Sunday, February 26th, 2017
সন্ত্রাসী দলের সঙ্গে কিসের আলোচনা
February 26th, 2017 at 9:52 pm
সন্ত্রাসী দলের সঙ্গে কিসের আলোচনা

ঢাকা: সরকারি দলের সদস্যরা আগামী সংসদ নির্বাচন বর্তমান সরকারের অধীনে হবে উল্লেখ করে বলেছেন, নির্বাচন নিয়ে সন্ত্রসী দল বিএনপি বা কারো সঙ্গে কোনো আলোচনা হতে পারে না। রোববার রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকারি দলের সদস্যরা এ কথা বলেন।

তারা বলেন, পেট্রোল বোমা ছুঁড়ে যানবাহনে আগুন দিয়ে মানুষ হত্যাকারী সংগঠনের সঙ্গে কোনোরূপ আলোচনার প্রশ্নই আসে না। গত ২৪ জানুয়ারি চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর ধন্যবাদ প্রস্তাব উত্থাপন করলে হুইপ মাহাবুব আরা বেগম গিনি তা সমর্থন করেন।

গত ২২ জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদের চতুর্দশ অধিবেশন শুরুর দিন সংবিধান অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ সংসদে ভাষণ দেন।

রাষ্ট্রপতির ভাষণে আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর রোববার ২০তম দিনে সরকারি দলের শেখ ফজলুল করিম সেলিম, মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম বীরউত্তম, টিপু মুন্সি, মো. আব্দুল হাই, সামসুল হক চৌধুরী, মো. নবী নেওয়াজ, মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী, গোলাম রাব্বানী, বেগম উম্মে রাজিয়া কাজল ও জাতীয় পার্টির অ্যাডভোকেট জিয়াউল হক মৃধা আলোচনায় অংশ নেন।

আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকারি দলের সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম, গণতান্ত্রিক অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রেখে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে তিনি দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য দেশের মানুষের প্রতি আহবান জানান।

তিনি বলেন, রাষ্ট্রপতির ভাষণ সময়োপযোগী দিক-দর্শনমূলক। বিএনপি-জামায়াতের শাসনামলে দেশের অর্থনৈতিক মেরুদণ্ড ভেঙ্গে দেয়া হয়েছিল। সে সময় দেশে জঙ্গি পৃষ্ঠপোষকতা দিয়ে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছিল। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা করে আওয়ামী লীগের ২৫ জন নেতাকর্মীকে হত্যা করা হয়। ওই হামলায় যারা নেতৃত্ব দিয়েছিল তাদের পুরস্কৃত করে জজ মিয়া নাটক সাজানো হয়। ওই দিন আওয়ামী লীগ বিরোধী দলে ছিলো। তখন বিরোধী দলকে সংসদে কথা বলার সুযোগ দেয়া হয়নি।

বাংলা ভাই, শায়খ আব্দুর রহমান বিএনপির শিষ্য উল্লেখ করে তিনি বলেন, এরা অস্ত্রসহ পুলিশ প্রহরায় ডিসির কাছে স্মারকলিপি দেয়। এসব জঙ্গিরা এহেন কোনো অপকর্ম নেই যা তারা করেনি। অপারেশন ক্লিনহার্টের নামে বিএনপি-জামায়াত আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের উপর নির্যাতন চালিয়েছে। ৫৭ জনকে হত্যা করে। হত্যার বিষয়টি ইনডেমনিটি দেয়া হয়েছিল। আরেকটি হয়েছিল বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার রহিত করার জন্য জিয়াউর রহমান জারি করেছিলেন।

শেখ ফজলুল করিম সেলিম বলেন, সংবিধানে না থাকার পরও রাষ্ট্রপতি সার্চ কমিটির মাধ্যমে একটি শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন গঠন করেছেন। এই সিদ্ধান্তের ব্যাপারে কোনো কথা বলার সুযোগ নেই। তারপরও বিএনপি তা নিয়ে কথা বলছে। এই কমিশন অবশ্যই সুষ্ঠু নির্বাচন করতে সক্ষম। তারা আজিজ মার্কা বা সাদেক আলী মার্কা নির্বাচন করবে না। জিয়াউর রহমান হাঁ-না ভোটের মাধ্যমে নির্বাচন ব্যবস্থা ধ্বংস করে দিয়েছিলেন।

বিএনপি নেত্রীর নির্বাচনকালীন সরকারের দাবি সম্পর্কে তিনি বলেন, আগামী নির্বাচন অবশ্যই বর্তমান সরকারের এবং শেখ হাসিনার অধীনেই হবে। তিনি কিছু তথাকথিত সুশীল সমাজের লোককে তার দাবির পক্ষে কথা বলার জন্য নিয়োগ করেছেন। তাদের কোনো ষড়যন্ত্রই কাজে আসবে না। বিএনপি নাকে খত দিয়ে এই সরকারের অধীনেই নির্বাচনে আসতে হবে। ১৫ ফেব্রুয়ারি মার্কা নির্বাচন আর এই দেশে হবে না।

বিএনপিকে বর্জনের আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, বিএনপিকে একটি সন্ত্রাসী দল হিসেবে আখ্যায়িত করে কানাডা ফেডারেল আদালত সম্প্রতি রায় দিয়েছে। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বিএনপিকে বর্জন করা হয়েছে। দেশের মানুষের প্রতি আহবান আপনারাও এই সন্ত্রাসী সংগঠনকে বর্জন করুন।

তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়া এতিমের টাকা মেরে খেয়েছেন। আদালতে তার নামে মামলা হয়েছে। কিন্তু তিনি নানা অজুহাতে দিনের পর দিন আদালতে যান না। আইন তার নিজস্ব গতিতে চলবে। এদেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এতিমের টাকা মেরে তিনিও রেহাই পাবেন না।

সরকারি দলের সদস্য মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম বীরোত্তম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকল লোভ-লালসার উর্ধ্বে উঠে বাংলাদেশকে একটি উন্নত-সমৃদ্ধশালী দেশে পরিণত করার জন্য কাজ করে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে দেশের যোগাযোগ খাতসহ বিদ্যুৎ জ্বালানি, কৃষি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী খাতে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। আর এসব উন্নয়ন সম্ভব হয়েছে সুশাসন ও আইন-শৃংখলার উন্নয়ন।

নারী-শিশু নির্যাতনসহ বাল্যবিবাহ রোধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য তিনি সরকারের প্রতি আহবান জানান।

জাতীয় পার্টির সদস্য জিয়াউল হক মৃধা এরশাদের মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে বলেন, একটি পিস্তল রাখার দায়ে যদি একজন সাবেক রাষ্ট্রপতির বিরুদ্ধে মামলা হতে পারে তাহলে এতিমের টাকা আত্মসাৎ মামলায় কেন সাজা দেয়া হবে না।

তিনি গ্যাস ও বিদ্যুতের বর্ধিত দাম প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে দেশের সকল শিক্ষা ব্যবস্থাকে সরকারিকরণের আহবান জানান।

গ্রন্থনা ও সম্পাদনা: জাহিদ


সর্বশেষ

আরও খবর

টানা তৃতীয়বারের মতো নির্বাচিত হলেন আইভী

টানা তৃতীয়বারের মতো নির্বাচিত হলেন আইভী


অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখে বাস চলার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন

অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখে বাস চলার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন


আগুনে পুড়ল রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ১২০০ ঘর

আগুনে পুড়ল রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ১২০০ ঘর


এবারের বিজয় দিবসে দেশবাসীকে শপথ পড়াবেন প্রধানমন্ত্রী

এবারের বিজয় দিবসে দেশবাসীকে শপথ পড়াবেন প্রধানমন্ত্রী


কমলো এলপিজির দাম

কমলো এলপিজির দাম


উন্নয়নশীল দেশ নিয়ে খুশি না হয়ে, উন্নত দেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

উন্নয়নশীল দেশ নিয়ে খুশি না হয়ে, উন্নত দেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির


জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম মারা গেছেন

জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম মারা গেছেন


ডিআরইউর নতুন সভাপতি মিঠু, সাধারণ সম্পাদক হাসিব

ডিআরইউর নতুন সভাপতি মিঠু, সাধারণ সম্পাদক হাসিব


ওমিক্রন খুবই ঝুঁকিপূর্ণ; সবাইকে প্রস্তুত থাকার আহ্বান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

ওমিক্রন খুবই ঝুঁকিপূর্ণ; সবাইকে প্রস্তুত থাকার আহ্বান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার


নির্বাচনী সহিংসতায় ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যু

নির্বাচনী সহিংসতায় ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যু