Monday, October 22nd, 2018
সভ্যতার সংকট!
October 22nd, 2018 at 8:38 pm
সভ্যতার সংকট!

এম আলিমুল হায়দার:

ইংরেজ কবি স্যামিউল টেইলর কোলরিজের ভাবশিষ্য জন কীটসের ‘ওড টু এ নাইটিঙ্গল’ কবিতাটি ছিল একটি নাইটিঙ্গল পাখির বহু ওপরে, উঁচু আকাশে উড়ে বেড়ানোর কথা। যে উচ্চতা থেকে মাটির কাছাকাছি দূঃখ, কষ্ট, বেদনা, কোনকিছুই আর চোখে পড়ে না। কীটসের নাইটিঙ্গলের চোখে পুরো পৃথিবীটা হয়ে ওঠে বিশাল দিগন্তজোড়া ক্যানভাসে আঁকা অসম্ভব সুন্দর একটা ছবি। কবিতার বাইরে, বাস্তবিক জীবনাচারে আমরা অন্যভাবে বলি, ‘মোটা দাগে’, কিংবা ‘From A Bird’s Eye View’। যেখান থেকে আমরা মাটির ওপর দাঁড়িয়ে থাকা হিংসা, কুটিলতা, হিংস্রতা অথবা কাঁদা ছোড়াছুড়ি দেখতে পাই না। হয়তোবা, একটা উন্নত মানসিকতার/মানবিকতার সমাজের উন্নত হয়ে উঠবার গল্পের বর্নণায় মাটির কাছাকাছি অনেক অনাকাঙ্খিত বিষয়, নন্দনতত্ত্বের উল্টো পথে হেঁটে চলা ঘটনাবলী এড়িয়ে যাই। অথচ, সময় এখন অন্যরকম। তথ্য প্রবাহের অবারিত হয়ে উঠবার সময়টিতে, সুক্ষ এই বিষয়গুলো, বাদ দেয়া সম্ভব হয় না। চোখে এসে ধরা দেয়। একটি সমাজের উন্নত হয়ে উঠবার গল্পটিতে নান্দনিকতার মৃত্যূ ঘটে।

সাম্প্রতিক সময়ে, একটি স্কাই চ্যানেলের টক’শোতে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টির প্রশ্নের জবাবে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের এক মন্তব্যকে ঘিরে শুরু হয়েছে বিতর্ক, অনাকাঙ্খিত কাঁদা ছোড়াছুড়ি। ফলশ্রুতিতে, শুরু হওয়া উত্তপ্ত সামাজিক, রাজনৈতিক হাওয়ার প্রবল গতিতে একটা ঝোড়ো বাতাসের রূপ নেবার সম্ভাবনা। এসবই আমাদের সমসাময়িক জীবনে কারুর জন্য একটা আরামপ্রদ কালক্ষেপনের বিষয়বস্তুও (Popular Soap Opera) বটে। আমরা অনেকেই ভুলে যাচ্ছি, সঠিক শব্দের ব্যবহার আর পেশাগত ভদ্রতা-ভব্যতা।

একজন সাধারণ নাগরিক হিসেবে অন্যসব নাগরিকের মত, সামাজিক মাধ্যমে প্রকাশিত, বিশিষ্ট আইনজীবী জনাব মইনুলের স্বাধীণতা বিরোধী ছাত্র সংগঠন শিবিরের একটি জনসভায় উপস্থিত হয়ে প্রধাণ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেয়ার ভিডিওটি আমাকেও বিষ্মিত ও ক্ষুব্ধ করে বৈকি। বাঙালীর, বাংলাদেশের স্বাধীকার আন্দোলনের ইতিহাসের ঘটনাবলীতে, হোসেন শহীদ সোহরোয়ার্দী, মওলানা ভাসানী এবং বঙ্গবন্ধুর সঙ্গী সর্বজন শ্রদ্ধেয় সাংবাদিক মানিক মিয়ার Legacy-র সাথে তাঁর এই জেষ্ঠ্য পুত্রের এহেন কর্মকান্ডকে মেলানো কষ্টদায়ক। উপরন্তু, সম্প্রতি সরকার বিরোধী গঠিত কথিত নতুন জোটটিতে, বিশ দলীয় জোটের নেতৃত্বে থাকা বিএনপির যুক্ত হওয়া, আর তাতে “জামাত সঙ্গ ত্যাগ” করে আসবার প্রদত্ত পূর্বশর্তকে বাদ দেয়া (Comprising) প্রকৃত দেশপ্রেমের কতটুকু প্রতিফলন ঘটিয়েছে, সেটা সন্দেহের অবকাশ রাখে বৈকি। টক’শোর এই আলোচনাটিতে, সাংবাদিক ভাট্টির এই প্রসঙ্গে ব্যারিস্টার মইনুলকে করা প্রশ্নটি, তাঁর এই ৭১ বিরোধী সংগঠনের সংশ্লিষ্টতার বিষয়কেই ঘিরে ছিল, সেটা নিশ্চিতভাবেই বোঝা যায়। বাকীটা আমরা সবাই দেখেছি। আইন পেশায় জ্যেষ্ঠ একজন ব্যক্তিত্বও ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেন, ভাষা ব্যবহারের ক্ষেত্রে তিনিও চকিতে হয়ে ওঠেন অসংযমী, সমাজের একটি অংশও হয়ে উঠেছে উত্তপ্ত। কাঁদা ছোড়াছুড়ির এই প্রতিযোগীতায়, ৭১ বিরোধীরাও নেমে পরেছে সংশ্লিষ্টদের অতীত ব্যক্তি জীবনের ইতিহাস নির্ভর গল্প নিয়ে। “চরিত্র” শব্দটি নতুন আর বিচিত্র অর্থ নিয়ে শাখা প্রশাখা ব্যপ্তিতে ব্যস্ত।

তথ্য প্রবাহের অবারিত হয়ে উঠবার সময়টিতে, কাদা ছোড়াছুড়িতে ব্যস্ত জনপদ ভুলে গ্যাছে শালীনতা বোধ। ভুলে কী গেছে পরবর্তী প্রজন্মের ‘সুস্থ আর মানবিক মানুষ’ হিসেবে গড়ে উঠবার প্রয়োজনীয়তা!

এম আলিমুল হায়দার:


সর্বশেষ

আরও খবর

হয়ত শাকিব অপুও থাকবে না

হয়ত শাকিব অপুও থাকবে না


পাঠ প্রতিক্রিয়া: ফরিদপুরে বিতর্ক চর্চা

পাঠ প্রতিক্রিয়া: ফরিদপুরে বিতর্ক চর্চা


একটি আত্মহত্যা ও কিছু প্রশ্ন

একটি আত্মহত্যা ও কিছু প্রশ্ন


অপরাজিতা মেয়ের পরাজয়ের গল্প

অপরাজিতা মেয়ের পরাজয়ের গল্প


বাঙালির দ্বি-মুখী লড়াই: হিন্দুত্বের সাথে এবং মুসলমানিত্বের সাথে

বাঙালির দ্বি-মুখী লড়াই: হিন্দুত্বের সাথে এবং মুসলমানিত্বের সাথে


দ্রোহের গুঞ্জন: সংস্কৃতি ও রাজনীতি

দ্রোহের গুঞ্জন: সংস্কৃতি ও রাজনীতি


কেউ কষ্টের কথাগুলি বলতে চায় না

কেউ কষ্টের কথাগুলি বলতে চায় না


আমগো যা কওয়ার ছিলো; তাই কইতাছে বাংলাদেশ: সাঈদী

আমগো যা কওয়ার ছিলো; তাই কইতাছে বাংলাদেশ: সাঈদী


শ্রমিক আর সংবাদকর্মী: সবাই আজ শোষিত

শ্রমিক আর সংবাদকর্মী: সবাই আজ শোষিত


বাজিলো কাহারো বীণা

বাজিলো কাহারো বীণা