়মান হয়েছে। তাই বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরকৌশল বিভাগ কর্তৃক পরীক্ষা-নীরিক্ষা পূর্বক কাঠামোগত উপযুক্ততার সনদ গ্রহণ করে চাওয়া তথ্যদি এই দপ্তরে (রাজউক) দাখিল করার জন্য অনুরোধ করা হল। সেইসঙ্গে ভবনটির কাঠামোগত উপযুক্ততা নিশ্চিত হয়ে ব্যবহারের পরামর্শ দেওয়া হল।’

বুয়েটের দেয়া সুপারিশ পাওয়ার পর গত ২ মে রাজউক ভবন মালিককে আরেকটি চিঠি দেয়। চিঠিতে বলা হয়, ‘বুয়েট প্রনীত কাঠামোগত মূল্যায়ন প্রতিবেদনের পরামর্শ ও কর্তৃপক্ষের ওই নির্দেশনা স্বত্ত্বেও কাঠামোগত ঝূঁকি হ্রাসে ব্যবস্থা গ্রহণ না করে দায়িত্বহীনভাবে মার্কেট ব্যবহার অব্যাহত রেখেছেন। যা জীবন ও সম্পদের জন্য ঝূঁকিপূর্ণ এবং ইমারত নির্মাণ আইন-১৯৫২ এর সুষ্পষ্ট লঙ্ঘন। বিশেষ করে ভীতসহ কলামের ভার বহন ক্ষমতা তাৎপর্যপূর্ণভাবে অপ্রতুল ও ভুমিকম্প সহনশীল নয়।’

এতে আরও বলা হয়, ‘ভবনটি অবকাঠামোগত ও পরিবেশগতভাবে ঝূঁকিপূর্ণ ও অস্বাস্থ্যকর হওয়ায় বর্ণিত সংস্কার না হলে যেকোন সময় দুর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েছে। এ অবস্থায় মার্কেটটির ব্যবহার বন্ধ করে বুয়েট প্রনীত নকশা মোতাবেক বিশেষজ্ঞ প্রকৌশলীর প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে অবিলম্বে কাজ শুরু করার জন্য পুনরায় নির্দেশ দেওয়া হল। কাঠামোগত ঝুকিপূর্ন ভবনটি ব্যবহারের দরুন যেকোন ধরণের দূর্ঘটনা ঘটলে একমাত্র আপনিই (মালিক) এবং আপনার ব্যবস্থাপনা দায়ী থাকবে। সে কারণে ইমারত নির্মাণ আইন ১৯৫২ অনুযায়ী যথাযথ আইননানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এটি চূড়ান্ত নোটিশ বলে গণ্য হবে।’

এই নোটিশের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে জেড কে লি. এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও ভবন মালিক আশরাফ কামাল পাশা গত বৃহস্পতিবার হাই কোর্টে রিট আবেদনটি করেন। যার ওপর রোববার ও সোমবার শুনানি নিয়ে আদালত রুলসহ ওই আদেশ দেয়।

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/এ্ফএইচ/পিএসএস


সর্বশেষ

আরও খবর

জেসিআই ঢাকা ওয়েস্টের তৃতীয় জিএমএম অনুষ্ঠিত

জেসিআই ঢাকা ওয়েস্টের তৃতীয় জিএমএম অনুষ্ঠিত


সংসদে ৬,৭৮,০৬৪ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব

সংসদে ৬,৭৮,০৬৪ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব


আ’লীগ নেতা বিএম ডিপোর একক মালিক নন

আ’লীগ নেতা বিএম ডিপোর একক মালিক নন


চীনের সাথে বাণিজ্য ঘাটতি কমাতে চায় বাংলাদেশ

চীনের সাথে বাণিজ্য ঘাটতি কমাতে চায় বাংলাদেশ


ভোজ্যতেল ও খাদ্য নিয়ে যা ভাবছে সরকার

ভোজ্যতেল ও খাদ্য নিয়ে যা ভাবছে সরকার


তৎপর মন্ত্রীগণ, সীতাকুণ্ডে থামেনি দহন

তৎপর মন্ত্রীগণ, সীতাকুণ্ডে থামেনি দহন


অত আগুন, এত মৃত্যু, দায় কার?

অত আগুন, এত মৃত্যু, দায় কার?


যে গল্প এক অদম্য যোদ্ধার

যে গল্প এক অদম্য যোদ্ধার


আফগান ও ভারতীয় অনুপ্রবেশ: মে মাসে আটক ১০

আফগান ও ভারতীয় অনুপ্রবেশ: মে মাসে আটক ১০


সীমান্ত কাঁটাতারে বিদ্যুৎ: আলোচনায় বিজিবি-বিজিপি

সীমান্ত কাঁটাতারে বিদ্যুৎ: আলোচনায় বিজিবি-বিজিপি