Friday, August 19th, 2022
হাসিনার অধীনে নির্বাচনে গেলে ১৪ সালেই যেতাম: গয়েশ্বর
February 18th, 2017 at 12:14 pm
হাসিনার অধীনে নির্বাচনে গেলে ১৪ সালেই যেতাম: গয়েশ্বর

ঢাকা: শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি। শনিবার জাতীয়তাবাদী তাঁতী দলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের সমাধিতে ফুল দিতে এসে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় এ কথা জানান।

তিনি বলেন, “শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচনে গেলে ২০১৪ সালেই নির্বাচনে যেতাম, তাহলে আবার পাঁচ বছর পরে যাব কেন?”

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে প্রধান করে নির্বাচনকালী সরকারের প্রস্তাব করবে বিএনপির সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “আমরা দলীয় ভাবে বসি নাই। দলের মধ্যে নানা রঙ্গের লোক আছে, নানা মতের লোক আছে। বিষয়টা আমরা জানি না। পত্রিকার ভাষায় যেটা আসছে সেটা দেখে আমরা দলীয় ভাবে সিদ্ধান্ত নেব। কারণ সুটকির নৌকায় বিড়াল পাহারাদার রাখলে কি হবে? এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। শেখ হাসিনার অধীনে যদি নির্বাচনেই যাব তবে ২০১৪ সালে নির্বাচনে যেতে পারতাম। তাহলে আবার পাঁচ বছর পরে যাব কেন?”

নির্বাচন কমিশন সম্পর্কে তিনি বলেন, “আগের হাল যেদিকে যায় পিছনের হাল তো সে দিকেই যায়। আমরা নতুন করে এই নির্বাচন কমিশনারের কাছে কিছু প্রত্যাশা করি না। কারণ রকিব উদ্দিনের মতই তারা কাজ করবে।”

ওবায়দুল কাদের বলেছেন, নির্বাচন ঠেকানোর ক্ষমতা বিএনপির নেই, এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, “২০১৪ সালের নির্বাচনে ভোটাররা ভোট কেন্দ্রে যায়নি। আর আগামী নির্বাচনেও ভোটাররা যাবে না। এধরণের নির্বাচন করে যদি তারা টিকে থাকতে চায়, তবে চেষ্টা করুক।”

সংবিধানের আলোকে পর পর দুই বার নির্বাচনে অংশ না নিলে বিএনপির নিবন্ধন থাকবে না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “সংবিধানের আলোকে পর পর দুই বার নির্বাচনে না গেলে নিবন্ধন বাতিল হয়। কিন্তু আপনারা কি জানেন, সংসদীয় যে প্রতীকগুলো ছিল, সেগুলো শুধু সংসদ নির্বাচনের জন্য। কিন্তু আজকে নৌকা আর ধানের শীষ স্থানীয় নির্বাচনেও বরাদ্দ হচ্ছে। আজকেও ধানের শীষে আমাদের এক প্রার্থী নির্বাচন করছে। যখন এটি স্থানীয় পর্যায়ে ব্যবহার হয় তখন জাতীয় সংসদের সিদ্ধান্ত টিকে না।”

শুক্রবার আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সরকার খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলার রায় তারা দিচ্ছে না আদালত দিবেন, এমন বক্তব্যর সমালোচনা করে বিএনপির এ নেতা বলেন, “আদালত তো মামলা দেয়নি, মামলা দিয়েছে সরকার। সরকার যখন মামলা দিয়েছে তখন সেই মামলা দেয়ার তো তাদের একটা উদ্দেশ্য আছে। আর আপনারা জানেন যে আদালতে দলমত দেখা হয়, আমরা আদালতে হাজিরা না দিলে জামিন না দিয়ে জেলে পাঠানো হয় আর সরকারের দুই জন মন্ত্রী মামলা নিয়েও ঘুরে বেড়াচ্ছেন। তাই ওবায়দুল কাদেরের কথা এখানে ধোপে টিকে না। এটি রাজনৈতিক মামলা আর আমরাও রাজনৈতিক ভাবেই মোকাবেলা করবো।”

আগামী নির্বাচনের আগে খালেদা জিয়াকে সাজা দেয়া হবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “খালেদা জিয়াকে থামানোর জন্য সরকার বহু চেষ্টাই করবে। আর গণতন্ত্রে সকল অপচেষ্টাকে প্রতিহত করার দায়িত্ব জনগণের।”

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালম আজাদসহ তাঁতী দলের নেতাকর্মীরা।

প্রতিবেদন: শেখ রিয়াল, সম্পাদনা: প্রণব


সর্বশেষ

আরও খবর

সংসদে ৬,৭৮,০৬৪ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব

সংসদে ৬,৭৮,০৬৪ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব


আ’লীগ নেতা বিএম ডিপোর একক মালিক নন

আ’লীগ নেতা বিএম ডিপোর একক মালিক নন


চীনের সাথে বাণিজ্য ঘাটতি কমাতে চায় বাংলাদেশ

চীনের সাথে বাণিজ্য ঘাটতি কমাতে চায় বাংলাদেশ


ভোজ্যতেল ও খাদ্য নিয়ে যা ভাবছে সরকার

ভোজ্যতেল ও খাদ্য নিয়ে যা ভাবছে সরকার


তৎপর মন্ত্রীগণ, সীতাকুণ্ডে থামেনি দহন

তৎপর মন্ত্রীগণ, সীতাকুণ্ডে থামেনি দহন


অত আগুন, এত মৃত্যু, দায় কার?

অত আগুন, এত মৃত্যু, দায় কার?


যে গল্প এক অদম্য যোদ্ধার

যে গল্প এক অদম্য যোদ্ধার


আফগান ও ভারতীয় অনুপ্রবেশ: মে মাসে আটক ১০

আফগান ও ভারতীয় অনুপ্রবেশ: মে মাসে আটক ১০


সীমান্ত কাঁটাতারে বিদ্যুৎ: আলোচনায় বিজিবি-বিজিপি

সীমান্ত কাঁটাতারে বিদ্যুৎ: আলোচনায় বিজিবি-বিজিপি


চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে কঠোর সরকার

চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে কঠোর সরকার