Thursday, July 7th, 2022
শুধু অর্থ নয়, চাকরিও পাচ্ছে জঙ্গিরা!
August 11th, 2016 at 10:48 pm
শুধু অর্থ নয়, চাকরিও পাচ্ছে জঙ্গিরা!

প্রীতম সাহা সুদীপ, ঢাকা: নিজেদের আইএস’র (ইসলামিক স্টেট) সদস্য দাবি করা বাংলাদেশি জঙ্গিদের সংগঠনের পক্ষ থেকে শুধু আর্থিক সহায়তা নয়, বিভিন্ন চাকরিও দেয়া হয়।

খোদ র‌্যাব (র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন) এ তথ্য জানিয়েছে। তাদের মতে, আলোচনায় আসতেই আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী ‘আইএস’এর নাম ভাঙাচ্ছে এই দেশীয় জঙ্গিরা। এরা মূলত জেএমবি (জামায়াতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশ) ও এবিটি (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম) সদস্য। বর্তমানে এরা যৌথভাবে ‘দাওলাতুল ইসলাম’ নামে সক্রিয়।

র‌্যাবের গোয়েন্দাদের অভিমত, ‘প্রয়োজনে এ সকল লোকদের জন্য আর্থিক সুবিধা এমনকি চাকরির ব্যবস্থা করা হয়।’ সম্প্রতি রাজধানীর বিমানবন্দর রেলওয়ে স্টেশন, গাবতলী ও শাহ আলী মাজারের পেছনের একটি বাড়ি থেকে জেএমবি’র পাঁচ সদস্য ও এবিটি’র একজনকে গ্রেফতারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এ তথ্য বেরিয়ে আসে।

Picture3

র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ বলেন, ‘গ্রেফতারকৃতরা আত্মঘাতী হামলার জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত ছিলো। তাদের আমিরের নির্দেশনার অপেক্ষা করছিলো তারা।’ আত্মঘাতী হামলায় আগ্রহী, এমন জঙ্গিদের নিয়ে পৃথক ইউনিট গঠন করা হচ্ছে বলেও র‌্যাব জানতে পেরেছে।

মুফতি মাহমুদ আরো জানান, দাওলাতুল ইসলাম বাংলাদেশের সদস্যরা এখন অবধি ১১টি হামলা চালিয়েছে। এর মধ্যে গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁ ও মাদারীপুরে শিক্ষকের জঙ্গি হামলাও রয়েছে।

Picture1

জানা গেছে, এই জঙ্গি সংগঠনগুলোর স্লিপার সেলের বেশ কিছু সদস্য সারা দেশে বিভিন্ন গ্রুপে বিভক্ত হয়ে নাশকতার প্রস্তুতি নিচ্ছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক, ইমো ছাড়াও টেলিগ্রাম, থ্রিমার মতো অ্যাপসের মাধ্যমে তারা নিজ সংগঠনের সদস্যদের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করছে। এসব গ্রুপে নারী সদস্যদের সক্রিয় উপস্থিতিও লক্ষ্য করা গেছে।

র‌্যাব বলছে, বিভিন্ন স্থানে হামলার পর জঙ্গিরা ‘আত্-তামকীন’ নামক ওয়েবসাইটে নিজেদের আইএস হিসেবে প্রচার করে। এর মূল উদ্দেশ্য নিজেদের আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে আনা। তবে এদের সাথে আইএস’র সরাসরি যোগাযোগের কোন প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

‘আত্-তামকীন’ এর কার্যক্রম পরিচালনার জন্য বেশ কয়েকটি গ্রুপ কাজ করে। একটি গ্রুপ অনুবাদের কাজ করে, আরেকটি গ্রুপ ফটোশপের কাজ করে। অন্য একটি গ্রুপ ভিডিও এডিটিংয়ের কাজ করে, আর বাকিরা প্রচারের কাজে নিয়োজিত থাকে।

র‌্যাব জানায়, জঙ্গিরা প্রথমত দাওয়াতের মাধ্যমে সদস্য সংগ্রহ করে। সাধারণত দু’ভাবে তারা এই দাওয়াত দেয়; সরাসরি ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। দাওয়াত দেয়ার আগে তারা কাঙ্খিত ব্যক্তির মনোভাব বোঝার চেষ্টা করে। প্রাথমিক যাচাই শেষে ওই ব্যক্তির সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে তোলে জঙ্গিরা। এরপর তাকে সদস্য বানিয়ে জিহাদ-সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য সরবরাহ করে।

Picture2

গোয়েন্দারা জানান, যখন নতুন কেউ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে উগ্রবাদে আগ্রহী হয়, তখন জঙ্গি দলগুলোর ‘আখি’ (ভাই) পদধারীরা তাদের সঙ্গে সশরীরে, ফোনে কিংবা অন্যান্য মাধ্যমে দেখা করে। নতুন সদস্যরা আরো সক্রিয় হলে তাদের ‘টেলিগ্রাম’ অ্যাপসের ‘সিক্রেট গ্রুপে’ (গোপন গোষ্ঠীতে) সংযুক্ত করা হয়। এই গ্রুপে অন্তর্ভুক্তির আগে সদস্যদের ব্যক্তিগত, সামাজিক ও আকিদাগত তথ্যাদি দিতে হয়। টেলিগ্রামে তাদের জিহাদের বিষয়ে বয়ান করা হয়। এই গ্রুপে সবাই ছদ্মনাম ব্যবহার করে। শীর্ষ জঙ্গিরা তাদের গতিবিধি খেয়াল করে।

নতুন সদস্যদের বিশ্বস্ত মনে হলে তাদের ‘থ্রিমা’ অ্যাপসে যুক্ত করা হয়। তাদের সঙ্গে কথিত ‘বড়ভাই’ বা আমির যোগাযোগ করে। এরপর চূড়ান্ত প্রশিক্ষণ দেয়া হয়।

প্রশিক্ষণ শেষে সদস্যদের আত্মঘাতী হামলা ও জিহাদি মাঠের কর্মি হিসেবে নিয়োগ করা হয়। নিয়োগপ্রাপ্তরা যখন কোনো নাশকতার মিশনে বেড়িয়ে পরে, তাদের সে যাত্রাকে ‘হিযরত’ বলা হয়ে থাকে। যে হিযরতে বেরিয়ে পড়ে, সে অনলাইনের গোপন গোষ্ঠীগুলো থেকে অফলাইনে চলে যায়। সবার সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে ফেলে। মিশন থেকে নিরাপদে ফিরতে পারলে পুনরায় সে অনলাইনে আসে।

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/পিএসএস/এসকে


সর্বশেষ

আরও খবর

অত আগুন, এত মৃত্যু, দায় কার?

অত আগুন, এত মৃত্যু, দায় কার?


আফগান ও ভারতীয় অনুপ্রবেশ: মে মাসে আটক ১০

আফগান ও ভারতীয় অনুপ্রবেশ: মে মাসে আটক ১০


নতুন ডিআইজিদের যা বললেন আইজিপি

নতুন ডিআইজিদের যা বললেন আইজিপি


পার্বত্য চট্টগ্রামে সক্রিয় হচ্ছে আর্মড পুলিশ

পার্বত্য চট্টগ্রামে সক্রিয় হচ্ছে আর্মড পুলিশ


দুর্নীতির দায়ে শ্রীঘরে সরকার দলীয় এমপি

দুর্নীতির দায়ে শ্রীঘরে সরকার দলীয় এমপি


বিএনপি নেতা ইশরাক গ্রেফতার

বিএনপি নেতা ইশরাক গ্রেফতার


এনামুল বাছিরের ৮ আর ডিআইজি মিজানের ৩ বছর কারাদণ্ড

এনামুল বাছিরের ৮ আর ডিআইজি মিজানের ৩ বছর কারাদণ্ড


মেজর সিনহা হত্যায় প্রদীপ ও লিয়াকতের মৃত্যুদণ্ড

মেজর সিনহা হত্যায় প্রদীপ ও লিয়াকতের মৃত্যুদণ্ড


নির্বাচনী সহিংসতায় ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যু

নির্বাচনী সহিংসতায় ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যু


নটরডেম ছাত্রের মৃত্যু: তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন ডিএসসিসির

নটরডেম ছাত্রের মৃত্যু: তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন ডিএসসিসির