Wednesday, July 6th, 2022
রিজার্ভ চুরির প্রতিবেদন নিয়ে প্রশ্ন
August 11th, 2016 at 9:46 pm
রিজার্ভ চুরির প্রতিবেদন নিয়ে প্রশ্ন

ঢাকা: বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনায় সরকারের গঠন করা তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন প্রকাশিত না হওয়ায় প্রশ্ন তুলেছে অর্থ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। কমিটির বৃহস্পতিবারের বৈঠকে এ বিষয়ে আলোচনা হয়।

এ তথ্য নিশ্চিত করে কমিটির সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক সাংবাদিকদের জানান, প্রতিবেদনটি সংসদীয় কমিটির কাছে দিতে বলা হয়েছে।

সাবেক এই খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ‘কমিটির সদস্যরা মনে করেন, ৮০ মিলিয়ন ডলার যেটা গেছে সেটাতো গেছে। কিন্তু দেশের ভাবমূর্তি একটি বড় বিষয়। এই ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করাটা জরুরি। কারা দায়ী সেটা বের করতে পারলে অন্যান্য দেশও এ বিষয়ে সজাগ হতে পারবে।”

গত ফেব্রুয়ারিতে সুইফট মেসেজিং সিস্টেমের মাধ্যমে ভুয়া বার্তা পাঠিয়ে ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউ ইয়র্কে রক্ষিত বাংলাদেশের রিজার্ভের আট কোটি ১০ লাখ ডলার ফিলিপাইনসে সরিয়ে নেয়া হয়। এটি সাম্প্রতিক বিশ্বের অন্যতম বড় সাইবার চুরির ঘটনা।

এটি বাংলাদেশের মানুষ জানতে পারে ঘটনার প্রায় এক মাস পর, বিদেশী একটি পত্রিকার খবরের মাধ্যমে। বিষয়টি চেপে রাখায় সমালোচনার মুখে গভর্নরের পদ ছাড়তে বাধ্য হন আতিউর রহমান। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আরো কিছু শীর্ষ পদে রদবদল আনা হয়।

ওই ঘটনা তদন্তে সাবেক গভর্নর মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিনকে প্রধান করে গঠিত তদন্ত কমিটি গত ৩০ মে সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের কাছে প্রতিবেদন জমা দেয়।। মন্ত্রী তখন বলেছিলেন, তিনি এই প্রতিবেদন জনসম্মুখে প্রকাশ করবেন।

পরবর্তীতে ২১ জুন মুহিত জানান, প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হবে ঈদের পর। এর এক মাস পর গত ২১ জুলাই সংসদের প্রশ্নোত্তর পর্বে মুহিত বলেন, ‘কয়েক দিনের মধ্যে তদন্ত কমিটির রিপোর্ট  প্রকাশিত হবে।’ তবে প্রতিবেদন কী আছে তা আজও জানতে পারেনি বাংলাদেশের মানুষ।

অন্যদিকে চুরি যাওয়া অর্থ ফিরিয়ে আনার প্রক্রিয়া তরান্বিত করতে রাজনৈতিক পর্যায়ে আলোচনার জন্যে ফিলিপাইনসে যাওয়ার প্রস্তাব দিয়েছে সংসদীয় কমিটি। এ বিষয়ে আব্দুর রাজ্জাক গণমাধ্যমকে বলেন, ‘সে দেশে নতুন সরকার এসেছে। সিনেট কমিটিও নতুন। টাকা ফেরত আনার বিষয়ে প্রক্রিয়া চলছে। ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক সহযোগিতা করছে। এখন ফিলিপাইনসের রাজনৈতিক নেতাদের সঙ্গেও আমরা কথা বলতে চাইছি।”

রাজ্জাক বলেন, ‘যেহেতু তারাও রাজনীতিক, আমরাও রাজনীতিক- সেজন্য রাজনৈতিক পর্যায়ে আলোচনা করতে সিনেট কমিটি, ওদের আইনমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলা যায় কীনা সেটা প্রস্তাব দিয়েছি। সরকার এখন বিষয়টি বিবেচনা করবে।’

জানা গেছে, ফিলিপাইনসে ঢোকা টাকার একটি বড় অংশ গিয়েছে জুয়ার আড্ডায়। এ নিয়ে দেশটির সিনেট কমিটির শুনানি চলাকালে এক ক্যাসিনো মালিক দেড় কোটি ডলার তাদের সরকারের হাতে ফেরত দেন। এই অর্থ বাংলাদেশে ফেরত আনার প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে।

ফিলিপাইনসে অবস্থানরত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত জন গোমেজ সাম্প্রতি বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, ‘পুরো আট কোটি ১০ লাখ ডলারই ফেরত পাওয়া যাবে বলে তিনি আশা করছেন, কারণ দেশটির নতুন প্রেসিডেন্ট রডরিগো দোতার্তে তেমন প্রতিশ্রুতিই দিয়েছেন।’

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/এসকে


সর্বশেষ

আরও খবর

সংসদে ৬,৭৮,০৬৪ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব

সংসদে ৬,৭৮,০৬৪ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব


আ’লীগ নেতা বিএম ডিপোর একক মালিক নন

আ’লীগ নেতা বিএম ডিপোর একক মালিক নন


চীনের সাথে বাণিজ্য ঘাটতি কমাতে চায় বাংলাদেশ

চীনের সাথে বাণিজ্য ঘাটতি কমাতে চায় বাংলাদেশ


ভোজ্যতেল ও খাদ্য নিয়ে যা ভাবছে সরকার

ভোজ্যতেল ও খাদ্য নিয়ে যা ভাবছে সরকার


তৎপর মন্ত্রীগণ, সীতাকুণ্ডে থামেনি দহন

তৎপর মন্ত্রীগণ, সীতাকুণ্ডে থামেনি দহন


অত আগুন, এত মৃত্যু, দায় কার?

অত আগুন, এত মৃত্যু, দায় কার?


যে গল্প এক অদম্য যোদ্ধার

যে গল্প এক অদম্য যোদ্ধার


আফগান ও ভারতীয় অনুপ্রবেশ: মে মাসে আটক ১০

আফগান ও ভারতীয় অনুপ্রবেশ: মে মাসে আটক ১০


সীমান্ত কাঁটাতারে বিদ্যুৎ: আলোচনায় বিজিবি-বিজিপি

সীমান্ত কাঁটাতারে বিদ্যুৎ: আলোচনায় বিজিবি-বিজিপি


চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে কঠোর সরকার

চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে কঠোর সরকার