Tuesday, January 16th, 2018
সৌদি যুবরাজের ব্রিটেন সফরের আমন্ত্রণ প্রত্যাহারের আহ্বান
January 16th, 2018 at 9:19 pm
সৌদি যুবরাজের ব্রিটেন সফরের আমন্ত্রণ প্রত্যাহারের আহ্বান

লন্ডন: সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানকে ব্রিটেন সফরের যে আমন্ত্রণ দিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে তা প্রত্যাহার করে নেয়ার আহ্বান জানিয়েছে মানবাধিকার সংগঠনগুলির একটি জোট।

অস্ত্র বাণিজ্য বিরোধী গ্রুপ ক্যাম্পেইন অ্যাগেইন্সট আর্মস ট্রেড(সিএএট), যুক্তরাজ্যের আরব অর্গানাইজেশন ফর হিউম্যান রাইটসসহ বেশ কয়েকটি মানবাধিকার সংগঠন সোমবার প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে’র কাছে একটি চিঠি পাঠায়।

চিঠিতে বলা হয়, সৌদি যুবরাজের ব্রিটেন সফরের মধ্যে যুক্তরাজ্যের কোন স্বার্থ নাই এমনকি তার রাজনৈতিক হঠকারিতার শিকার মানুষদেরও কোন  স্বার্থ এতে নেই।

এতে আরো বলা হয়, বিশ্বের যেসব দেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি সবচেয়ে খারাপ সৌদি আরব তাদের অন্যতম। দেশটিতে নির্যাতন, নির্বিচারে আটক, ভয়াবহ হয়রানির ঘটনা ব্যাপকভাবে ঘটছে।

চিঠিতে বলা হয়, ইয়েমেনের ইতিহাসের বৃহত্তম কলেরা মহামারির সৃষ্টি করা এবং ক্ষুধাকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করা নিষ্ঠুর শাসককে সহযোগিতা এবং সমর্থন করা আমাদের জাতির জন্য লজ্জাজনক একটি ঘটনা।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সাল থেকে ইয়েমেনে বিমান হামলা করে আসছে সৌদি নিয়ন্ত্রণাধীন জোট। ইরান সমর্থিত শিয়া মতাবলম্বী হুতিদের ইয়েমেন থেকে নির্মূল করে প্রেসিডেন্ট আব্দু রাব্বু মনসুর হাদির সরকারকে পুনর্বহাল করার উদ্দেশ্যে এই হামলা পরিচালনা করছে তারা।

সিএএট এর হিসাব অনুযায়ী, ইয়েমেনে সৌদি জোটের বোমা হামলা শুরুর পর থেকে যুক্তরাজ্য সরকার সৌদি আরবে ৬.৩ বিলিয়ন ডলারের অস্ত্র বিক্রির অনুমতি দিয়েছে।

মানবাধিকার সংগঠনগুলির জোট উল্লেখ করে, ব্রিটেনের তৈরি যুদ্ধবিমান এবং বোমা দিয়ে ইয়েমেনের হাজার হাজার বেসামরিক নাগরিককে হত্যা এবং দরিদ্র দেশটির অবকাঠামো ধ্বংস করা হচ্ছে।

ইয়েমেন যুদ্ধে এখন পর্যন্ত ১০ হাজার মানুষ প্রাণ হারান এবং লাখ লাখ মানুষ বাস্তুচ্যুত হন। এছাড়া ভয়াবহ এই যুদ্ধের ফলে দেশটিতে কলেরা রোগ মহামারির আকার ধারণ করেছে।

গত ২০ ডিসেম্বর থেরেসা মের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী নতুন বছরে সৌদি যুবরাজকে স্বাগত জানাতে উন্মুখ হয়ে আছেন।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা রিপ্রিভ জানায়, সৌদি আরবে চলমান দমন নিপীড়নে মধ্যেই সৌদি যুবরাজকে ব্রিটেন সফরের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

সংস্থাটির পরিচালক মায়া ফোয়া জানান, যুবরাজের সংস্কার কাজের বাগাড়ম্বর উক্তির মধ্যেও আসল বাস্তবতা হচ্ছে দেশটিতে ফাঁসিতে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের ঘটনা বেড়ে চলছে, ভিন্নমত পোষণকারীদের অপরাধী হিসেবে চিহ্নিত করা এবং তরুণ বিক্ষোভকারীদের দমন করা হচ্ছে।

রিপ্রিভের হিসাব অনুযায়ী, গত বছর সৌদি আরবে ১৪২ জনকে ফাঁসিতে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, সৌদি বাদশাহ সালমান গত বছর তার ভাইপো মহাম্মদ বিন নায়েফকে সরিয়ে নিজের পুত্র মোহাম্মদ বিন সালমানকে যুবরাজ পদে অভিষিক্ত করেন।  সূত্র: আল জাজিরা

গ্রন্থনা: ফারহানা করিম


সর্বশেষ

আরও খবর

বিমানের বহরে পঞ্চম বোয়িং

বিমানের বহরে পঞ্চম বোয়িং


অভিযুক্তদের বিষয়ে সিদ্ধান্তের জন্য ২৪ ঘণ্টা সময় নিল শোভন-রাব্বানী

অভিযুক্তদের বিষয়ে সিদ্ধান্তের জন্য ২৪ ঘণ্টা সময় নিল শোভন-রাব্বানী


‘সন্তানের জন্য যা যা করতে হয় প্রধানমন্ত্রী তাই আমার জন্য করেছেন’

‘সন্তানের জন্য যা যা করতে হয় প্রধানমন্ত্রী তাই আমার জন্য করেছেন’


দাঙ্গার পর দ্বিতীয় রাতেও শ্রীলঙ্কাজুড়ে কারফিউ, গ্রেফতার ৬০

দাঙ্গার পর দ্বিতীয় রাতেও শ্রীলঙ্কাজুড়ে কারফিউ, গ্রেফতার ৬০


নাটোরে মা ও প্রতিবন্ধি সন্তানের মরদেহ উদ্ধার

নাটোরে মা ও প্রতিবন্ধি সন্তানের মরদেহ উদ্ধার


ইগলু আইসক্রিমকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা

ইগলু আইসক্রিমকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা


বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় দেশে ফিরছেন ওবায়দুল কাদের

বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় দেশে ফিরছেন ওবায়দুল কাদের


খ্রিস্ট ধর্মীয় অনুভূতি: কবি ও সাংবাদিক হেনরী স্বপন গ্রেপ্তার

খ্রিস্ট ধর্মীয় অনুভূতি: কবি ও সাংবাদিক হেনরী স্বপন গ্রেপ্তার


কক্সবাজারে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ৩

কক্সবাজারে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ৩


ভূমধ্যসাগরে নিহত ২৭ বাংলাদেশির পরিচয় মিলেছে

ভূমধ্যসাগরে নিহত ২৭ বাংলাদেশির পরিচয় মিলেছে