Wednesday, September 21st, 2016
শরীয়তপুর-চাঁদপুর মহাসড়কে নিত্য দুর্ঘটনা
September 21st, 2016 at 6:10 pm
শরীয়তপুর-চাঁদপুর মহাসড়কে নিত্য দুর্ঘটনা

শরীয়তপুর: জেলার সড়ক ও জনপদ বিভাগ কর্তৃক নিয়ন্ত্রণাধীন শরীয়তপুর-চাঁদপুর মহাসড়কের আংগারিয়া বড় ব্রিজ হতে চাঁদপুর ফেরী ঘাট পর্যন্ত রাস্তার অবস্থা এতোটাই খারাপ যে, যানবাহন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। অতি বৃষ্টির কারণে সারা সড়ক জুড়েই ছোট বড় খানা খন্দকের সৃষ্টি হয়েছে। ফলে যাত্রীরা চলাচল করতে গিয়ে সীমাহীন দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। আর প্রতিদিনই ঘটছে দুর্ঘটনা।

এই মহাসড়কটি দিয়ে শরীয়তপুর জেলার তিনটি উপজেলার ৪৪টি ইউনিয়নের প্রায় ছয় লাখ মানুষ যাতায়াত করেন। ১৯৯৬ সালে তৎকালীন পানি সম্পদ মন্ত্রী আব্দুল রাজ্জাক শরীয়তপুর-চাঁদপুর মহা সড়কের প্রায় ৪০ কিলোমিটার রাস্তা পুনর্নির্মাণের ব্যবস্থা করেন। ফলে বৃহত্তর ফরিদপুর, খুলনাসহ বরিশালের যোগাযোগ ব্যবস্থা শরীয়তপুরের সখিপুর থানার ইব্রাহিমপুর ফেরী ঘাট দিয়ে চাঁদপুর, লক্ষীপুর, রায়পুর, নোয়াখালী, ফেনী, কুমিল্লা এবং চট্টগ্রামের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ স্থাপিত হয়েছে।

বর্তমানে মহাসড়কটি ভেঙ্গে যাওয়ায় যানবাহন চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হচ্ছে এবং প্রতিদিনই কোন না কোন যানবাহন দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে।  

শরীয়তপুর জেলা সড়ক ও জনপদ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, ২০১২-১৩ অর্থ বছরে ২৩ কোটি ২৫ লাখ টাকা ব্যয়ে এমএম বিল্ডার্স নামে একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে শরীয়তপুর-চাঁদপুর মহাসড়কটি পুনর্নির্মাণের অনুমোদন দেয়া হয়। কিন্তু নিম্নমানের উপকরণ ব্যবহার করার কারণে এক বছরের মাথায় সড়কের বিভিন্ন স্থান ভেঙ্গে যেতে শুরু করে। এখন মহাসড়কটি যাতায়াতের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।

এ ব্যাপারে শরীয়তপুর সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মিন্টু রঞ্জন দেবনাথ জানান, আংগারিয়া বড় ব্রিজ হতে চাঁদপুর ফেরী ঘাট পর্যন্ত রাস্তার অবস্থা এতোটাই খারাপ যে, যানবাহন তথা যাত্রী চলাচলে অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। তবে শরীয়তপুর-চাঁদপুর মহাসড়কটি পুনর্নির্মাণের জন্য মন্ত্রণালয়ে ডিপিপি পাঠানো হয়েছে। কাজটি প্রক্রিয়াধীন আছে। খুব শিগগিরই সেই মোতাবেক বরাদ্দ আসবে। এরপর শরীয়তপুর-চাঁদপুর মহাসড়কটির কাজ শুরু করা যাবে।

প্রতিবেদন: ওয়াদুদ মিয়া, সম্পাদনা: ফারহানা করিম, সজিব ঘোষ

 


সর্বশেষ

আরও খবর

পাওয়ার গ্রিডের আগুনে বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন পুরো সিলেট, ব্যাপক ক্ষতি

পাওয়ার গ্রিডের আগুনে বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন পুরো সিলেট, ব্যাপক ক্ষতি


অবশেষে গ্রেফতার হলো এসআই আকবর

অবশেষে গ্রেফতার হলো এসআই আকবর


অতিরিক্ত মূল্যে আলু বিক্রির দায়ে বরিশালে চার ব্যবসায়ীকে জরিমানা

অতিরিক্ত মূল্যে আলু বিক্রির দায়ে বরিশালে চার ব্যবসায়ীকে জরিমানা


শিশু ধর্ষণের মামলায় দ্রুততম রায়ে আসামির যাবজ্জীবন

শিশু ধর্ষণের মামলায় দ্রুততম রায়ে আসামির যাবজ্জীবন


জাতীয় পার্টির ‘ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন’ বিরোধী সমাবেশ

জাতীয় পার্টির ‘ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন’ বিরোধী সমাবেশ


চোরের চিরকুট!

চোরের চিরকুট!


সিলেটে পুলিশি নির্যাতনে রায়হান হত্যার প্রতিবাদে লন্ডনে ‘আমরা সিলেট বাসীর’ মানব বন্ধন

সিলেটে পুলিশি নির্যাতনে রায়হান হত্যার প্রতিবাদে লন্ডনে ‘আমরা সিলেট বাসীর’ মানব বন্ধন


গালিগালাজের ভয়েস নিজের না দাবি নিক্সন চৌধুরীর

গালিগালাজের ভয়েস নিজের না দাবি নিক্সন চৌধুরীর


এমসি কলেজে ধর্ষণের ঘটনায় চারজনের ছাত্রত্ব বাতিল

এমসি কলেজে ধর্ষণের ঘটনায় চারজনের ছাত্রত্ব বাতিল


মধ্যরাতে গৃহিণীকে তুলে নিয়ে দলবেঁধে ধর্ষণ, আটক ৮

মধ্যরাতে গৃহিণীকে তুলে নিয়ে দলবেঁধে ধর্ষণ, আটক ৮