Tuesday, September 6th, 2016
হকির কন্ডিশনিং ক্যাম্প জার্মানীতে
September 6th, 2016 at 6:40 pm
হকির কন্ডিশনিং ক্যাম্প জার্মানীতে

ঢাকা: আগামি নভেম্বরে হংকংয়ে অনুষ্ঠিত হবে এএইচএফ হকি টুর্নামেন্ট। আসন্ন এ আসরকে সামনে প্যাকেজ কর্মসূচী হাতে নিয়েছে বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন। এই প্যাকেজের আওতায় এরই মধ্যে নিয়োগ দেয়া হয়েছে দেশী-বিদেশী সাত কোচকে। এরমধ্যে পাঁচজনই বিদেশী। এরা হলেন- প্রধান কোচ বিতর্কিত অলিভার কার্টজ, উপদেষ্টা কোচ গেরহার্ড পিটার, প্রধান টেকনিক্যাল নির্বাহী লুজার বিসমান, সচিত্র প্রযুক্তি বিশ্লেষক অ্যাখিম মেনট্রেস ও ফিজিও জুসট ক্রুইজেন। আর কোচিং স্টাফে দেশীদের মধ্যে থাকছেন স্থানীয় কোচ মাহবুব হারুন এবং সমন্বয়কারী হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে বিতর্কীত আরিফুল হক প্রিন্সকে।

হকির উন্নয়নে প্যাকেজের মধ্যে জার্মানীতে খেলোয়াড়দের কন্ডিশনিং ক্যাম্পও থাকছে। যার ফলে পেশদারিত্বের যুগে প্রবেশ করছে বাংলাদেশের হকি। আজ মঙ্গলবার মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে ভিডিও প্রজেক্টরের মাধ্যমে হকি পেশাদারিত্বের নমুনা সংবাদ মাধ্যমের সামনে তুলে ধরেন ফেডারেশনের সহ-সভাপতি শফিউল্লাহ আল মুনীর। সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাধারণ সম্পাদক আবদুস সাদেক, সহ-সভাপতি খাজা রহমতউল্লাহ ও সদস্য হাজী মো. হুমায়ুন।

হঠাৎ করেই দেশের হকিতে এমন প্যাকেজের কারন সম্পর্কে সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সাদেক বলেন, ‘হংকংয়ে নভেম্বরে অনুষ্ঠিতব্য এএইচএফ হকি টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হতেই হবে বাংলাদেশকে। নইলে এশিয়া কাপে কোয়ালিফাই করতে পারবো না আমরা। এ জন্যই আমরা এমন একটা প্যাকেজ হাতে নিয়েছি। এ প্যাকেজে অনেক লাভ হবে আমাদের। ছেলেরা জার্মানীতে খেলতে পারবে।’

এর আগে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) দীর্ঘ মেয়াদী কোচের জন্য হকি ফেডারেশনকে অর্থ দিলেও তিনমাসের এই প্যাকেজে কোন বরাদ্ধ নেই বিসিবির। তাই পুরো ব্যায়টাই বহন করতে এগিয়ে এসেছেন ফেডারেশনের সহ-সভাপতি শফিউল্লাহ আল মুনীর।

তিন মাসের এ প্যাকেজ সম্পর্কে মুনীর বলেন, ‘জার্মানীর একটি আইন উপদেষ্টা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে আমাদের চুক্তি হয়েছে এই পাঁচ কোচের জন্য। কন্ডিশনিং ক্যাম্পে যোগ দিতে ইতিমধ্যে পাঁচজন জার্মানীতে চলে গেছেন। আজ যাবেন আরও তিনজন। এভাবে ক’দিনের মধ্যে সব খেলোয়াড়ই যাবেন। মাহবুব হারুন এবং প্রিন্সও ওই কোচিং স্টাফে যোগ দেবেন। সেখানেই একমাস কন্ডিশনিং ক্যাম্প হবে।’

খন্ডকালীন এই প্যাকেজের মধ্যে থাকছে হকির জন্য পূর্ণাঙ্গ কর্মকৌশল গঠন করা, সফল ও শক্তিশালী জাতীয় দল গঠন করা, ফেডারেশনের রাজস্ব আয়া বৃদ্ধি করা, সর্বক্ষেত্রে পেশাদারিত্ব তৈরী করা, তৃণমূল পর্যায় থেকে সর্বোচ্চ পর্যায়ে খেলোয়াড়দের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা, হকির ‘ব্র্যান্ড ভেন্যু’ বৃদ্ধি করা এবং অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে বিকেন্দ্রীকরন করা। আবদুস সাদেকের কথা, ‘খন্ডকালীন হলেও আমরা পেশাদারিত্বের পথে এগুনোর চেষ্টা করছি। বাকিটা সময়ের ব্যাপার। তবে আমরা এএইচএফ কাপে চ্যাম্পিয়ন হতে চাই। এটাই বড় কথা। আমাদের এই স্বপ্ন পূরণে সহ-সভাপতি মুনীর এগিয়ে আসায় তাকে ধন্যবাদ জানাই।’

প্রতিবেদন: কবিরুল ইসলাম, সম্পাদনা: তুসা


সর্বশেষ

আরও খবর

অবশেষে পাঁচ বছর পর নেপালকে হারালো বাংলাদেশ

অবশেষে পাঁচ বছর পর নেপালকে হারালো বাংলাদেশ


৭ অক্টোবরের আগে শ্রীলঙ্কা যাচ্ছে না বাংলাদেশ

৭ অক্টোবরের আগে শ্রীলঙ্কা যাচ্ছে না বাংলাদেশ


শর্ত মেনে শ্রীলঙ্কা সফরে যাবে না বাংলাদেশ: পাপন

শর্ত মেনে শ্রীলঙ্কা সফরে যাবে না বাংলাদেশ: পাপন


বিসিবির নিরাপত্তা প্রধান মারা গেছেন

বিসিবির নিরাপত্তা প্রধান মারা গেছেন


দেশে ফিরলেন সাকিব

দেশে ফিরলেন সাকিব


হতাশ হলেও শিখেছেন বাবর আজম

হতাশ হলেও শিখেছেন বাবর আজম


জয়ের ধারায় থাকা ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সমতা ফেরানোর খোঁজে পাকিস্তান

জয়ের ধারায় থাকা ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সমতা ফেরানোর খোঁজে পাকিস্তান


কভিড-১৯: সময়মত আইপিএল শুরু অনিশ্চিত

কভিড-১৯: সময়মত আইপিএল শুরু অনিশ্চিত


বার্সার অনুশীলনে সোমবার মাঠে নামছেন মেসি

বার্সার অনুশীলনে সোমবার মাঠে নামছেন মেসি


মাঠে নামছেন তামিম ইকবাল

মাঠে নামছেন তামিম ইকবাল