Friday, August 5th, 2016
‘সন্ত্রাস দমনের নামে হয়রানি ডাবল সন্ত্রাস’
August 5th, 2016 at 6:16 pm
‘সন্ত্রাস দমনের নামে হয়রানি ডাবল সন্ত্রাস’

চট্টগ্রাম: সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনের নামে নিরীহ মানুষকে হয়রানী করাও সন্ত্রাস উল্লেখ করে প্রকৃত অপরাধীদের বিচারের আওতায় এনে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন হেফাজত ইসলাম বাংলাদেশের নেতারা।

শুক্রবার জুমার নামাজের পর হেফাজতের চট্টগ্রাম মহানগর কমিটি আয়োজিত সমাবেশে এ দাবি জানানো হয়। আন্দরকিল্লা জামে মসজিদের সামনে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, গুপ্তহত্যার প্রতিবাদ ও শিক্ষার সর্বস্তরে ইসলামী শিক্ষার দাবিতে এই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় হেফাজত মহাসচিব জুনায়েদ বাবুনগরী বলেন,  ‘নিরীহ মনুষকে অস্ত্র দিয়ে হত্যা করাই হচ্ছে সন্ত্রাস, এই কাজ যারা করবে তারাই সন্ত্রাসী, আমরা এই সন্ত্রাসের বিরোধী, সন্ত্রাসকে ইসলাম অপছন্দ করে কোনো সন্ত্রাসই ইসলাম সম্মত নয়, সন্ত্রাস দমনের নামে হয়রানি ডাবল সন্ত্রাস, সন্ত্রাস দমনের নামে ক্রস ফায়ার ত্রি-ডাবল সন্ত্রাস।’

তিনি বলেন, ‘খুতবা নিয়ন্ত্রণ করার কথা বলা হচ্ছে, খুৎবা নিয়ন্ত্রণ করার অর্থ হচ্ছে কোরআন হাদিস নিয়ন্ত্রণ করা, যদি কোরআন হাদিস নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করা হয় তাহলে এদেশের তৌহিদী জনতা বুকের তাজা রক্ত দিয়ে তা প্রতিহত করবে।’

আরো বক্তব্য রাখেন হেফাজতের যুগ্ন মহাসচিব মঈনদ্দীন রুহী, সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক ইসলামাবাদী। মিছিল পূর্ব  সমাবেশে হেফাজতে ইসলামের অন্য নেতারা তাদের বক্তেব্যে বলেন, প্রধানমন্ত্রী ইসলাম শিক্ষার গুরুত্ব উপলদ্ধি করতে পেরেছেন, কিন্তু সরকারের ইনু- নাহিদ- মেননের মতো ব্যক্তিদের রেখে প্রধানমন্ত্রী এসব বাস্তবায়ন করতে পারবেন না, এসব মন্ত্রীরা জঙ্গিবাদ- উগ্রবাদ উসকে দিচ্ছে, এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিলে জঙ্গিবাদ সাইজ হয়ে যাবে।

এসময় বক্তরা বর্তমান শিক্ষানীতিকে নাস্তিক্যবাদী শিক্ষানীতি উল্লেখ করে তা  অবিলম্বে বাতিলের দাবি জানান। সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। সমাবেশে বক্তারা নাস্তিক্যবাদের বিরুদ্ধে হেফাজতে ইসলামের সংগ্রাম চলবে উল্লেখ করে তাদের সংগঠন যেকোনো ধরনের সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে বলে জানান।

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/এসএন/এমআই/জাই


সর্বশেষ

আরও খবর

রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে জাতিসংঘের স্পষ্ট রোডম্যাপ চায় বাংলাদেশ

রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে জাতিসংঘের স্পষ্ট রোডম্যাপ চায় বাংলাদেশ


জুলাই থেকে গণটিকা কার্যক্রম শুরু করা হবে

জুলাই থেকে গণটিকা কার্যক্রম শুরু করা হবে


সিলেটে নিজ ঘর থেকে ২ সন্তানসহ মায়ের লাশ উদ্ধার

সিলেটে নিজ ঘর থেকে ২ সন্তানসহ মায়ের লাশ উদ্ধার


আবারও একদিনে পঞ্চাশের বেশি মৃত্যু, শনাক্ত তিন হাজারের বেশি

আবারও একদিনে পঞ্চাশের বেশি মৃত্যু, শনাক্ত তিন হাজারের বেশি


৩ জনের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর, এএসআই সৌমেনের নামে মামলা

৩ জনের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর, এএসআই সৌমেনের নামে মামলা


আইসিসির মে মাসের সেরা হলেন মুশফিক

আইসিসির মে মাসের সেরা হলেন মুশফিক


বঙ্গবন্ধু সেতুতে বাস-ট্রাক্টর সংঘর্ষে আগুন লেগে নিহত ২

বঙ্গবন্ধু সেতুতে বাস-ট্রাক্টর সংঘর্ষে আগুন লেগে নিহত ২


এবারের বাজেটে কোনো দুর্বলতা নেই দাবি অর্থমন্ত্রীর

এবারের বাজেটে কোনো দুর্বলতা নেই দাবি অর্থমন্ত্রীর


ছাগলকে জরিমানা করা সেই ইউএনও বদলি

ছাগলকে জরিমানা করা সেই ইউএনও বদলি


বসবাস অযোগ্য শহরের তালিকায় চতুর্থ ঢাকা

বসবাস অযোগ্য শহরের তালিকায় চতুর্থ ঢাকা