Friday, September 2nd, 2016
শপথ ভঙ্গ : দুই মন্ত্রীর পদে থাকা উচিত নয়
September 2nd, 2016 at 10:10 am
শপথ ভঙ্গ : দুই মন্ত্রীর পদে থাকা উচিত নয়

ঢাকা: যুদ্ধাপরাধী মীর কাসেম আলীর চূড়ান্ত রায়ের আগে সর্বোচ্চ আদালত নিয়ে করা মন্তব্যের জন্য খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হককে আদালত অবমাননার দায়ে ৫০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড দিয়ে যে রায় দিয়েছিলেন আপিল বিভাগ, বৃহস্পতিবার তার পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশিত হয়েছে। এ রায় প্রকাশের পর এক প্রতিক্রিয়ায় শাহদীন মালিক বলেন, ‘শপথ ভঙ্গ করার পর মন্ত্রী পদে থাকা কোনওভাবেই উচিত হবে না।’

এই বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টের আরও কয়েকজন সিনিয়র আইনজীবীর মতামত জানতে চাইলে তাদের কেউ কেউ কথা বলতে রাজি হননি। কেউবা নিজেরা মত না দিয়ে বিষয়টি শাস্তিপ্রাপ্ত দুই মন্ত্রীর উপরই ছেড়ে দিয়েছেন।

আদালত অবমাননার রায়ে সর্বোচ্চ আদালত দুই মন্ত্রী কামরুল ইসলাম ও আকম মোজাম্মেল হকের ‘শপথ ভঙ্গ হয়েছে’ উল্লেখ করায় তাদের আর পদে থাকার অধিকার নেই বলে মনে করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী শাহদীন মালিক।

মীর কাসেম আলীর চূড়ান্ত রায়ের আগে সর্বোচ্চ আদালতকে নিয়ে করা মন্তব্যের জন্য দুই মন্ত্রীর নিঃশর্ত ক্ষমার আবেদন প্রত্যাখ্যান করে প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা নেতৃত্বাধীন আট সদস্যের আপিল বিভাগ গত ২৭মার্চ তাদের শাস্তি দিয়ে রায় দেন। সেই রায় বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রকাশ পায়।

রায়ে বলা হয়, “সংবিধানে বর্ণিত আইনের শাসন রক্ষার যে শপথ বিবাদীরা নিয়েছেন, সেই দায়িত্বের প্রতি তারা অবহেলা করেছেন। তারা আইন লঙ্ঘন করেছেন এবং সংবিধান রক্ষা ও সংরক্ষণে তাদের শপথ ভঙ্গ করেছেন।”

রায়ে বলা হয়, “সংবিধানে বর্ণিত আইনের শাসন রক্ষার যে শপথ বিবাদীরা নিয়েছেন, সেই দায়িত্বের প্রতি তারা অবহেলা করেছেন। তারা আইন লঙ্ঘন করেছেন এবং সংবিধান রক্ষা ও সংরক্ষণে তাদের শপথ ভঙ্গ করেছেন।

দুই মন্ত্রী শপথ ভঙ্গ করেছেন বলে সুপ্রিমকার্টের দেওয়া পর্যবেক্ষণের বিষয়ে জানতে চাইলে সিনিয়র আইনজীবীদের অনেকেই কথা বলতে রাজী হননি।

সংবিধান রক্ষায় শপথ ভঙ্গ করেছেন দুই মন্ত্রী- সুপ্রিম কোর্টের এমন রায়ের পর তাদের পদ থাকবে কিনা এ বিষয়ে সংবিধানের অন্যতম প্রণেতা ড. কামাল হোসেন বলেন, ‘শপথ ভঙ্গের বিষয়ে আইন ও সংবিধানে এ ব্যাপারে ওইভাবে কিছু বলা হয়নি। এটা জনমতের ওপর নির্ভর করে। তারা থাকতে পারবে কি-না, জানতে হলে জনমত যাচাই করার পর বুঝা যাবে।’

এই দুই মন্ত্রী তাদের পদে থাকা উচিত কি-না, এ বিষয়ে ব্যক্তিগত মত জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি বলবো না। রাষ্ট্রে এর চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় আছে।’

আব্দুল বাসেত মজুমদার বলেছেন, রায়ে বলেছেন তারা মন্ত্রীরা শপথ ভঙ্গ করেছেন, কিন্তু রায়ে কোথাও বলে নাই একই সঙ্গে সংবিধানেও উল্লেখ নাই শপথ ভঙ্গের বিষয়ে। তিনি এটার অ্যাফেক্ট পরবর্তীতে বুঝা যাবে।

এ বিষয়ে মতামত জানতে চাইলে মন্তব্য করতে রাজি হননি ব্যরিস্টার এম আমীর-উল ইসলাম। এ বিষয়ে কথা বলতে চাইলে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেননি রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা মাহবুবে আলমও।

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম শপথ ভঙ্গের বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি।

এই রায়ের ফলে এই দুই মন্ত্রী তাদের কাজ চালিয়ে যেতে পারবেন কি-না, এমন প্রশ্নের জবাবে আইনজীবী এম কে রহমান বলেন, ‘এই মামলার রায়ের মূল বিষয় হচ্ছে, দুই মন্ত্রী গুরুতর আদালত অবমাননার দায়ে দোষী সাব্যস্ত হয়েছে। সকল বিচারপতি একমত হয়ে সেটা করেছেন। তাদের শপথ ভঙ্গের বিষয়টি এই মামলার বিবেচ্য বিষয় ছিলো না।’

“তারপরও সংখ্যাগরিষ্ঠ বিচারপতির মতামতের ভিত্তিতে একটা ফাইন্ডিংস এসেছে। কিন্তু তারা মন্ত্রী থাকতে পারবেন কি-না, এমন কিছু বলা হয়নি। এটা তাদের সুবিবেচনা ও প্রধানমন্ত্রীর ইচ্ছার ওপর নির্ভর করে।”

তবে শাহদীন মালিক ভিন্ন মত দিয়ে বলেন, ‘যারা সরকারের কোন কর্মে নিয়োজিত তাদের যদি জরিমানা বা জেল হয়, তাহলে পদ থেকে বরখাস্ত হয়েছে বলে ধরে নেওয়া হয়। এই বিধান অনুসারে তাদের পদচ্যূত হওয়ার কথা। এখন কেউ যদি আইনের তোয়াক্কা না করেন, সেটা ভিন্ন কথা। শপথ ভঙ্গ করেছেন বলে সংখ্যাগরিষ্ঠতার রায়ে বলা হয়েছে, শপথ ভঙ্গ করেছেন। শপথ ভঙ্গ করার পরে সাংবিধানিক কোন পদে অধিষ্ঠিত কোন ব্যক্তির এক মুহূর্ত পদে থাকার নৈতিক ও সাংবিধানিক অধিকার নাই।’

“সংবিধানের কোন বিধান লঙ্ঘণ হলে সেটা সাজা সংবিধানে বলে দেওয়া নাই। সংবিধান অপরাধীদের আইন না। তবে ধারণাটা হলো, কেউ যদি কোন কখনো সংবিধানের পদে থেকে সংবিধান লঙ্ঘন করে, তাহলে নৈতিকতা ও আইনের ভার মাথায় নিয়ে এই মুহুর্তে পদত্যাগপত্র জমা দেওয়া উচিত।”

“আমাদের দুর্ভাগ্য যে, এখানে যারা এই ধরণের পদে থাকেন, তারা আইনের তোয়াক্কা করেন না, সংবিধানের তোয়াক্কা করেন। শেষদিন পর্যন্ত পদে বসে থাকেন।

প্রতিবেদন: ফজুলল হক, সম্পাদনা মাহতাব শফি

 


সর্বশেষ

আরও খবর

করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, ৭৮ দিনের মধ্যে সর্বোচ্চ শনাক্ত

করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, ৭৮ দিনের মধ্যে সর্বোচ্চ শনাক্ত


ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় মজনুর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় মজনুর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড


মানুষের জন্য কিছু করতে পারাই আমাদের রাজনীতির লক্ষ্য: প্রধানমন্ত্রী

মানুষের জন্য কিছু করতে পারাই আমাদের রাজনীতির লক্ষ্য: প্রধানমন্ত্রী


আনিসুল হত্যা: মানসিক স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটের রেজিস্ট্রার গ্রেপ্তার

আনিসুল হত্যা: মানসিক স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটের রেজিস্ট্রার গ্রেপ্তার


পাওয়ার গ্রিডের আগুনে বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন পুরো সিলেট, ব্যাপক ক্ষতি

পাওয়ার গ্রিডের আগুনে বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন পুরো সিলেট, ব্যাপক ক্ষতি


দুইদিনের বিক্ষোভের ডাক বিএনপির

দুইদিনের বিক্ষোভের ডাক বিএনপির


বাস পোড়ানোর মামলায় বিএনপির ২৮ নেতাকর্মী রিমান্ডে

বাস পোড়ানোর মামলায় বিএনপির ২৮ নেতাকর্মী রিমান্ডে


অবশেষে পাঁচ বছর পর নেপালকে হারালো বাংলাদেশ

অবশেষে পাঁচ বছর পর নেপালকে হারালো বাংলাদেশ


মাইন্ড এইড হাসপাতালে তালা, মালিক গ্রেপ্তার

মাইন্ড এইড হাসপাতালে তালা, মালিক গ্রেপ্তার


অবশেষে গ্রেফতার হলো এসআই আকবর

অবশেষে গ্রেফতার হলো এসআই আকবর