Sunday, October 16th, 2016
সময় চাইলেন সালাউদ্দিন
October 16th, 2016 at 7:10 pm
সময় চাইলেন সালাউদ্দিন

ঢাকা: এএফসি এশিয়ান কাপ ফুটবলের বাছাই পর্বের প্লে-অফ ম্যাচে ভুটানের কাছে হারের পর এতোদিন লজ্জায় ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) ভবনে আসেননি সভাপতি কাজী মোহাম্মদ সালাউদ্দিন। নিজেকে গুঁটিয়ে রেখেছিলেন, থেকেছেন আড়ালে। নিজের বাড়িতেই নিজেকে বন্দি রেখেছিলেন জাতীয় দলের সাবেক এ অধিনায়ক। জাতীয় দলের ব্যর্থতা তাকে হতাশ করেছে। লোক লজ্জার ভয়ে মিডিয়ার সামনেও আসেননি। অবশেষে প্রকাশ্যে এসেছেন বাফুফে বস। রোববার দুপুরে তিনি বাফুফে ভবনে এসেছেন। হাজির হয়েছিলেন মিডিয়ার সামনেও। অনানুষ্ঠানিক এক সংবাদ সম্মেলনও করেছেন। জানিয়েছেন নিজের পরিকল্পনা আর দেশের ফুটবল নিয়ে তার ভাবনার কথা।

পাহাড় ঘেরা ছোট্ট দেশ ভুটানের কাছে ৩-১ গোলের হারের কারণে দেশের ফুটবলের অপূরনীয় ক্ষতি হয়েছে। এই হারের কারণে আগামি তিন বছর বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা কিংবা এশিয়ান ফুটবলের অভিবাবক এএফসির কোন টুর্নামেন্টেই অংশ নিতে পারবে না বাংলাদেশ। আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলতে পারবে, তবে সেটা শুধুই প্রীতি ম্যাচ।

দেশের ফুটবলে এমন ঘোর দুঃসময় এর আগে কখনো আসেনি। বাফুফের সভাপতি হওয়ার আগে সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন কাজী মোহাম্মদ সালাউদ্দিন। তখনকার কমিটি ফুটবল চালাতে ব্যর্থ হয়েছিল- এমন অভিযোগ তুলে ঐ কমিটি থেকে পদত্যাগ করেছিলেন তিনি। অথচ নিজের আমলে দেশের ফুটবলের এমন দূরাবস্থা হবে- সেটা হয়তো কল্পনাও করেননি সালাউদ্দিন। তাই বিষন্নতায় আচ্ছন্ন হয়ে উঠা বাফুফে বস গত পাঁচ দিন পা রাখেননি বাফুফে ভবনে। আজ বাফুফে ভবনে পা রেখেই জাতীয় দলের এমন ব্যর্থতার জন্য দেশের মানুষের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেন। একই সাথে প্রকাশ করলেন আগামি তিন বছরের ‘রোড ম্যাপ’।

দেশের ফুটবল আকাশটা ঢেকে গেছে কালো মেঘে। এ কালো মেঘ সরানোটাই এখন বড় দায়িত্ব হয়ে গেছে বাফুফের কর্তাদের কাছে। সেটা নিয়েই ভাবছেন কাজী মোহাম্মদ সালাউদ্দিন-সালাম মুর্শেদীরা। বলেন, ‘দেশের ফুটবলের জন্য এটা খুবই খারাপ সময়। আর আমার লাইফের। সবচেয়ে খারাপ দিন এটা। এ ভুল থেকেই শিক্ষা নিয়ে আমাদের সামনের দিকে এগুতে হবে। আমাদের এখন তৃনমূলে নজর দেয়ার সময় এসেছে। টেকনিক্যাল ডিরেক্টর পল স্মলি একটা গাইড লাইন দিয়েছেন। আগামি তিন বছরের এ গাইড লাইনটি আগামি ডিসেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহের মধ্যেই চূড়ান্ত হয়ে যাবে। আশা করি নতুন বছরের প্রথম মাস থেকেই আমরা আমাদের কাজ শুরু করতে পারবো।’

তৃনমূল পর্যায়ের ফুটবল একটি দেশের ফুটবলের উন্নতির মূল চাবি-কাঠি। কিন্তু এতোদিন বাফুফে সে কাজটি করেনি। তবে অন্তিম মুহুর্তে এসে কাজী মোহাম্মদ সালাউদ্দিন অনুধাবন করেছেন তৃনমূলের প্রয়োজনীতা। তাই তিন বছরের এ প্রোগ্রামে ইয়ূথ ডেভেলপম্যান্ট ও স্কুল ফুটবলের দিকেই নজর বেশী দেবেন বলে জানালেন, ‘এখন আমাদের পেছনে তাকানোর কোনো সময় নেই। সামনের দিকে এগুতে হবে। এ জন্য তৃনমূলে কাজ করতে হবে। আগামি বছরই আমাকে ইয়ূথ ন্যাশনাল লিগ, স্কুল ফুটবল, সোহরাওয়ার্দী কাপ, শের-ই-বাংলা কাপ ফুটবল চালু করতে হবে। এ জন্য অর্থ দরকার। সে অর্থের জোগান দিয়েই আমি মাঠে নেমে পড়বো।’

জাতীয় দলের ব্যর্থতার কারনে প্রতিদিনই বাফুফে ভবনে সামনে বিভিন্ন সংগঠনের ব্যানারে মানব বন্ধন, মিছিল হচ্ছে। সেখান থেকে সালাউদ্দিনের পদত্যাগ দাবী করা হচ্ছে। বিভিন্ন ব্যানার-ফেস্টুন নিয়ে অশ্লীল স্লোগানও দেয়া হচ্ছে। আজও এর ব্যতিক্রম হয়নি। ঢাকা ফুটবল সমর্থক গোষ্টি ও ফুটবল সাপোটার্স ফোরামের ব্যানারে শ’খানেক মানুষ মিছিল করেছেন বাফুফের মূল ফটকের সামনে দাঁড়িয়ে।

এ ধরনের মিছিল ও কু-রুচীপূর্ণ স্লোগানের পেছনে একটি কু-চক্রী মহল কাজ করছে বলে দাবী করেন সালাউদ্দিন, ‘এটা নাটক করা হচ্ছে। নির্বাচনে যে সব প্রার্থীরা ১০-২০ ভোট পেয়েছে, তারা এর পেছনে ইন্ধন দিচ্ছে। নির্বাচনী রেশটা এখানে টেনে আনা হচ্ছে। এটা দিবালোকের মতো পরিস্কার কারা কিংবা কোন শ্রেনীর মানুষগুলো এসব করাচ্ছে। ব্রাজিলও কিন্তু নিজেদের মাটিতে ৭ গোল খেয়েছে। তাই বলে এমনটা হয়নি। প্রতিটি দেশেরই একটি দুঃসময় আসে এবং সেখান থেকে উৎরে যায়। আমার বিশ্বাস আগামি তিন বছরের মধ্যেও আমরাও আমাদের ফুটবলের এ সংকটময় মুহুর্ত থেকে পরিত্রান পাবো।’

ক্লাবের হয়ে লিগে গোল করলেও জাতীয় দলের হয়ে গোল করতে পারছেন না ফরোয়ার্ডরা। এর প্রধান কারন ফুটবলারদের ফিটনেস। জাতীয় দলের ক্যাম্প শুরু হওয়ার পনের দিন আগে দল চাইলেও পায় না বাফুফে। ক্লাবগুলোর কাছে এক প্রকার বন্দি বাফুফে। তবে ভবিষ্যতে কোন ক্লাব এমন দু:সাহস দেখালে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নেয়ার কথা জানিয়ে কাজী মোহাম্মদ সালাউদ্দিন বলেন, ‘আমরা টিম চাইলে ক্লাবগুলো দিতে চায় না। যখন প্লেয়ার ছাড়ে তখন ফিটনেস ঘাটতি আর পূরণ করা সম্ভব হয়ে উঠে না। মাঠে এর প্রভাব পড়ে। তবে ভবিষ্যতে কোন ক্লাব যদি বাফুফের চাওয়া মাত্র প্লেয়ার ছাড়তে রাজী না হয়, তাহলে ঐ ক্লাবের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। সেটা যতো শক্তিশালী ক্লাবই হোক না। এর জন্য যদি আমাকে জেল-ফাঁস বরণ করতে হয়, সেটা করতেও আমি রাজী আছি।’

বাফুফে’র সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদী বলেন, ‘আমাদের পাইপ লাইন নাই। যার কারনে ভবিষ্যত তারকা ফুটবলার বেড়িয়ে আসছে না। জাতীয় দলের জন্যও তরুনদের খুঁজে পাচ্ছি না। আমাদের এখন সেদিকেই নজর দিতে হবে। ইয়ূথ একাডেমি আর ডেভেলপম্যান্ট প্রোগ্রাম প্রধান্য পাবে এবার। আশাকরি আমাদের এ দু:সময় কাটিয়ে উঠতে পারবো। এজন্য সবার সহযোগিতা প্রয়োজন।’

প্রতিবেদন: কবির, সম্পাদনা: তুসা


সর্বশেষ

আরও খবর

করোনায় মৃত্যু ও শনাক্তের সংখ্যা বেড়েছে

করোনায় মৃত্যু ও শনাক্তের সংখ্যা বেড়েছে


গণপরিবহন আরও কিছু দিন বন্ধ রাখার পক্ষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী

গণপরিবহন আরও কিছু দিন বন্ধ রাখার পক্ষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী


২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত ৩৬৩, মৃত্যু ২৫

২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত ৩৬৩, মৃত্যু ২৫


২৩ মে পর্যন্ত লকডাউন বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি

২৩ মে পর্যন্ত লকডাউন বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি


গাজায় হামাস প্রধানের বাড়িতে ইসরায়েলের বোমা হামলা

গাজায় হামাস প্রধানের বাড়িতে ইসরায়েলের বোমা হামলা


ঈদের ছুটি শেষে করোনা ঝুঁকি নিয়ে ঢাকায় ফিরছে মানুষ

ঈদের ছুটি শেষে করোনা ঝুঁকি নিয়ে ঢাকায় ফিরছে মানুষ


সারাদেশে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপন, করোনামুক্তিতে বিশেষ দোয়া

সারাদেশে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপন, করোনামুক্তিতে বিশেষ দোয়া


আতঙ্কিত না হয়ে স্বাস্থ্যবিধি মানার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

আতঙ্কিত না হয়ে স্বাস্থ্যবিধি মানার আহ্বান রাষ্ট্রপতির


স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ উদযাপনের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ উদযাপনের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর


বঙ্গবন্ধু সেতু দিয়ে একদিনে সর্বোচ্চ টোল আদায়ের রেকর্ড

বঙ্গবন্ধু সেতু দিয়ে একদিনে সর্বোচ্চ টোল আদায়ের রেকর্ড