Monday, September 25th, 2017
সিরিয়ায় মার্কিন বিমান হামলায় নিহত ৮৪
September 25th, 2017 at 7:51 pm
সিরিয়ায় মার্কিন বিমান হামলায় নিহত ৮৪

দামেস্ক: সিরিয়ায় জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসের শক্ত ঘাঁটি রাকার আশেপাশে গত মার্চ মাসে মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের বিমান হামলায় অন্তত ৮৪ জন বেসামরিক নাগরিক প্রাণ হারিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ(এইচআরডব্লিউ)।

সোমবার নিউইয়র্কভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থাটি এই অভিযোগ করে। নিহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজন শিশু ছিল বলেও দাবি সংস্থাটির।

এইচআরডব্লিউ’র প্রতিবেদনে বলা হয়, মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোট গত মার্চে দুটি স্থানে বিমান হামলা করে। এদের মধ্যে একটি ছিল মানসুরাহ শহরের পরিত্যক্ত একটি স্কুল। ওই স্কুলে বাস্তুচ্যুত কয়েকটি পরিবার আশ্রয় নিয়েছিল। এছাড়া তাবকা শহরের একটি মার্কেট এবং বেকারিতেও বিমান হামলা করা হয়।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা এইচআরডব্লিউকে জানিয়েছেন, বিমান হামলার স্থলে আইএস যোদ্ধারা থাকলেও সেখানে বিপুল সংখ্যক বেসামরিক নাগরিকও ছিলেন।

এইচআরডব্লিউ’র ডেপুটি ইমার্জেন্সি ডিরেক্টর ওলে সোলভাং বলেন, ‘এই হামলায় শিশুসহ ৮৪ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হন।এসব মানুষ ঘরবাড়ি হারিয়ে একটি স্কুলে আশ্রয় নিয়েছিল। এদের মধ্যে অনেকেই বেকারি থেকে রুটি কেনার জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে ছিল।’

তিনি অভিযোগ করে বলেন, মার্কিন জোট সেনারা যদি বেসামরিক নাগরিকদের উপস্থিতির ব্যাপারে অবগত না থাকে, তাহলে তারা গোয়েন্দা তথ্য যাচাই করার জন্য আরো সময় নিতে পারতো।

এইচআরডব্লিউ জানায়, বিমান হামলা দুটির মধ্যে প্রথমটি ২০ মার্চ চালানো হয়। মানসুরাহ শহরের বাদিয়া স্কুলের ওই হামলায় ১৬ শিশুসহ ৪০ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হন।

২২ মার্চ দ্বিতীয় বিমান হামলা করা হয় তাবকা শহরের একটি মার্কেট এবং বেকারিতে। এতে ১৪ শিশুসহ ৪৪ জন নিরস্ত্র মানুষ প্রাণ হারান।

মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোট বাহিনী ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বর থেকে আইএসবিরোধী গ্রুপ সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্স(এসডিএফ) কে সাহায্য করার জন্য সিরিয়ায় বিমান হামলা করে আসছে।

মার্কিন জোট জানায়, যেকোন অভিযানে বেসামরিক নাগরিকদের হতাহতের ঘটনা এড়ানোর জন্য তারা সম্ভাব্য সব সতর্কতা অবলম্বন করে থাকে।

চলতি বছরের আগস্টে জোটের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ২০১৪ সাল থেকে ইরাক এবং সিরিয়ায় তাদের পরিচালিত বিমান হামলায় অন্তত ৬২৪ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হন।

তবে মানবাধিকার সংস্থাগুলি এই তথ্য মানতে নারাজ। তাদের ধারণা, মৃতের সংখ্যা আরো অনেক বেশি হবে।

২০১১ সালের মার্চে সিরিয়ার সরকার বিরোধী যে আন্দোলনের সূত্রপাত ঘটেছিল, তাই পরবর্তীতে গৃহযুদ্ধে রূপ নেয়। চলমান এই যুদ্ধে ৩ লাখ ৩০ হাজারের বেশি মানুষ প্রাণ হারান।সূত্র: এনডিটিভি

গ্রন্থনা ও সম্পাদনা: ফারহানা করিম


সর্বশেষ

আরও খবর

করোনা সংক্রমন ঠেকাতে ব্রিটিশ সরকারের নতুন আইন লঙ্ঘন করলে সর্বোচ্চ  ১০ হাজার পাউন্ড জরমিানা

করোনা সংক্রমন ঠেকাতে ব্রিটিশ সরকারের নতুন আইন লঙ্ঘন করলে সর্বোচ্চ ১০ হাজার পাউন্ড জরমিানা


সরকারি কেনাকাটায় অস্বাভাবিক দাম নিয়ন্ত্রনে ৬ নির্দেশনা

সরকারি কেনাকাটায় অস্বাভাবিক দাম নিয়ন্ত্রনে ৬ নির্দেশনা


আপাতত লকডাউনের কথা ভাবছে না সরকার

আপাতত লকডাউনের কথা ভাবছে না সরকার


দেশে করোনায় আরও ৪০ জনের মৃত্যু

দেশে করোনায় আরও ৪০ জনের মৃত্যু


দ্বিতীয় ধাপে করোনা সংক্রমণ রোধে প্রস্তুতির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

দ্বিতীয় ধাপে করোনা সংক্রমণ রোধে প্রস্তুতির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর


প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় স্কুলছাত্রীকে হত্যা

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় স্কুলছাত্রীকে হত্যা


ইভান শাহরিয়ার সোহাগ ৭ দিনের রিমান্ডে

ইভান শাহরিয়ার সোহাগ ৭ দিনের রিমান্ডে


ভিপি নুরের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা

ভিপি নুরের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা


ইউএনও ওয়াহিদার ওপর হামলার দায় স্বীকার রবিউলের

ইউএনও ওয়াহিদার ওপর হামলার দায় স্বীকার রবিউলের


পেঁয়াজে আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার

পেঁয়াজে আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার