Thursday, June 16th, 2016
হেমন্তের সুর!
June 16th, 2016 at 1:25 am
হেমন্তের সুর!

ডেস্কঃ আজ ১৬ জুন, জনপ্রিয় বাঙালি কণ্ঠশিল্পী, সঙ্গীত পরিচালক ও প্রযোজক হেমন্ত মুখোপাধ্যায়ের ৯৬ তম জন্ম বার্ষিকী। ১৯২০ সালের এই দিনে ভারতের বারাণসী শহরে মায়ের কোল আলো করেন তিনি।

সপরিবারে কলকাতা শহরে স্থানান্তরিত হওয়ার পর, ভবানিপুরের মিত্র ইন্সটিটিউশন থেকে ইন্টারমিডিয়েট পাশ করে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে ভর্তি হন হেমন্ত। কিন্তু গানের প্রতি তীব্র টানে পড়ালেখায় ভাটা পড়ে। সাহিত্যচর্চার অভ্যাস থেকে দেশ পত্রিকায় কিছুদিন লেখালেখি করলেও পেশাগত দিক থেকে পুরোদস্তুর সঙ্গীতজ্ঞ হয়ে উঠতে বেশী দেরি করেননি।

১৯৩৩ সালে শৈলেশ দত্তগুপ্তের সহযোগিতায় ‘অল ইন্ডিয়া রেডিও’র জন্য প্রথম গান ‘আমার গানেতে এল নবরূপী চিরন্তন’ রেকর্ড করেন এই গুণী শিল্পী। গানটি সে সময় খুব একটা জনপ্রিয়তা না পেলেও গান আর শিল্পী একে অপরের সাথে লেগে থাকেন ওতপ্রোত ভাবে। ১৯৩৭ সালে তিনি নরেশ ভট্টাচার্যের কথা এবং শৈলেশ দত্তগুপ্তের সুরে গ্রামোফোন কোম্পানী কলম্বিয়ার জন্য ‘জানিতে যদিগো তুমি’ এবং ‘বলো গো তুমি মোরে’ গান দুটি রেকর্ড করেন। বাল্যবন্ধু কবি সুভাষ মুখোপাধ্যায় তাকে গান গাইবার জন্য ইডেন গার্ডেনের স্টুডিওতেও নিয়ে গিয়েছিলেন একবার। এরপর থেকে ১৯৮৪ সাল পর্যন্ত প্রতিবছরই তিনি ‘গ্রামোফোন কোম্পানী অফ ইন্ডিয়া’র জন্য গান রেকর্ড করেছেন।

১৯৪১ সালে ‘নিমাই সন্ন্যাস’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে প্লে ব্যাক জীবন শুরু। বাংলা চলচ্চিত্রের গানে এক অপরিহার্য অংশ হয়ে ওঠেন নিমেষেই। ১৯৪৪ সালে ‘ইরাদা’ ছবিতে প্লে-ব্যাক করে হিন্দী গানের শ্রোতাদের আপন করে নেন তিনি। হেমন্ত মুখোপাধ্যায় বেশ কিছু রবীন্দ্রসঙ্গীতের রেকর্ড বের করেছিলেন; তবে তিনি প্রথম রবীন্দ্রসঙ্গীত গেয়েছিলেন ১৯৪৪ সালে ‘প্রিয় বান্ধবী’ সিনেমাতে। কলম্বিয়ার মিউজিক লেবেলে প্রকাশিত হয় তার রবীন্দ্রসঙ্গীতের রেকর্ড। ১৯৪৭ সালে ‘অভিযাত্রী’ সিনেমার মাধ্যমে সঙ্গীত পরিচালক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন হেমন্ত মুখোপাধ্যায়।

১৯৫৫ সালে বলিউডি সিনেমা ‘নাগিন’ এর সঙ্গীত পরিচালক হিসেবে ‘ফিল্মফেয়ার বেস্ট মিউজিক ডিরেক্টর’ এর পুরস্কার লাভ করেন। নাগিন সিনেমার গানগুলো টানা দু’বছর টপ চার্টে ছিলো। বাংলা সিনেমা ‘শাপমোচন’ এর সঙ্গীত পরিচালনার সময় উত্তম কুমারের জন্য চারটি গান করেছিলেন হেমন্ত। সেখান থেকেই উত্তম-হেমন্ত জুটির সূত্রপাত।

সঙ্গীত জগতে অবিস্মরণীয় অবদান রাখার জন্য রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তাকে ডি.লিট ডিগ্রি প্রদান করা হয়। ১৯৮৮ সালে ভারত সরকার তাঁকে ‘পদ্মশ্রী’ উপাধীতে ভূষিত করে, যদিও শিল্পী কর্তৃক এই পদক প্রত্যাখ্যাত হয়। হেমন্ত মুখোপাধ্যায়ের জনপ্রিয় গানগুলোর মধ্যে রয়েছে ‘আয় খুকু আয়’, ‘রানার’, ‘পথের ক্লান্তি ভুলে’, ‘এই রাত তোমার আমার’, ‘ও আকাশ প্রদীপ জ্বেলো না’, ‘কেন দূরে থাকো’, ‘ও নদীরে’ ইত্যাদি।

নিউজনেক্সটবিডিডটকম/এসকেএস/টিএস


সর্বশেষ

আরও খবর

প্রধানমন্ত্রীপরিচয়ে তাজউদ্দীন ইন্দিরার সমর্থন আদায় করেন যেভাবে!

প্রধানমন্ত্রীপরিচয়ে তাজউদ্দীন ইন্দিরার সমর্থন আদায় করেন যেভাবে!


প্রকৃতির নিয়ম রেখেছিল ঢেকে রাতের কালো, বিধাতার ডাকে বঙ্গবন্ধু এলো

প্রকৃতির নিয়ম রেখেছিল ঢেকে রাতের কালো, বিধাতার ডাকে বঙ্গবন্ধু এলো


সৈয়দ আবুল মকসুদঃ মৃত জোনাকির থমথমে চোখ

সৈয়দ আবুল মকসুদঃ মৃত জোনাকির থমথমে চোখ


বঙ্গবন্ধুর মুক্তির নেপথ্যে

বঙ্গবন্ধুর মুক্তির নেপথ্যে


প্রয়াণের ২১ বছর…

প্রয়াণের ২১ বছর…


বীর উত্তম সি আর দত্ত আর নেই, রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শোক

বীর উত্তম সি আর দত্ত আর নেই, রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শোক


সংগীতের ভিনসেন্ট নার্গিস পারভীন

সংগীতের ভিনসেন্ট নার্গিস পারভীন


সিরাজগঞ্জে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে কামাল লোহানীকে

সিরাজগঞ্জে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে কামাল লোহানীকে


জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান আর নেই

জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান আর নেই


ওয়াজেদ মিয়ার ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

ওয়াজেদ মিয়ার ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ