Sunday, April 15th, 2018
রোহিঙ্গা পরিবারের প্রত্যাবর্তন মিয়ানমারের সাজানো নাটক 
April 15th, 2018 at 10:57 pm
রোহিঙ্গা পরিবারের প্রত্যাবর্তন মিয়ানমারের সাজানো নাটক 

ডেস্ক: মিয়ানমারের সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর প্রথম পরিবার দেশটিতে প্রত্যাবর্তন করেছে বলে মিয়ানমার সরকার যে ঘোষণা দিয়েছে তাতে সন্দেহ প্রকাশ করেছে রোহিঙ্গা অধিকার গোষ্ঠী।

রোববার ইউরোপে অবস্থানরত রোহিঙ্গা অ্যাকটিভিস্ট, ব্লগার এবং সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীটির অবস্থা পর্যবেক্ষণ করা সংস্থা এক বিবৃতিতে মিয়ানমার সরকারের এই ঘোষণাকে প্রতারণা বলে উল্লেখ করেছে।

গত শনিবার মিয়ানমার সরকার ফেসবুকে প্রকাশিত একটি পোস্টে জানায়, বাংলাদেশ এবং মিয়ানমারের সীমান্তে অবস্থানরত একটি রোহিঙ্গা পরিবারের ৫ জন সদস্য মিয়ানমারে ফিরে এসেছে। উল্লেখ্য, এই সীমান্তবর্তী এলাকায় বর্তমানে হাজার হাজার রোহিঙ্গা অবস্থান করছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মিয়ানমার সরকারের দেয়া ওই পোস্টের সঙ্গে একটি ছবিও দেয়া হয়। এতে দেখা যাচ্ছে, ওই ৫ জনকে সনাক্তকরণ কার্ড দেয়া হচ্ছে। মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ জানায়, পরিবারটি মুসলিম। তবে বাংলাদেশে অবস্থানরত রোহিঙ্গাদের ঠিক কখন প্রত্যাবাসন করা হবে এই ব্যাপারে কোন তথ্য দেয়া হয়নি ওই পোস্টটিতে।

এদিকে রোহিঙ্গা সম্প্রদায়ের একজন নেতা বার্তা সংস্থা এএফপিকে একটি রোহিঙ্গা পরিবারের প্রত্যাবর্তনের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তবে নিজস্ব একটি সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে রোহিঙ্গা ব্লগার পরিচালিত একটি ওয়েবসাইটে বলা হয়, রাখাইনে যে অস্বাভাবিক পরিস্থিতি বিরাজ করছে তার মধ্যেও কারো সেখানে প্রত্যাবর্তনের খবর শুনে আমরা হতভম্ব হয়ে গেছি।

ওই ওয়েবসাইটে দাবি করা হয়, তাদের নিজস্ব তদন্তে দেখা গেছে, ওই পরিবারটি বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্ত এলাকায় প্রবেশ করে, সীমান্তে অবস্থান করা রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফিরে যাওয়ার জন্য প্ররোচিত করেছে। কিন্তু তাদের প্ররোচনা সত্ত্বেও যখন কোন রোহিঙ্গা পরিবার মিয়ানমারে প্রত্যাবর্তন করতে অস্বীকৃতি জানায়, তারা আবার মিয়ানমারে ফেরত আসে। এদেরকেই প্রত্যাবর্তনকারী হিসেবে চিত্রায়িত করছে দেশটির সরকার।

রোহিঙ্গা অধিকার নিয়ে কাজ করা গ্রুপটির দাবি, মিয়ানমার সরকার রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তনের মিথ্যা নাটক সাজিয়ে বাংলাদেশে অবস্থানরত শরণার্থীদের মিয়ানমারে ফেরত আসার জন্য প্রলুব্ধ করছে। কিন্তু সেখানে তাদের আশ্রয় শিবিরেই অবস্থান করতে হবে।

অপরদিকে ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন ফর হিউম্যান রাইটসের আন্দ্রেয়া জিওরগেট্টা জানান, রোহিঙ্গা পরিবারের ফেরত আসার কাহিনী প্রচার করে মিয়ানমার সরকার আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের দৃষ্টি অন্যদিকে সরানোর চেষ্টা করছে। যাতে রাখাইন রাজ্যে সংঘটিত অপরাধের ব্যাপারে তাদের কোন জবাবদিহিতা করতে না হয়।

তিনি বলেন, রাখাইনে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরুর আগে তাদের মৌলিক মানবাধিকারের বিষয়গুলি মিয়ানমার সরকারের নিশ্চিত করা উচিত।  সূত্র: আল জাজিরা

গ্রন্থনা: ফারহানা করিম

 


সর্বশেষ

আরও খবর

বগুড়ায় বাস-সিএনজি সংঘর্ষে নিহত ৫

বগুড়ায় বাস-সিএনজি সংঘর্ষে নিহত ৫


উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে শাবি শিক্ষার্থীদের আমরণ অনশন

উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে শাবি শিক্ষার্থীদের আমরণ অনশন


দেশে আরও ৯৫০০ জনের করোনা শনাক্ত, হার ২৫ ছাড়াল

দেশে আরও ৯৫০০ জনের করোনা শনাক্ত, হার ২৫ ছাড়াল


টানা তৃতীয়বারের মতো নির্বাচিত হলেন আইভী

টানা তৃতীয়বারের মতো নির্বাচিত হলেন আইভী


অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখে বাস চলার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন

অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখে বাস চলার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন


আগুনে পুড়ল রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ১২০০ ঘর

আগুনে পুড়ল রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ১২০০ ঘর


এবারের বিজয় দিবসে দেশবাসীকে শপথ পড়াবেন প্রধানমন্ত্রী

এবারের বিজয় দিবসে দেশবাসীকে শপথ পড়াবেন প্রধানমন্ত্রী


কমলো এলপিজির দাম

কমলো এলপিজির দাম


উন্নয়নশীল দেশ নিয়ে খুশি না হয়ে, উন্নত দেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

উন্নয়নশীল দেশ নিয়ে খুশি না হয়ে, উন্নত দেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির


জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম মারা গেছেন

জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম মারা গেছেন