Monday, June 20th, 2016
সেনা অনুষ্ঠান করেনি বলেই মরেছে তনু
June 20th, 2016 at 8:28 pm
সেনা অনুষ্ঠান করেনি বলেই মরেছে তনু

কুমিল্লা: ফের সেনা সদস্যদের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছেন কুমিল্লা সেনানিবাসে নিহত সোহাগী জাহান তনুর মা আনোয়ারা বেগম। তিনি বলেছেন, ‘আগে যদি জানতাম মাইরে ফেলাইবে আমার মেয়েরে, তাইলে তো যাইতে দিতাম না। সেনাগো লগে অনুষ্ঠান করে নাই বইলেই আমার মেয়েরে মেরে ফেলছে।’

সোমবার কুমিল্লা শহরের পূবালি চত্বরে গণজাগরণ মঞ্চ আয়োজিত প্রতিবাদ-সমাবেশে আনোয়ারা তিনি এ কথা বলেন। এর আগে গত ১০ মে তনু হত্যাকাণ্ডে সেনা সদস্যরা জড়িত বলে অভিযোগ করে তিনি বলেছিলেন, কুমিল্লা সেনানিবাসের সার্জেন্ট জাহিদ ও সিপাহি জাহিদকে জিজ্ঞাসাবাদ করলেই খুনের সব তথ্য বেরিয়ে আসবে।

এদিকে ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসকদের ব্যাপারে আনোয়ারা বলেন, ‌‌’যারা হত্যা করেছে তাদের লগে ডাক্তার জড়িত আছে। না হলে ডাক্তার রিপোর্ট মিথ্যা দেয় ক্যারে?’ সমাবেশে স্বামী ইয়ার হোসেনের অনুপস্থিতির বিষয়ে আনোয়ারা বলেন, ‌’ওর বাবাকে বন্দি করে রাখছে, জানেন না? ওর বাবার নিষেধ, কারও সাথে কথা বলতে পারবে না। কী অপরাধে অফিসের সিও সাহেব কথা বলতে নিষেধ করল এটা আমি জানতে চাই; দেশবাসীর কাছে, সরকারের কাছে, সবার কাছে। তনুর বাপে তো সরকারের বিরুদ্ধে বলে না। তনুর বাপে কি বিচার চাইতে পারে না।’

আনোয়ারার এই অভিযোগের বিষয়ে কুমিল্লা সেনানিবাস কর্তৃপক্ষের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। ঊর্ধ্বতন কয়েকজন কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করেছেন স্থানীয় সাংবাদিকরা। কিন্তু কেউ সাড়া দেননি।

প্রসঙ্গত, তনুর বাবা ইয়ার হোসেন কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডের একজন কর্মচারী। থাকেন সেনানিবাসের ভেতরে কর্মচারীদের কোয়ার্টারে। গত ২০ মার্চ নিজেদের কোয়ার্টার থেকে অন্য কোয়ার্টারে ছাত্র পড়াতে বের হয়ে খুন হন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের স্নাতকের ছাত্রী তনু (১৯)। সেনানিবাসের মধ্যেই তার লাশ পাওয়া যায়। এই হত্যাকাণ্ড নিয়ে দেশব্যাপী প্রতিবাদের মধ্যে সেনানিবাস কর্তৃপক্ষ তদন্তে বেসামরিক কর্তৃপক্ষকে পূর্ণ সহযোগিতার আশ্বাস দেয়। বর্তমানে সিআইডি এই মামলার তদন্ত করছে।

এদিকে সমাবেশে আনোয়ারা আরো বলেন, ‌’আসামিদের ধরার কোনো আগ্রহ নেই। আমরারে তারা পাহারা দেয়, কোনখান দিয়ে হাঁটি, কোনখান দিয়ে যাই। আমার বড় ছেলে ঢাকা থেকে আর আসেই না ভয়ে, আমার দুটা ছেলে…।’ কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/এসকে


সর্বশেষ

আরও খবর

কঠোর বিধিনিষেধের প্রথম দিন ঢাকায় গ্রেফতার ৪০৩ জন

কঠোর বিধিনিষেধের প্রথম দিন ঢাকায় গ্রেফতার ৪০৩ জন


পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীকে আম পাঠালেন শেখ হাসিনা

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীকে আম পাঠালেন শেখ হাসিনা


বাগেরহাটে পিকআপের ধাক্কায় ইজিবাইকের ৬ যাত্রী নিহত

বাগেরহাটে পিকআপের ধাক্কায় ইজিবাইকের ৬ যাত্রী নিহত


ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবিতে ১৭ বাংলাদেশির মৃত্যু

ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবিতে ১৭ বাংলাদেশির মৃত্যু


কোরবানির পশুর কাঁচা চামড়ার দাম নির্ধারণ

কোরবানির পশুর কাঁচা চামড়ার দাম নির্ধারণ


করোনায় আরও ২১০ জনের মৃত্যু, মৃত্যু ১৭ হাজার ছাড়াল

করোনায় আরও ২১০ জনের মৃত্যু, মৃত্যু ১৭ হাজার ছাড়াল


এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার বিষয়ে সিদ্ধান্ত বৃহস্পতিবার

এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার বিষয়ে সিদ্ধান্ত বৃহস্পতিবার


অসুস্থ হয়ে পড়েছেন সাংবাদিক তানু, ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে

অসুস্থ হয়ে পড়েছেন সাংবাদিক তানু, ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে


করোনায় আরও ১৮৫ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৮৭৭২

করোনায় আরও ১৮৫ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৮৭৭২


লাশ দেখে কাউকে চেনার উপায় নেই, করতে হবে ডিএনএ টেস্ট

লাশ দেখে কাউকে চেনার উপায় নেই, করতে হবে ডিএনএ টেস্ট