Saturday, January 25th, 2020
সীমান্তে হত্যার মিছিল, মন্ত্রীদের কন্ঠে সাফাইয়ের সুর
January 25th, 2020 at 7:09 pm
২০২০ সালের প্রথম ২৩ দিনেই অন্ততঃ ১৫ জন বাংলাদেশি নাগরিক বিএসএফের গুলি ও নির্যাতনে নিহত হয়েছেন
সীমান্তে হত্যার মিছিল, মন্ত্রীদের কন্ঠে সাফাইয়ের সুর

বিশেষ প্রতিনিধি, ঢাকাঃ

ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী- বিএসএফ-এর গুলিতে ও নির্যাতনে বাংলাদেশি নাগরিক হত্যা আশংকাজনক আকার নিয়েছে। ২০২০ সালের প্রথম ২৩ দিনেই অন্ততঃ ১৫ জন বাংলাদেশি নাগরিক বিএসএফের গুলি ও নির্যাতনে নিহত হয়েছেন।

বিবিসির তথ্য অনুযায়ী, ২০১৮ সালে বছরজুড়ে সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে নিহত হয়েছিলেন ১৪ জন। সেখানে ২০২০ এর প্রথম মাসেই ২০১৮ এর সারা বছরের সীমান্ত হত্যার সংখ্যার চেয়ে বেশি সংখ্যক বাংলাদেশিকে হত্যা করেছে বিএসএফ। ২০১৯ সালে ভারতের সীমান্ত রক্ষা বাহিনী- বিএসএফ-এর হাতে প্রাণ হারিয়েছেন ৩৮ জন বাংলাদেশি। এক বছরের ব্যবধানে প্রাণহানির সংখ্যা বেড়ে প্রায় তিনগুণ দাঁড়ায়।

সবশেষ গত ২৫ থেকে ২৯ ডিসেম্বর ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে অনুষ্ঠিত হয় বিজিবি-বিএসএফের মহাপরিচালক পর্যায়ের বৈঠক। সেখানে সীমান্ত হত্যা বন্ধে বাংলাদেশকে আশ্বাসও দেয় বিএসএফ। তারপরও বন্ধ হয়নি সীমান্ত হত্যা। বিজিবির পক্ষ থেকে একের পর এক প্রতিবাদ ও পতাকা বৈঠকের পরও হত্যা বন্ধ না হওয়ায় ক্ষোভ ও আতঙ্ক বাড়ছে সীমান্ত এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যে।

বিজিবি ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান বলছে, চলতি বছরের ২৩ দিনে বিএসএফের হাতে নিহত হয়েছেন অন্তত ১৫ জন। এরমধ্যে শুধু চাঁপাইনবাবগঞ্জে নিহত হয়েছেন ৬ জন, নওগাঁয় ৩, যশোরে একজন এবং রংপুর বিভাগের বিভিন্ন সীমান্তেও ঘটেছে পাঁচটি হত্যাকাণ্ড। এমন পরিস্থিতিতে আতঙ্ক বাড়ছে সীমান্ত এলাকার বাসিন্দাদের।

অন্যদিকে, গত এক বছরে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে দেশটির সীমান্ত রক্ষা বাহিনী বিএসএফ’র হাতে বাংলাদেশিদের প্রাণহানির সংখ্যা তিন গুন বেড়েছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশের আইন ও সালিশ কেন্দ্র। বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় কয়েকটি সংবাদপত্রের তথ্যের ভিত্তিতে এই প্রতিবেদন তৈরি করে সংস্থাটি। ওই প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, ২০১৯ সালে ভারতের সীমান্ত রক্ষা বাহিনী- বিএসএফ’র হাতে প্রাণ হারিয়েছে ৩৮ জন বাংলাদেশি। এর মধ্যে ৩৩ জন গুলিতে প্রাণ হারিয়েছে এবং বাকি ৫ জনকে নির্যাতন করে মারা হয়েছে।

এই পরিস্থিতিতে, সীমান্তে বাংলাদেশি হত্যার প্রতিবাদে ও হত্যা বন্ধের দাবিতে যখন ঢাকা বিশ্বাবিদ্যালয়সহ বিভিন্ন স্থানে নাগরিক বিক্ষোভ হতে দেখা যাচ্ছে, বিভিন্ন ব্যাক্তি ও সংগঠন নিন্দা জানানোর পাশাপাশি কর্মসূচীও পালন করছে, ঠিক তখনই বাংলাদেশের মন্ত্রীরা কথা বলছেন সম্পূর্ণ ভিন্ন সুরে। এসব হত্যার নিন্দা বা হত্যা বন্ধে উদ্বেগ জানানোর দিকে না গিয়ে, মন্ত্রীরা অপরাধী হিসেবে আঙ্গুল তুলেছেন বিএসএফের হাতে নিহত বাংলাদেশিদের দিকেই। দু’সপ্তাহ আগে (১২ জানুয়ারি) পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন সীমান্তে বিএসএফের হাতে হত্যার ঘটনা বেড়ে যাওয়ায় উদ্বেগ জানালেও, এবার অন্য দু’জন মন্ত্রীর ভাষা সম্পূর্ণই ভিন্ন। যদিও, এই দুই সপ্তাহে সীমান্তে বাংলাদেশী নাগরিকদের মৃত্যুর মিছিল আরও দীর্ঘ হয়েছে।

ভারতে অনুপ্রবেশ করে গরু আনতে গিয়ে কেউ সীমান্তে নিহত হলে সরকার কোনো দায়িত্ব নেবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। শনিবার (২৫ জানুয়ারি) দুপুরে রাজশাহীর পবা উপজেলার দামকুড়াহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের হীরক জয়ন্তী অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এমন কথা বলেন। খাদ্যমন্ত্রীর নির্বাচনী এলাকাতেই এমন ঘটনা ঘটলেও, মন্ত্রী এসব মৃত্যুর জন্য নিহতদেরই দুষলেন।

গত ২২ জানুয়ারি খাদ্যমন্ত্রীর নির্বাচনী এলাকা পোরশা সীমান্তে ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গুলিতে তিন বাংলাদেশি নিহত প্রসঙ্গে সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, “আমরা গরুর বিট খুলতে দেবো না। এজন্য উপজেলা ও জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটি এবং বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) রেজুলেশন করা হয়েছে। এরপরও কেউ যদি সীমান্তের কাঁটা তারের বেড়া কেটে গরু আনতে গিয়ে গুলিতে মারা যান তার দায়-দায়িত্ব সরকার নেবে না।”

অন্যদিকে, মাত্র ২৩ দিনে ১৫ জন বাংলাদেশি নাগরিক বিএসএফের হাতে মারা পড়লেও, তা নিয়ে উদ্বিগ্ন নন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। শনিবার (২৫ জানুয়ারি) রংপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি মন্তব্য করেন, সীমান্তে এসব হত্যা ভারত-বাংলাদেশ বাণিজ্যিক সম্পর্কে কোনো প্রভাব ফেলার মতো ইস্যুই নয়। এসময় তিনি ভারত থেকে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের বিষয়টিকে ‘বড় শিক্ষা’ হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, আমাদের দেশজ উৎপাদন বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। কৃষকেরা যাতে দাম পায় সে চেষ্টা করবো। তবে এখন ভারতে পেঁয়াজ বাংলাদেশের চেয়ে বেশি দাম উঠেছে। পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ আমাদের জন্য বড় শিক্ষা। তবে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ ও সীমান্তে হত্যা ইস্যু নতুন বছরে ভারত-বাংলাদেশ বাণিজ্যিক সম্পর্কে প্রভাব ফেলবে না।   


সর্বশেষ

আরও খবর

পেঁয়াজের আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার করলো জাতীয় রাজস্ব বোর্ড

পেঁয়াজের আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার করলো জাতীয় রাজস্ব বোর্ড


মিরপুরে খালে পড়ে নিখোঁজ ব্যক্তিকে ৬ ঘণ্টা পর জীবিত উদ্ধার

মিরপুরে খালে পড়ে নিখোঁজ ব্যক্তিকে ৬ ঘণ্টা পর জীবিত উদ্ধার


কুমিল্লার ঘটনায় কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না: প্রধানমন্ত্রী

কুমিল্লার ঘটনায় কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না: প্রধানমন্ত্রী


ফেসবুকে কিডনি বেচাকেনা, চক্রের ৫ সদস্য গ্রেপ্তার

ফেসবুকে কিডনি বেচাকেনা, চক্রের ৫ সদস্য গ্রেপ্তার


সেই ভুয়া অতিরিক্ত সচিবের বিরুদ্ধে মামলা করবেন মুসা বিন শমসের

সেই ভুয়া অতিরিক্ত সচিবের বিরুদ্ধে মামলা করবেন মুসা বিন শমসের


হাসপাতালে ভর্তি হলেন খালেদা জিয়া

হাসপাতালে ভর্তি হলেন খালেদা জিয়া


শান্তিতে নোবেল পেলেন দুই সাংবাদিক

শান্তিতে নোবেল পেলেন দুই সাংবাদিক


কিউকমের প্রতারণায় গ্রেপ্তার আরজে নীরব ১ দিনের রিমান্ডে

কিউকমের প্রতারণায় গ্রেপ্তার আরজে নীরব ১ দিনের রিমান্ডে


আফগানিস্তানে মসজিদে বোমা বিস্ফোরণে আহত শতাধিক

আফগানিস্তানে মসজিদে বোমা বিস্ফোরণে আহত শতাধিক


পাকিস্তানে ভূমিকম্পে কমপক্ষে ২০ জন নিহত

পাকিস্তানে ভূমিকম্পে কমপক্ষে ২০ জন নিহত