Thursday, June 9th, 2016
হত্যার অভিযোগে মা-মেয়ে আটক
June 9th, 2016 at 5:52 pm
হত্যার অভিযোগে মা-মেয়ে আটক

মানিকগঞ্জ: জেলার শিবালয় উপজেলার ভাকলা গ্রামের কাজী চাঁনের পুত্র কাজী রিপন (২৫) নামে এক পোশাক শ্রমিকের লাশ তার গ্রামের বাড়িতে  দিতে এসে মা ও মেয়ে আটক হয়েছেন। ওই যুবককে হত্যার অভিযোগ এনে বুধবার রাতে তাদের পুলিশে ধরিয়ে দেন স্বজনরা।

আটককৃতরা হলেন- নেত্রকোনা সদর উপজেলার ভাগড়া গ্রামের আবদুল বারেকের স্ত্রী রাহেলা বেগম (৫০) ও মেয়ে নাজমা আক্তার (২২)। বারেক কাঠমিস্ত্রির ঠিকাদারি করায় ঢাকার বাড্ডা থানার পূর্ব পদড়িয়া এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকেন তারা। আর ভাকলা গ্রামের কাজী চাঁনের বড় ছেলে রিপন পোশাক তৈরি কারখানায় কাজ করতেন।

রিপনের চাচাতো ভাই কাজী সাইদুর জানান, প্রায় সাত বছর ধরে রিপন ঢাকার মিরপুরে পোশাক তৈরি কারখানায় কাজ করেন। বছর দুই আগে ওই বারেকের মেজো মেয়েকে বিয়ে করেন তিনি। বিয়ের বিষয়টি বাড়িতে গোপন রাখলেও তাকে মেয়েটার ছবি দেখিয়ে বিয়ের কথা বলেছিলেন রিপন। আর ঢাকায় রিপন কোথায় থাকতেন? তাও কাউকে বলেননি। বিয়ের পর স্ত্রীকে নিয়ে শ^শুর-শাশুড়ি’র সঙ্গে একই বাসা থাকতেন বলে তার ধারণা। এ অবস্থায় বুধবার রাত ১০টার দিকে কোন খবর ছাড়াই রিপনের লাশ অ্যাম্বুলেন্সে করে রাহেলা ও নাজমা গ্রামের বাড়ি দিতে আসেন। রিপন হার্ট স্ট্রোকে মারা গেছেন বলে স্বজনদের জানান তারা। এ সময় লাশের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের জখম ও চিহ্ন দেখে সন্দেহ হলে তাদের বাসায় খোঁজ নিতে এক আত্মীয়কে পাঠানো হয়। বুধবার বিকালে ঘরের দরজা আটকে রিপনকে মারপিট করা হয়েছে বলে তাকে বাসার মালিকের ছেলে ও স্থানীয়রা নিশ্চিত করেন। এই ঘটনা শুনে রিপনকে হত্যা করার অভিযোগ করেন স্বজনরা। এ কারণে লাশ নিয়ে আসা ওই দুইজনকে ধরে পুলিশে খবর দেয়া হয়। পুলিশ এসে দুইজনকে আটক ও লাশ থানায় নিয়ে যায় বলে জানান সাইদুর।

রাহেলা বেগম সাংবাদিকদের জানান, রিপন তার মেয়েকে বিয়ে করেননি। পরিচিত হওয়ায় তাদের বাসায় মাঝে মধ্যে আসা-যাওয়া করতেন। বুধবার বিকালেও তাদের বাসায় বেড়াতে আসেন রিপন। এসেই বুকে প্রচণ্ড ব্যথা অনুভব হলে পাশের উত্তর বাড্ডা এইচএএফ জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে মারা যান রিপন। এরপর লাশ নিয়ে বাড়িতে পৌঁছে দিতে এসেছেন। রিপনকে কোনো মারপিট ও হত্যা করা হয়নি বলেও জানান রাহেলা।

শিবালয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রকিবুজ্জামান জানান, ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। হার্ট-স্ট্রোকে নাকি হত্যা করা হয়েছে? প্রতিবেদনে মৃত্যুর সঠিক ধরণ জানা যাবে। এই প্রতিবেদন ঘটনাস্থলের বাড্ডায় থানায় পাঠানো হবে। স্বজনরা চাইলে সেখানকার থানায় কিংবা আদালতে মামলা করতে পারবেন। আর মা ও মেয়ে বাড্ডা থানায় হস্তান্তরের প্রক্রিয়া করা হচ্ছে। এ ঘটনায় শিবালয় থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/প্রতিনিধি/জাই


সর্বশেষ

আরও খবর

কুমিল্লার মণ্ডপে কোরআন রাখা ব্যক্তি শনাক্ত

কুমিল্লার মণ্ডপে কোরআন রাখা ব্যক্তি শনাক্ত


কুমিল্লার মূল অভিযুক্ত পালিয়ে বেড়াচ্ছে, দ্রুতই গ্রেপ্তার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

কুমিল্লার মূল অভিযুক্ত পালিয়ে বেড়াচ্ছে, দ্রুতই গ্রেপ্তার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী


হামলায় জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ

হামলায় জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ


দেবীগঞ্জের অগ্নিকাণ্ড নিছক দূর্ঘটনা: ইউএনও

দেবীগঞ্জের অগ্নিকাণ্ড নিছক দূর্ঘটনা: ইউএনও


সাম্প্রদায়িক নৈরাজ্যে আক্রান্ত ২৩ জেলা

সাম্প্রদায়িক নৈরাজ্যে আক্রান্ত ২৩ জেলা


ওয়েবসাইট বন্ধ করে দিয়েছে ইভ্যালি কর্তৃপক্ষ

ওয়েবসাইট বন্ধ করে দিয়েছে ইভ্যালি কর্তৃপক্ষ


ময়মনসিংহে সড়ক দুর্ঘটনায় ৭ জনের মৃত্যু

ময়মনসিংহে সড়ক দুর্ঘটনায় ৭ জনের মৃত্যু


পেঁয়াজের আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার করলো জাতীয় রাজস্ব বোর্ড

পেঁয়াজের আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার করলো জাতীয় রাজস্ব বোর্ড


মিরপুরে খালে পড়ে নিখোঁজ ব্যক্তিকে ৬ ঘণ্টা পর জীবিত উদ্ধার

মিরপুরে খালে পড়ে নিখোঁজ ব্যক্তিকে ৬ ঘণ্টা পর জীবিত উদ্ধার


কুমিল্লার ঘটনায় কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না: প্রধানমন্ত্রী

কুমিল্লার ঘটনায় কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না: প্রধানমন্ত্রী