Sunday, October 9th, 2016
‘লেখালেখি সাহিত্য পুরস্কার’ পেলেন কবি আসাদ চৌধুরী ও আল মুজাহিদী
October 9th, 2016 at 8:31 am
‘লেখালেখি সাহিত্য পুরস্কার’ পেলেন  কবি আসাদ চৌধুরী ও আল মুজাহিদী

দেশের অন্যতম সৃজনশীল প্রকাশনা সংস্থা ‘লেখালেখি’। এই প্রকাশনা সংস্থা ২০১৩ সালে থেকে প্রবর্তন করেছ ‘লেখালেখি সাহিত্য পুরস্কার’। ২০১৩ সালের পর এবার এক সাথে একই অনুষ্ঠানে দেওয়া হলো ২০১৪ এবং ২০১৫ সালের এই পুরস্কার। সমগ্র কাব্যজীবনের অবদানের স্বীকৃতি স্বরুপ এই দুইবারের ‘লেখালেখি সাহিত্য পুরস্কার’ পেয়েছেন-কবি আসাদ চৌধুরী (২০১৪ সাল) এবং কবি আল মুজাহিদী (২০১৫ সাল)।

শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি অ্যামিরিটাস অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান। পুরস্কার হিসেবে দুই কবি’কে-ক্রেস্ট, সনদপত্র এবং পুরস্কারের অর্থমূল্য ৫০ হাজার টাকার চেক প্রদান করা হয়।

প্রাবন্ধিক-সাংবাদিক সৈয়দ আবুল মকসুদের সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে এসময় বিশেষ অতিথি ছিলেন-বাংলা একাডেমির সাবেক মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. মাহমুদ শাহ কোরেশী, গীতিকার কে জি মোস্তফা ও ছড়াকার ফারুক হোসেন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন  ‘লেখালেখি’ প্রকাশনার কর্ণধার আবুল কাসেম হায়দার।

ড. আনিসুজ্জামান বলেন, ‘আমার জন্য আজকের দিনটি আনন্দের উপলক্ষ বয়ে এনেছে। আজকের পুরস্কারপ্রাপ্ত দুই কবিই কপালদোষে আমার ছাত্র ছিলেন! এজন্যই এ আয়োজনে সানন্দে চলে এসেছি। দুইজনই বাংলা সাহিত্যকে সাধনা, শ্রম, মেধা ও লেখা দিয়ে সমৃদ্ধ করে চলেছেন।’

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের বিভিন্ন সাহিত্য পুরস্কার রয়েছে। তার কোনটি গুরুত্বপূর্ণ, তার বিবেচনা অর্থ দিয়ে হয় না। পুরস্কারের গুণমান নির্ধারণ হয় এ পুরস্কার কারা পেয়েছেন, পাচ্ছেন তার উপরে।’

অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে আসাদ চৌধুরী বলেন, ‘আমি আমার লেখায় সময়ের কথা বলতে চেয়েছি। আমার মনে হয়, লেখার পেছনে আরেকটু সময় দেওয়া উচিত ছিল। কিন্তু নানা সামাজিক কাজে ব্যস্ত থাকতে হয়। মানুষের সঙ্গে মিশতে আমার ভালো লাগে। কিন্তু এখন বড় দুঃসময় পার হচ্ছে, মানুষ মানুষকে বিশ্বাস করছে না।’ পরে তিনি নিজের লেখা একটি কবিতা পাঠ করেন।

আল মুজাহিদী বলেন, ‘বিবেক ও বোধের বারুদ জ্বালিয়ে পৃথিবীকে নতুন করে জাগিয়ে তুলতে হবে। আমাদের আরও মানবিক হতে হবে। কবিকে স্বাধীন হতে হবে। কবিদের কোন কাঠামোর মধ্যে আবদ্ধ হলে চলবে না। তবে যে কবি যত ভালো কাঠামো নির্মাণ করতে পারবে, সে তত ভালো কবি।’

সভাপতির বক্তব্যে সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেন, ‘সাহিত্য পুরস্কারের প্রয়োজন রয়েছে। পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই এটি প্রচলিত। কখনও পুরস্কার পেয়ে কেউ সম্মানিত হয়, কেউ আবার পুরস্কার দিয়ে সম্মানিত হয়। আজকে যারা পুরস্কার পেয়েছেন, তাদের পুরস্কার পাওয়া না পাওয়ায় আসে যায় না। বরং তাদের পুরস্কার প্রকাশনা সংস্থা ‘লেখালেখি’ সম্মানিত হয়েছে।’

প্রতিবেদক: প্রতিনিধি সম্পাদনা: শিপন আলী


সর্বশেষ

আরও খবর

দ্য ডেইলি হিলারিয়াস বাস্টার্ডস

দ্য ডেইলি হিলারিয়াস বাস্টার্ডস


করোনা নিয়ে ওবায়দুল কাদেরের কবিতা

করোনা নিয়ে ওবায়দুল কাদেরের কবিতা


পাথর সময় ও অচেনা বৈশাখ

পাথর সময় ও অচেনা বৈশাখ


৭২-এর ঝর্ণাধারা

৭২-এর ঝর্ণাধারা


বইমেলায় আলতামিশ নাবিলের ‘লেট দেয়ার বি লাইট’

বইমেলায় আলতামিশ নাবিলের ‘লেট দেয়ার বি লাইট’


নাচ ধারাপাত নাচ!

নাচ ধারাপাত নাচ!


ক্রোকোডাইল ফার্ম

ক্রোকোডাইল ফার্ম


সামার অফ সানশাইন

সামার অফ সানশাইন


মুক্তিযুদ্ধে যোগদান

মুক্তিযুদ্ধে যোগদান


স্বাধীনতার ঘোষণা ও অস্থায়ী সরকার গঠন

স্বাধীনতার ঘোষণা ও অস্থায়ী সরকার গঠন