Thursday, June 9th, 2016
গুম খুনে আ’লীগ জড়িত, দাবি খালেদার
June 9th, 2016 at 8:25 pm
গুম খুনে আ’লীগ জড়িত, দাবি খালেদার

ঢাকা: গুপ্ত হত্যা, গুম খুন হত্যার সাথে আওয়ামী লীগ ও তার দোসরা জড়িত বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

বৃহস্পতিবার সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনে ইফতারপূর্ব এক আলোচনা সভায় তিনি এ অভিযোগ করেন।

প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৩৫তম শাহাদাৎবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা ও ইফতার মাহফিলের আয়োজন করে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম।

চট্টগ্রামে আলোচিত পুলিশ কর্মকর্তার স্ত্রী হত্যাকাণ্ডের কথা উল্লেখ করে খালেদা জিয়া বলেন, ‘প্রতিনিয়ত গুম-খুন হচ্ছে, ক্রসফায়ারে মানুষ মারা যাচ্ছে। এইসব খুন-গুম-হত্যার সঙ্গে আওয়ামী লীগ জড়িত এবং তার সঙ্গে যারা দোসররা আছে, তারা জড়িত। কাজেই তাদের ধরলেই সব বের হয়ে যাবে। সেজন্য বিচারকদের কাছে দাবি থাকবে, আমরা আইনের শাসন চাই, সুবিচার চাই। যাতে সকলের জন্য সমান বিচার হয় অপরাধীদের শাস্তি হয়।’

দেশের দুরবস্থা নিয়ে সংসদে আলোচনা হওয়ার কথা থাকলেও বর্তমান বিরোধী দল সেই দায়িত্ব পালন করতে পারছে না মন্তব্য করে বিএনপি নেত্রী বলেন, ‘বিরোধী দল সরকারেও আছে, বিরোধী দলেও আছে। সেজন্য পদ হারানোর ভয়ে সরকারের বিপক্ষে তারা কিছু বলছে না।’

তিনি বলেন, স্বাধীনতার পর বাংলাদেশের মানুষ একদলীয় শাসনের পরিস্থিতিতে পড়েছিলো। এখন আবারো সেই অবস্থায় ফিরে যাচ্ছে।

লুটপাটে দেশের অর্থনীতি শেষ করে দেয়া হয়েছে, দাবি করে বিএনপি প্রধান বলেন, ‘অর্থমন্ত্রী বলেছেন, পুকুর চুরি নয়, সাগর চুরি হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংকে এখন ডিজিটাল কায়দায় ডাকাতি হচ্ছে। জানা গেছে ৮০০ কোটি টাকা, কিন্তু নিয়েছে আরো বেশি টাকা।’

প্রধানমন্ত্রী পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়ের কঠোর সমালোচনা করে খালেদা জিয়া বলেন,  আইন যদি সবার জন্য সমান হয়ে থাকে তাহলে ৩০০ মিলিয়ন অর্থ বিদেশে পাচারের অভিযোগ তাকে কেন আইনের আনওতায় নিয়ে আসা হবে না। এখনো কেন তিনি মুক্ত আছেন।

জনগণ বিএনপির পক্ষে আছে দাবি করে জনপ্রিয়তা প্রমাণে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

খালেদা জিয়া বলেন, আজকে গণতন্ত্রহীন দেশ। দেশে কোনো নির্বাচিত সরকার নেই যারা আছে তারা স্বঘোষিত এবং অনির্বাচিত অবৈধ সরকার। তাই এই অবৈধ সরকার যত আইন পাস করুক না কেন তা জনগণের কাছে গ্রহণযোগ্য হবে না।

তিনি বলেন, আজকে জাতীয় সংসদে কোনো জনপ্রতিনিধি নেই। নেই কোনো বিরোধী দল। যারা বিরোধী দলে আছে তারা সরকারেও আছে, আবার বিরোধী দল বলেও নিজেদের দাবি করে। তাই দেশের এই কঠিন সময়েও তারা প্রতিবাদ করতে পারে না, প্রতিবাদ করতে সাহস পায়না। কিন্তু বিএনপি শত বাধা অতিক্রম করেও আইনের শাসন , গণতন্ত্র ও মৌলিক অধিকার আদায়ে লড়াই করে যাচ্ছে।

বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, ‘এখন বিচারবিভাগ ও বিচারকদের কোনো স্বাধীনতা নেই। যদি আইনের শাসন থাকলে ন্যায় বিচার পেতাম। তাহলে সরকারি দল ও বিরোধী দলসেহ সাধারণ মানুষের জন্য আইন ভিন্নতর হতে পারতো না।’

এক দেশে দু’আইন চলতে পারে না- এমন মন্তব্য করে খালেদা জিয়া বলেন, ‘নাইকোর মামলার সাথে আমি জড়িত নই, শেখ হাসিনা জড়িত। স্বঘোষিত প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধেও ১৫ টি মামলা ছিল অথচ তার মামলা গুলো মিটে গেল আর আমার মামলাগুলো থেকে গেলো। তার কাছে কি জাদুর কাঠি আছে যে ছুয়ে দিলো এমনি মামলা চলে গেল।

সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, নাইকো মামলায় আমাকে টানাটানি করা হচ্ছে অথচ এই মামলায় সঙ্গে আমি জড়িত নই,  হাসিনাই জড়িত। তাই নাইকো মামলা চলতে হলে হাসিনাকেও নিয়ে আসতে হবে।

খালেদা জিয়া বলেন, আওয়ামী লীগ আজ কোর্টের নির্দেশ অবমাননা করে একের পর এক কাজ করে যাচ্ছে। আমি স্পষ্ট করে বলতে চাই, আজকে যদি সত্যিকার জাজ এবং বিচারে হাসিনা নিয়ে আসা হয় তাহলে হাসিনার সাজা হবেই হবে।’

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ যদি মনে করে থাকেন যে, মামলা দিয়ে, সাজা দিয়ে নির্বাচন করবেন তাহলে সেটা এতো সহজ নয়। সেই নির্বাচন দেশে বিদেশে কারো কাছে গ্রহণযোগ্য হবে না। সেটা হবে একদলীয় নির্বাচন যা হয়েছে বিগত ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি।

এরশাদ ও হাসিনার মধ্যে কোনো তফাৎ নেই বলেও মন্তব্য করেছেন বিএনপি প্রধান।

খালেদা জিয়া বলেন, নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের বিচার হচ্ছে না কারণ বিচার হলে স্বয়ং শেখ হাসিনার নাম উঠে আসবে। তাই এই হত্যার বিচার করা হচ্ছে না।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা জনবিছিন্ন তাই জোর করে ক্ষমতায় টিকে থাকতে চাচ্ছেন। যার বড় প্রমাণ সম্প্রতি ঘটে যাওয়া ইউপি নির্বাচন।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বিচারপিতি টি এইচ খানের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন- বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল(অব.) আসম হান্নান শাহ, লে. জেনারেল(অব.) মাহবুবুর রহমান, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন, অ্যাডভোকেট আহমদ আযম খান, মীর মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন, যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল ও সহ-আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী।

এছাড়া  উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, ঢাকা বিশ্বাবিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক এমাজউদ্দিন আহমেদ, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্ঠা চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, সাবেক যুগ্ম মহাসিচব আমান উল্লাহ আমান, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুর কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব মজিবুর রহমান সরোয়ার ও সহ সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ।

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/এফএইচ/জাই

 


সর্বশেষ

আরও খবর

ধর্ষণের সাজা মৃত্যুদণ্ডের চূড়ান্ত অনুমোদন

ধর্ষণের সাজা মৃত্যুদণ্ডের চূড়ান্ত অনুমোদন


বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত ব্যারিস্টার রফিক-উল হক

বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত ব্যারিস্টার রফিক-উল হক


সারা দেশের নৌ ধর্মঘট প্রত্যাহার

সারা দেশের নৌ ধর্মঘট প্রত্যাহার


মাস্ক পরা নিশ্চিত করতে নির্দেশ মন্ত্রিসভার

মাস্ক পরা নিশ্চিত করতে নির্দেশ মন্ত্রিসভার


আপাতত বন্ধ হচ্ছে না ইন্টারনেট-ক্যাবল টিভি

আপাতত বন্ধ হচ্ছে না ইন্টারনেট-ক্যাবল টিভি


বাংলাদেশ থেকে ষ্টুডেন্ট ভিসা এবং ওয়ার্ক পারমি‌ট নিয়ে ৭০টি পেশার মানুষের ব্রিটেনে প্রবেশের পথ উম্মোক্ত হল

বাংলাদেশ থেকে ষ্টুডেন্ট ভিসা এবং ওয়ার্ক পারমি‌ট নিয়ে ৭০টি পেশার মানুষের ব্রিটেনে প্রবেশের পথ উম্মোক্ত হল


ধর্ষণের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ

ধর্ষণের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ


আবারও বাড়লো স্বর্ণের দাম

আবারও বাড়লো স্বর্ণের দাম


রাঙ্গামাটিতে ইউপিডিএফ-সেনাবাহিনী গুলি বিনিময়: নিহত ২

রাঙ্গামাটিতে ইউপিডিএফ-সেনাবাহিনী গুলি বিনিময়: নিহত ২


গালিগালাজের ভয়েস নিজের না দাবি নিক্সন চৌধুরীর

গালিগালাজের ভয়েস নিজের না দাবি নিক্সন চৌধুরীর