Sunday, July 3rd, 2022
সরকারি স্থাপনায় নাশকতার পরিকল্পনা ছিল জঙ্গিদের
March 21st, 2017 at 4:10 pm
সরকারি স্থাপনায় নাশকতার পরিকল্পনা ছিল জঙ্গিদের

ঢাকা: দেশের বিভিন্ন স্থানে সরকারি স্থাপনায় নাশকতার পরিকল্পনা ছিল র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ানের (র‌্যাব) হাতে গ্রেফতার হওয়া পাঁচ জঙ্গির। তাদের মধ্যে দুইজন প্রকৌশলী।

গ্রেফতারকৃতরা সবাই নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জেএমবির সারওয়ার-তামিম গ্রুপের একটি সেলের সদস্য। সেলটির সদস্য সংখ্যা ১০/১২ জন, যাদের অধিকাংশই কাফরুল ও মিরপুর এলাকার বাসিন্দা।

মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজারের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশন) কর্নেল মো. আনোয়ার লতিফ খান এসব তথ্য জানান।

এর আগে সোমবার রাতে রাজধানীর বাড্ডা ও যাত্রাবাড়ী এলাকায় অভিযান চালিয়ে জঙ্গি সন্দেহে ওই পাঁচজনকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-১০। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- প্রকৌশলী অলিউজ্জামান ওরফে অলি (২৮), প্রকৌশলী আনোয়ারুল আলম (২৯), সালেহ আহাম্মেদ শীষ (২২), আবুল কাশেম (২৭) এবং মোহন মহসিন (২০)।

গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে উগ্রবাদী বই, খেলনা স্নাইপার ও পিস্তল, বোমা তৈরির সরঞ্জাম, নগদ ৩ লাখ ১৪ হাজার টাকাসহ অন্যান্য সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়।

কর্নেল আনোয়ার লতিফ খান জানান, সারওয়ার-তামিম গ্রুপের এই সেলটির সদস্যরা প্রায় সোয়া এক বছর যাবৎ একত্রিত হয়েছে। এই সেলের নিয়ন্ত্রক অলিউজ্জামান ওরফে অলি। সে বুয়েট থেকে ২০১২ সালে ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং পাস করে। বর্তমানে সে একটি বহুজাতিক কোম্পানির ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কর্মরত রয়েছে। বুয়েটে অধ্যায়নকালীন তার ধর্মীয় বিষয়ের উপর আগ্রহের সৃষ্টি হয়। সে বিভিন্ন ধর্মীয় বই-পুস্তক, লিফলেট ও অনলাইনে বিভিন্ন সাইটের মাধ্যমে ধর্মীয় উগ্রবাদী বিষয়ে আকৃষ্ট হয়। ২০১৫ সালের শেষে সে সারোয়ার-তামিম গ্রুপে অন্তর্ভুক্ত হয়।

র‍্যাবের এডিজি আরো জানান, গ্রেফতারকৃত আরেক জন প্রকৌশলীর নাম আনোয়ারুল আলম। সে অলির সঙ্গে একই সময়ে বুয়েট থেকে ক্যামিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং সম্পন্ন করেছে। বর্তমানে সে একটি কোচিং সেন্টারে শিক্ষকতা করছে। অলির মাধ্যমেই আনোয়ার সারোয়ার-তামিম গ্রুপে যোগ দেয়। সে বোমা বানাতে পারদর্শী।

তিনি জানান, গ্রেফতারকৃত জঙ্গিদের বিভিন্ন সরকারি স্থাপনায় নাশকতার পরিকল্পনা ছিল। নাশকতা কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য মনির এবং সালমান ওরফে আব্দুল্লাহকে দায়িত্ব দেয়া হয়। গোয়েন্দা নজরদারির ফলে নাশকতা ঘটানোর আগেই তাদের গ্রেফতার করা সম্ভব হয়।

উল্লেখ্য, নব্য জেএমবির সমন্বয়ক ছিলেন তামিম চৌধুরী। নারায়ণগঞ্জে জঙ্গি বিরোধী অভিযানে নিহত হন তিনি। অপরদিকে সরোয়ার জাহান নব্য জেএমবির অর্থের যোগানদাতা ছিলেন। আশুলিয়ায় র‌্যাবের অভিযানের সময় পালাতে গিয়ে ভবনের ছাদ থেকে পড়ে মারা যান তিনি।

প্রতিবেদন: প্রীতম সাহা সুদীপ, সম্পাদনা: জাহিদ


সর্বশেষ

আরও খবর

সংসদে ৬,৭৮,০৬৪ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব

সংসদে ৬,৭৮,০৬৪ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব


আ’লীগ নেতা বিএম ডিপোর একক মালিক নন

আ’লীগ নেতা বিএম ডিপোর একক মালিক নন


চীনের সাথে বাণিজ্য ঘাটতি কমাতে চায় বাংলাদেশ

চীনের সাথে বাণিজ্য ঘাটতি কমাতে চায় বাংলাদেশ


ভোজ্যতেল ও খাদ্য নিয়ে যা ভাবছে সরকার

ভোজ্যতেল ও খাদ্য নিয়ে যা ভাবছে সরকার


তৎপর মন্ত্রীগণ, সীতাকুণ্ডে থামেনি দহন

তৎপর মন্ত্রীগণ, সীতাকুণ্ডে থামেনি দহন


অত আগুন, এত মৃত্যু, দায় কার?

অত আগুন, এত মৃত্যু, দায় কার?


যে গল্প এক অদম্য যোদ্ধার

যে গল্প এক অদম্য যোদ্ধার


আফগান ও ভারতীয় অনুপ্রবেশ: মে মাসে আটক ১০

আফগান ও ভারতীয় অনুপ্রবেশ: মে মাসে আটক ১০


সীমান্ত কাঁটাতারে বিদ্যুৎ: আলোচনায় বিজিবি-বিজিপি

সীমান্ত কাঁটাতারে বিদ্যুৎ: আলোচনায় বিজিবি-বিজিপি


চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে কঠোর সরকার

চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে কঠোর সরকার