Thursday, October 27th, 2016
রুশ সীমান্তে বিপুল সৈন্য সমাবেশ ন্যাটো’র
October 27th, 2016 at 11:13 am
রুশ সীমান্তে বিপুল সৈন্য সমাবেশ ন্যাটো’র

ডেস্ক: রাশিয়ার সীমান্তে বিপুল সৈন্য মোতায়েন করতে যাচ্ছে পশ্চিমা সামরিক জোট নর্থ আটলান্টিক ট্রিটি অর্গানাইজেশন (ন্যাটো)। স্নায়ুযুদ্ধ পরবর্তি সময়ে এটাই হবে রুশ সীমান্তে যুক্তরাষ্ট্রের এ মিত্রজোটের সর্বোচ্চ সেনা সমাবেশ।

রাশিয়ার আগ্রাসন থেকে সুরক্ষার কথা বলে বিপুল পরিমাণ সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে পশ্চিমা এ সামরিক জোটটি।বুধবার বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক খবরে এ তথ্য জানান হয়েছে।

সিরিয়ার উদ্দেশ্যে রাশিয়ার বিমানবাহী যুদ্ধজাহাজ পাঠানোর পর জুলাইয়ে ন্যাটো সম্মেলনে স্বাক্ষরিত এক চুক্তি অনুসারে আগামী বছরের শুরুতে রুশ সীমান্তে সেনা মোতায়েনের কথা ছিল। কিন্তু নির্ধারিত সময়ের আগেই সেই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করতে চাইছে জোটটি। প্রাথমিকভাবে রাশিয়ার সঙ্গে পোল্যান্ড, এস্তোনিয়া, লাটভিয়া ও লিথুয়ানিয়া সীমান্তে সেনা মোতায়েন করছে ন্যাটো। এই পদক্ষেপের মাধ্যমে জোটটি রাশিয়ার সঙ্গে দীর্ঘমেয়াদী বিরোধে জড়ানর প্রস্তুতি নিচ্ছে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জোট সদস্য দেশগুলোকে এই সামরিক পদক্ষেপে সেনা পাঠানর আহবান জানিয়েছে ন্যাটো। প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী চার হাজার সেনা সমাবেশের এই পদক্ষেপে যুক্তরাষ্ট্রও সাড়া দেবে বলে আশা করছে ন্যাটো।

nato-2

২০১৪ সালে রাশিয়া ক্রিমিয়াকে নিজেদের সঙ্গে যুক্ত করার পর থেকে আশঙ্কা করা হচ্ছে ইউরোপে সাবেক সোভিয়েত রাষ্ট্রগুলোর ক্ষেত্রেও একই কৌশল নিতে পারে রাশিয়া। তাই আগে থেকেই প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে চায় ন্যাটো। এই পদক্ষেপে ফ্রান্স, ডেনমার্ক, ইতালিসহ অন্যান্য সদস্য রাষ্ট্রও সেনা পাঠাবে বলে ন্যাটো মনে করছে। চারটি যুদ্ধ ইউনিটের নেতৃত্ব দেবে যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি, ব্রিটেন ও কানাডা। যুদ্ধ ইউনিটগুলো সামরিক ট্যাংক থেকে ড্রোনে সজ্জিত থাকবে।

ন্যাটো’র সেক্রেটারি জেনারেল জেনস স্টোলেনবার্গ বলেছেন, এই পদক্ষেপ আটলান্টিকের দুই পারের সম্পর্কের একটি স্পষ্ট বহিঃপ্রকাশ। তবে কূটনীতিকরা বলছেন, এটা মার্কিন প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রতিও একটা বার্তা যিনি অভিযোগ করছেন ইউরোপীয় মিত্ররা তাদের প্রতি জোটের প্রাপ্য পরিশোধ করছে না।

মূলত রাশিয়াকে কোণঠাসা করার নতুন কৌশলের অংশ হিসেবে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে যেখানে ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা, আকাশ টহল ও সাইবার হামলার বিরুদ্ধে প্রতিরক্ষার ব্যবস্থাও যুক্ত হবে। তবে কৃষ্ণ সাগর অঞ্চলে একই ধরণের কৌশল নিতে হিমশিম খাচ্ছে ন্যাটো।

সম্প্রতি ইউরোপ সীমান্তবর্তী কালিনিনগ্রাদ এলাকায় পরমাণু ক্ষমতাসম্পন্ন ক্ষেপণাস্ত্র ‘ইস্কান্দর’ মোতায়েন করে রাশিয়া। এ কারণে সীমান্তবর্তী ন্যাটো জোটভুক্ত দুই দেশ পোল্যান্ড ও লিথুয়ানিয়া বেশ উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ে। পোল্যান্ড সরকার এই ঘটনাকে ‘বিপদসংকেতপূর্ণ’ বলে জানায়। লিথুয়ানিয়ার কর্তৃপক্ষ বলেছে, এই ঘটনা আন্তর্জাতিক পারমাণবিক অস্ত্র চুক্তির লঙ্ঘন।

অবশ্য রাশিয়া জানিয়েছে, সারা দেশেই সামরিক বাহিনীর জন্য নানা ধরণের প্রশিক্ষণ মহড়া অনুষ্ঠিত হয়। কালিনিনগ্রাদও এর ব্যতিক্রম নয়।

গ্রন্থনা ও সম্পাদনা: প্রণব


সর্বশেষ

আরও খবর

ঢাকা-দিল্লি ৫ সমঝোতা স্মারক সই

ঢাকা-দিল্লি ৫ সমঝোতা স্মারক সই


করোনায় আরও ৩৯ মৃত্যু

করোনায় আরও ৩৯ মৃত্যু


করোনায় আক্রান্ত শচীন

করোনায় আক্রান্ত শচীন


নাশকতা ঠেকাতে র‍্যাব-পুলিশের কঠোর অবস্থান

নাশকতা ঠেকাতে র‍্যাব-পুলিশের কঠোর অবস্থান


শুক্র ও শনিবার যান চলাচল নিয়ন্ত্রিত থাকবে

শুক্র ও শনিবার যান চলাচল নিয়ন্ত্রিত থাকবে


মতিঝিলে মোদিবিরোধী বিক্ষোভ, শিশুবক্তা রফিকুলসহ অন্তত ১০ জন আটক

মতিঝিলে মোদিবিরোধী বিক্ষোভ, শিশুবক্তা রফিকুলসহ অন্তত ১০ জন আটক


ঈদের পর স্কুল-কলেজ খোলার ইঙ্গিত শিক্ষামন্ত্রীর

ঈদের পর স্কুল-কলেজ খোলার ইঙ্গিত শিক্ষামন্ত্রীর


৮ মাস পর দেশে করোনায় এক দিনে সর্বোচ্চ ৩৫৫৪ শনাক্ত

৮ মাস পর দেশে করোনায় এক দিনে সর্বোচ্চ ৩৫৫৪ শনাক্ত


শেখ হাসিনাকে হত্যার ষড়যন্ত্রে ১৪ জঙ্গিকে ফায়ারিং স্কোয়াডে মৃত্যুদণ্ড

শেখ হাসিনাকে হত্যার ষড়যন্ত্রে ১৪ জঙ্গিকে ফায়ারিং স্কোয়াডে মৃত্যুদণ্ড


শবে বরাতের ছুটি ৩০ মার্চ

শবে বরাতের ছুটি ৩০ মার্চ